সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ০৩:৪১ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

তিন দিনেও সনাক্ত হয়নি হত্যাকারী, আশ্রমে আতংক

ফাইল ফটো

image_pdfimage_print
ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

পাবনা জেলা প্রতিনিধি : শ্রীশ্রী ঠাকুর অনুকুল চন্দ্র সৎসঙ্গ সেবাশ্রমের সেবক নিত্যরঞ্জন পান্ডে (৬২) কে কুপিয়ে হত্যার ঘটনার তিনদিন অতিবাহিত হলেও হত্যাকান্ডের ক্লু উদঘাটন কিংবা হত্যাকারীদের সনাক্ত করতে পারেনি পুলিশ।

তবে সন্দেহভাজন হিসেবে আটক শিবির নেতার মাধ্যমে জড়িতদের সনাক্ত করার আশা করছে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। এদিকে নিত্যরঞ্জন পান্ডে হত্যার পর উৎকন্ঠা আর আতংকে দিন কাটাচ্ছেন আশ্রমের বাসিন্দারা। অনেকটা থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে আশ্রম এলাকায়।
আকস্মিক এই হত্যাকান্ড কেড়ে নিয়েছে সবার মুখের হাসি। দীর্ঘদিনের সহকর্মীকে হারিয়ে অনেকটা বাকরুদ্ধ আশ্রমের ধর্মযাজক ও সেবায়েতরা।
তারা বলছেন, কোনো কারণ ছাড়া এমন একটি হত্যাকান্ড ভাবিয়ে তুলেছে সবাইকে।  রোববার দুপুরে ঠাকুর অনুকুল চন্দ্র সৎসঙ্গ সেবাশ্রমে গিয়ে দেখা যায়, র্যাব-পুলিশের টহল জোরদার করা হয়েছে। আশ্রমের গুমোট পরিবেশকে স্বাভাবিক করতে আশ্রম কর্মকাদের সাথে নিয়মিত কথা বলছে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী।
ঢাকা থেকে বিএনপি চেয়ারপার্সনের একটি প্রতিনিধি দল এসেছে সমবেদনা জানাতে ও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করতে। আলাপকালে আশ্রমের দীর্ঘদিনের বাসিন্দা শেফালী ঘোষ, শিল্পী রায়, অর্পিতা ঘোষ বলেন, এতদিন আমরা নিরাপত্তা নিয়ে শংকিত ছিলাম না। নিত্যরঞ্জন হত্যার পর থেকে আমরা আতংক আর উৎকন্ঠায় দিন কাটাচ্ছি। নিরাপত্তার অভাব বোধ করছি।
আমাদের স্বামী-সন্তান আশ্রমের বাইরে কাজে-স্কুলে যায়। কখন কার কি হয় এই ভেবে ঘুম আসেনা। ঠাকুর অনুকুল চন্দ্র সৎসঙ্গ আশ্রমের সহ প্রতি ঋত্বিক শ্রী ননীগোপাল দেবনাথ বলেন, আমরা শান্তিতে ছিলাম। কিন্তু নিত্যরঞ্জন হত্যা আমাদের দুশ্চিন্তায় ফেলেছে। দেশের বিভিন্ন স্থানের হত্যাকান্ডের সাথে এ হত্যার মিল রয়েছে। আমাদের ধারণা জঙ্গী সংগঠনগুলো তাদের অবস্থান জানান দিতে এই হত্যাকান্ড চালিয়ে যাচ্ছে।
পাবনায় নতুন করে জঙ্গী তৎপরতা শুরু হলো। আমরা আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কঠোর অবস্থান-অভিযান পরিচালনার দাবি জানাচ্ছি। আশ্রমের আরেক সহ প্রতি ঋত্বিক শ্রী অধীর কুমার রায় বলেন, অনুকুল ঠাকুরের শিক্ষা হলো অসাম্প্রদায়িক। এখানে সকল ধর্মের মানুষ একসাথে প্রার্থনা করে। সবার পরিচয় মানুষ। সেখানে নিত্যরঞ্জন হত্যা আমাদের ভাবিয়ে তুলেছে। নিরাপত্তার অভাব দেখা দিয়েছে।
ঠাকুর অনুকুল চন্দ্র সৎসঙ্গ আশ্রমের কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য বলাই কৃষ্ণ ঘোষ জানান, নিহত নিত্যরঞ্জন পান্ডে একদম সাদাসিধে, নির্লোভ, ভাল মনের মানুষ ছিলেন। তার সাথে কারো শত্রুতা ছিল না। তাকে হত্যা দেশের অন্যান্য হত্যাকান্ডের পরিকল্পিত অংশ। আমরা এ হত্যার বিচার চাই।
এ বিষয়ে পুলিশ সুপার আলমগীর কবির জানান, হত্যার ধরণ দেখে মনে হচ্ছে দেশের বিভিন্ন স্থানে পরিকিল্পত হত্যার মতো দূর্বৃত্তরা হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে। মুলত দেশকে অস্থীতিশীল ও মানুষের মাঝে আতংক সৃষ্টির উদ্দেশ্যে এ হত্যাকান্ড। আমরা সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করছি। ইতিমধ্যে মামলা হয়েছে এবং ঘটনার সাথে জড়িত থাকতে পারে এমন সন্দেহভাজন হিসেবে এক শিবির নেতাকে আটক করা হয়েছে। আশা করছি দ্রুত হত্যার ক্লু উদঘাটন করতে পারবো।
0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!