বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ০৩:০৮ অপরাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

ড্রাগন ফলের পুষ্টিগুণ

image_pdfimage_print

বাজারে দেখতে পাওয়া লালরঙা ড্রাগন ফলকে বলা হয় সুপার ফুড। কারণ এই ফলটি বিভিন্ন পুষ্টি উপাদানে ভরপুর। জেনে নিন ড্রাগন ফল শরীরের জন্য কতটা উপকারী

দীর্ঘস্থায়ী রোগ প্রতিরোধ : ভিটামিন সি, বেটা ক্যারোটিন, লাইকোপেন ও বেটালেইন সমৃদ্ধ ড্রাগন ফল নানারকম ক্রনিক বা দীর্ঘস্থায়ী রোগ প্রতিরোধে ভূমিকা রাখে। এদিকে এটি ফ্রি র‌্যাডিক্যাল (এক ধরনের অস্থির অণু যা কোষের ক্ষতি করে ও নানারকম দীর্ঘস্থায়ী রোগ ও প্রদাহ সৃষ্টি করে) তৈরিতেও বাধা দেয়। অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ এই ফল হৃদরোগ, ক্যানসার, ডায়াবেটিস ও আর্থ্রাইটিস প্রতিরোধেও সাহায্য করে।

খাদ্যআঁশে সমৃদ্ধ : খাদ্যআঁশ হজমে সাহায্য করার পাশাপাশি হৃদরোগ ও কোলন প্রতিরোধেও ভূমিকা রাখে। ওজন নিয়ন্ত্রণের জন্যও এর প্রয়োজন। কম ক্যালরিসম্পন্ন ড্রাগন ফল হতে পারে খাদ্যআঁশের দারুণ আধার।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় : ড্রাগন ফলের ভিটামিন সি ও ক্যারোটেনইড রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর পাশাপাশি রক্তের শ্বেতকণিকার ক্ষতি রোধ করে। এই সাদা রক্তকণিকাই জীবাণুর বিরুদ্ধে লড়াই করে প্রতিরোধ গড়ে তোলে।

আয়রনের ঘাটতি কমায় : সারা শরীরে অক্সিজেন সরবরাহে সাহায্য করে আয়রন। এছাড়া এটি খাবার ভেঙে শক্তিতে রূপান্তরিত করতেও ভূমিকা রাখে। ড্রাগন ফলে থাকা পর্যাপ্ত আয়রন আমাদের শরীরের আয়রনের চাহিদা মেটায়।

ম্যাগনেশিয়ামের চাহিদা মেটায় : অন্যান্য ফলের তুলনায় এতে অনেক বেশি ম্যাগনেশিয়াম রয়েছে। এই উপাদানটি খাবার ভেঙে শক্তি উৎপাদন, পেশি সংকোচন ও হাড়ের গঠনে ভূমিকা রাখে, ডিএনএ গঠনেও সাহায্য করে। হৃদরোগ ও স্ট্রোকের ঝুঁকিও কমায় ম্যাগনেশিয়াম।

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!