তনু ধর্ষণ-হত্যায় সিলেটজুড়ে প্রতিবাদ

রোদের মধ্যে ছাতা হাতে লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে আছে শতাধিক শিক্ষার্থী। তাদের হাতে রয়েছে ব্যানার ও প্ল্যাকার্ড। নেই কোনো বক্তব্য, নেই কোনো আওয়াজ। শুধু আছে নিরবতা। বৃহস্পতিবার বেলা ১টার দিকে এমন দৃশ্য সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে প্রাঙ্গণে দেখা গেছে।

ভিক্টোরিয়া কলেজ থিয়েটারের নাট্যকর্মী সোহাগী জাহান তনুকে ধর্ষণ করে হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীরা। তবে তাদের মানববন্ধনে কোনো বক্তব্য বা কোনো ধরনের স্লোগান ছিল না। লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে তারা তনু হত্যাকারীদের বিচারের দাবি জানিয়েছে।

সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে ওই মানববন্ধনে নেতৃত্ব দেয়া সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী মো. নজরুল ইসলাম বাংলামেইলকে জানান, তনুকে ধর্ষণ করে হত্যার প্রতিবাদ করতে তারা শহীন মিনার প্রাঙ্গণে অবস্থান করেছেন। মেডিকেল কলেজের সাধারণ শিক্ষার্থীদের উদ্যোগেই এ কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে।

শুধু নজরুলই নয়, মানববন্ধনে অংশ নেয়া সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী তাসনিয়া আহমেদ, মাহজুজা তাহিয়া আনাম, রাসেল বিল্লাল রূপম, গুল-ই-জান্নাত, বেদলিনা পান্ডিত, সাহারা আন্ঞ্জুম, নাবিদ রাইয়্যান বলেন, ‘আমরা তনু হত্যার বিচার চাই, তাই রাজপথে নেমেছি। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত রাজপথে থাকব।’

সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ শিক্ষার্থীদের মতো, আজ বৃহস্পতিবার শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, এমসি কলেজসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করছে।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার ভবনের সামনে অনুষ্ঠিত মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের ব্যানারে এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

মানববন্ধন শেষে কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার ভবনের সামনে থেকে বিক্ষোভ মিছিলটি শুরু হয়ে ক্যাম্পাসের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে এসে সমাবেশে মিলিত হয়।

এ সময় সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের আহ্বায়ক মাহীদুল ইসলাম রাতুলের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বিএমবি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোস্তফা কামাল মাসুদ, বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সরকার সোহেল রানা, স্পোর্টস সাস্টের সভাপতি এম আর রাফি, শাবি ছাত্রফ্রন্ট নেতা সুদীপ্ত বিশ্বাস বিভু, ইংরেজী বিভাগের শিক্ষার্থী সাগরিকা চৌধুরী, রিয়াজুল ফয়সাল প্রমুখ।

দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে সিলেটের ঐতিহ্যবাহী এমসি কলেজ ক্যাম্পাসের মূল ফটকে মানববন্ধন করেছে শিক্ষার্থীরা। ওই মাববন্ধনে কয়েকশত শিক্ষার্থী অংশ নেয়।

এছাড়াও  হত্যাকাণ্ডের পর থেকে সিলেটে বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন, স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে।

বৃহস্পতিবার বিকালে সিলেট শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে স্থানীয় সংস্কৃতিকর্মীরা তনু হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন করার কথা রয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত রোববার (২০ মার্চ) রাতে কুমিল্লা ময়নামতি সেনানিবাসের অলিপুর এলাকায় একটি কালভার্টের কাছ থেকে পুলিশ নিহত তনুর লাশ উদ্ধার করে। পুলিশ বলেছে, ধর্ষণের পর নির্মমভাবে তনুকে হত্যা করা হয়েছে।