ট্রাকসহ ছিনতাই হওয়া চিনি ঈশ্বরদী থেকে উদ্ধার, আটক- ৩

পাবনা প্রতিনিধি : ছিনতাই হওয়া ২৫৯ বস্তা চিনি ঈশ্বরদী বাজারের ব্যবসায়ী তজম আলীর গোডাউন ও কোহিনূর বেকারীর কারখানা থেকে উদ্ধার হয়েছে।

বুধবার রাতে ডিবি পুলিশের অভিযানে চিনি ছাড়াও ট্রাক এবং তিন জনকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতদের মধ্যে রয়েছে ট্রাক ড্রাইভার সুমন প্রামাণিক (৩৫), বাজারের ব্যবসায়ী তজম আলী (৪৩) ও কোহিনূর বেকারীর মালিক নাসিরের ছেলে জুবায়েদ আহম্মেদ লিংকন (২৪)।

নারয়নগঞ্জের সোনারগাঁও থানার ডিবি পুলিশের পরিদর্শক হুমায়ন কবীর মোল্লা ও পাবনা ডিবির পরিদর্শক এস এম আলমগীর হোসেনের নেতৃত্বে এবং ঈশ্বরদী থানার সহযোগতিায় এই অভিযান পরিচালিত হয়।

সোনারগাঁও থানার মামলার উদ্ধৃতি দিয়ে ডিবি পুলিশের পরিদর্শক হুমায়ন কবীর মোল্লা জানান, গত ৩১ অক্টোবর সন্ধ্যায় ট্রাক ড্রাইভার সুমনের ঢাকা মেট্রো ২০-৮৫১৪ নং ট্রাকে মেঘনা সুগার মিলের ৩২০ বস্তা চিনি সিলেটের এসএ ট্রেডার্স বরাবরে পাঠানো হয়। এই চিনির দাম প্রায় সাড়ে নয় লাখ টাকা। কিন্তু ট্রাক ড্রাইভার সিলেটে না যেয়ে চিনি নিয়ে উধাও হয়।

এ ব্যাপারে সোনারগাঁও থানায় দায়েরকৃত অভিযোগের ভিত্তিতে ট্রাকসহ চালক সুমনকে আটক করা হলে সে ঈশ্বরদীতে চিনি বিক্রির কথা বলে। সুমনের তথ্যের ভিত্তিতে বুধবার রাতে ঈশ্বরদী বাজারের চাঁদ আলীর মোড়ে তজম আলীর গোডাউন হতে ১৫২ বস্তা চিনিসহ তাকে আটক করা হয়। পরে তজম আলীর দেয়া তথ্য অনুযায়ী কোহিনূর বেকারীর কারখানা হতে ১০৭ বস্তা চিনি উদ্ধার ও জুবায়েদ আহম্মেদ লিংকনকে গ্রেফতার করা হয়।