শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ০৬:৩৮ পূর্বাহ্ন

টানা বৃষ্টিতে পাবনা শহরে জলাবদ্ধতা; ভোগান্তিতে শহরবাসী

পাবনা শহরে জলাবদ্ধতার একাংশ

বার্তাকক্ষ : বেশ কয়েকদিনের টানা বৃষ্টিতে পাবনা শহরে জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে। ভোগান্তিতে রয়েছেন পাবনা শহরবাসী।

দীর্ঘদিন মেরামত না করায় পাবনা পৌরসভার কিছু রাস্তায় বড় বড় গর্ত তৈরি হয়েছে। ভেঙে পড়েছে পানিনিষ্কাশন নালা। ময়লা-আবর্জনায় অনেক নালা আটকে আছে।

মধ্যশহরের ইছামতী নদী ও পুকুরগুলো ভরাটের কারণে ঠিকমতো পানিনিষ্কাশন হচ্ছে না। সামান্য বৃষ্টিতেই পৌর এলাকার অধিকাংশ মহল্লায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হচ্ছে। এ জলাবদ্ধতায় ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে পৌরবাসীকে।

পৌরসভা সূত্রে জানা যায়, ১৫টি ওয়ার্ডের পৌর এলাকায় মহল্লা রয়েছে ৪২টি। এসব মহল্লায় চলাচলের রাস্তার পাশ দিয়ে পৌরসভা প্রায় ১০০ কিলোমিটার পানিনিষ্কাশন নালা তৈরি করেছে। বৃষ্টির পানিনিষ্কাশনের এসব নালার মুখ দেওয়া হয়েছে মধ্যশহরের ইছামতী নদীতে।

শহরের কয়েকজন বাসিন্দা বলেন, আগে বৃষ্টি হলে নালা দিয়ে মহল্লার পানি ইছামতী নদীতে পড়ত। এ ছাড়া শহরের বিভিন্ন মহল্লায় কিছু বড় পুকুর ছিল। বৃষ্টির পানি এসব পুকুরে নেমে যেত। ফলে শহরে কখনোই তেমন জলাবদ্ধতা হয়নি।

দীর্ঘদিন মেরামত না করায় পানিনিষ্কাশনের অধিকাংশ নালা ভেঙে গেছে। অধিকাংশ নালা ময়লা-আবর্জনায় আটকে আছে।

দখল ও দূষণে নাব্যতা হারিয়েছে ইছামতী নদী। ময়লা-আবর্জনা জমে নদীর পানিপ্রবাহ বন্ধ রয়েছে। শহরের অধিকাংশ পুকুর ভরাট করে বাড়ি তৈরি করা হয়েছে। ফলে ঠিকমতো পানিনিষ্কাশন না হওয়ায় একটু বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হচ্ছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, বেশ কয়েকদিনের টানা বৃষ্টির পানিতে ডুবে আছে পৌরসভার মাছুমবাজার ও বাংলাদেশ ঈদগাহ এলাকার ব্যস্ততম রাস্তা দুটি।

পানি জমে জলাবদ্ধতা তৈরি হয়েছে পাবনা কলেজ সড়ক, প্রেসক্লাব সড়ক, ঝলাইপট্টি, শান্তিনগর, শিবরামপুর, শালগাড়িয়া রেনেসাঁ পাঠাগার, ছোট শালগাড়িয়া, এতিমখানাপাড়া, রাধানগর, মক্তবপাড়া, জুগিপাড়া, আটুয়া, ময়নামতি, দক্ষিণ রাঘরপুর ও দিলালপুর মহল্লার কিছু এলাকায়। এতে কষ্টে চলাচল করছেন পৌরবাসী।

দিলালপুর মহল্লার একজন বাসিন্দা বলেন, একটু বৃষ্টি হলেই পুরো মহল্লা পানিতে ডুবে যাচ্ছে। পানি নামতে সময় লাগছে ২০ থেকে ২৫ ঘণ্টা। অনেক বাড়ির নিচতলায় পানি উঠে যাচ্ছে। বৃষ্টি হলে বাড়ি থেকে বের হওয়া বন্ধ হয়ে যাচ্ছে।

ছোট শালগাড়িয়া মহল্লার বাসিন্দা শাহীন রহমান বলেন, আগে তাঁদের মহল্লায় কিছু বড় পুকুর ছিল। এ ছাড়া মহল্লার পেছনে বিশাল বিল এলাকায় পানি গড়াত। বর্তমানে পুকুরগুলো ভরাট হয়ে গেছে। বিল এলাকাটিও ভরাট হয়ে বাড়ি তৈরি হচ্ছে। দীর্ঘদিন মেরামত না করায় রাস্তা ও ড্রেনগুলো ভেঙে গেছে।

এ প্রসঙ্গে পাবনা পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী তাবিবুর রহমান বলেন, ‘পানিনিষ্কাশনের জন্য আমরা ইতিমধ্যেই কিছু নালা তৈরি করেছি। তবে আরও কিছু নালা প্রয়োজন, কিছু রাস্তাও মেরামত প্রয়োজন। এসব কাজে আমরা বিভিন্ন দেশি-বিদেশি সংস্থার কাছে অর্থ বরাদ্দ চেয়েছি। এখনো বরাদ্দ পাওয়া যায়নি।’

পৌরসভার মেয়র কামরুল হাসান বলেন, পৌরবাসীর ভোগান্তি নিরসনে চেষ্টার ঘাটতি নেই। বরাদ্দ এলেই নালা ও রাস্তাগুলো মেরামত করা হবে।

0
1
fb-share-icon1


© All rights reserved 2021 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
x
error: Content is protected !!