নির্মাধীন পাবনা মেরিন একাডেমীতে শিক্ষার্থীদের ভর্তি নিয়ে সংশয়

বার্তাকক্ষ : পাবনা মেরিন একাডেমীর কাজ শেষ না হওয়ায় আগামী শিক্ষাবর্ষে শিক্ষার্থীদের ভর্তি নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে। দফায় দফায় প্রকল্পের মেয়াদ ও ব্যয় বাড়িয়ে নির্ধারিত সময়েও পাবনা মেরিন একাডেমীর কাজ শেষ হচ্ছে না।

২০১২ সালের নভেম্বর মাসে ১শ ২০ কোটি টাকা ব্যয়ে পাবনার নগরবাড়িতে শুরু হয় মেরিন একাডেমির নির্মান কাজ। ২০১৪ সালে নির্মান কাজ শেষ হবার কথা থাকলেও ২০১৭ সালেও তার বাস্তবায়ন হয়নি।

দু’দফা মেয়াদ বাড়িয়ে ২০১৬ সালের অক্টোবরে শেষ করা কথা থাকলেও কাজ শেষ না হওয়ায় আবারো প্রক্রিয়া চলছে আরো একদফা মেয়াদ বাড়ানোর।

মূর প্রশাসনিক ভবন ও ডরমিটরীর কাজ অনেকটা শেষ হলেও মাত্র শুরু হয়েছে মসজিদ, সুইমিংপুল, জিমনেসিয়ামসহ বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামো।

এরই মাঝে এ মাসের শুরুতে নবনির্মিত ছাদ ধসে ৫ জন শ্রমিক আহত হন। ফলে কাজ আরে ধীর গতিতে চলছে বলে জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

ওই প্রকল্পের সাইট ইঞ্জিনিয়ার হাসান রাজা জানান প্রকল্পের কাজ অনেক অগ্রগতি হয়েছে তবে পুরোপুরি শেষ করতে এরা বছর খানেক সময় লাগবে।

২০১৭ সালের অক্টোবরে নির্মানাধীন পাবনা মেরিন একাডেমীতে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হবে বলে নৌপরিবহন মন্ত্রনালয় ঘোষনা দিয়েছে। এদিকে নির্মান কাজ শেষ না হওয়ায় ভর্তি নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে।

তবে শিক্ষা কার্যক্রম চালু করতে অসুবিধা হবে না বলে জানিয়েছে গনপূর্ত বিভাগ।

উল্লেখ্য, ২০১২ সালে সরকার পাবনা, বরিশাল, রংপুর ও সিলেটে ৪ টি নতুন মেরিন একাডেমী প্রতিষ্ঠার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করলে একই বছরের ২০ মার্চে প্রকল্পটির ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন তৎকালীন পরিকল্পনা মান্ত্রী এয়ার ভাইস মার্শাল (অবঃ) একে খন্দকার।