বৃহস্পতিবার, ০২ এপ্রিল ২০২০, ০৩:০৪ অপরাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

নাক ডাকায় অবহেলা নয়

নাক ডাকায় অবহেলা নয়

চল্লিশোর্ধ্ব বয়সে অল্প-বিস্তর নাক ডাকা যেমন ক্ষতিকর নয়; তবে বিকট শব্দে নাক ডাকা এবং বাচ্চাদের নাক ডাকা সবসময়ই কোনো রোগের কারণে হয়ে থাকে। ঘুমের মধ্যে দমবন্ধ হয়ে আসা এবং শ্বাস নেয়ার জন্য হাঁসফাঁস করা সবচেয়ে খারাপ ধরনের নাক ডাকা।

 

কেন ও কোথায় হয়- শ্বাসের রাস্তায় বাতাস প্রবেশে বাধা পাওয়ায় এ সমস্যা হয়। নাক, তালু বা মুখগহ্বর নাক ডাকার উৎপত্তিস্থল। নাকের হাড় বাঁকা, সাইনাসে প্রদাহ, মোটা মানুষের গলায় অতিরিক্ত মেদ জমা নাক ডাকার প্রধান কারণ, শিশুদের এডিনয়েড বা টনসিল বড় হয়ে গেলে এবং গলায় ঘনঘন ইনফেকশন হলে শিশু নাক ডাকতে পারে।

উপসর্গ- এ সমস্যায় আক্রান্ত রোগীদের বুদ্ধিমত্তার ক্রমশ অবনতি, অমনোযোগিতা, ব্যক্তিত্বের পরিবর্তন, মাথা ব্যথা, সকালে মাথা ভার হয়ে থাকা, দিনেরবেলা ঘুমঘুম ভাব, শিশুদের ঘন ঘন প্রস াব করা নাক ডাকার কারণে হয়ে থাকে।

জটিলতা- এ রোগীদের জীবনের ওপর ঝুঁকি হতে পারে- কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট, হার্ট ফেইলুর ও শিশুদের কট ডেথ হয়।

করণীয়- মেদবহুল শরীর হলে ওজন কমানো দরকার। ধূমপান ও মদপানের অভ্যাস থাকলে তা ত্যাগ করতে হবে। ঘুমের ওষুধ সেবন থেকে বিরত থাকতে হবে। শিশুদের টনসিল ও এডিনয়েড অপারেশন করা। নাকের হাড় বাঁকার যথাযথ চিকিৎসা প্রয়োজন। কোনো অবস্থাতেই এ সমস্যাকে হেলাফেলা করবেন না।

অধ্যাপক ডা. জাহীর আল-আমিন। বিভাগীয় প্রধান, বারডেম

মোবাইল ফোন : ০১৭১৫০১৬৭২৭


About Us

COLORMAG
We love WordPress and we are here to provide you with professional looking WordPress themes so that you can take your website one step ahead. We focus on simplicity, elegant design and clean code.

© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Wordpress Social Share Plugin powered by Ultimatelysocial