পদ্মার পানি কমতে শুরু করেছে

হার্ডিঞ্জব্রীজ, পাকশী, পাবনা

হার্ডিঞ্জব্রীজ, পাকশী, পাবনা

নিজস্ব প্রতিনিধি: ফারাক্কার সবগুলো গেট খুলে দেওয়ায় সপ্তাহ খানেক ধরে ফুলেফেঁপে ওঠা পদ্মার পানি কমতে শুরু করেছে। পাকশী হার্ডিঞ্জ ব্রিজ পয়েন্টে পদ্মা নদীর পানি কয়েক দিন বৃদ্ধি পেলেও তা গত দুইদিন ধরে কমতে শুরু করেছে।

পাকশী পয়েন্টে দায়িত্বরত পানি উন্নয়ন বোর্ডের গেজ রিডার আব্দুল হামিদ জানান, গত মঙ্গলবার (৩০ আগস্ট) সকালে পাকশী পয়েন্টে পদ্মার পানি বিপদ সীমার ১৬ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিলো।

দুপুর ৩ টায় তা ১ সেন্টিমিটার কমে প্রবাহিত হচ্ছিলো। মঙ্গলবার সকাল ৬টায় পানি পরিমাপ করা হয় ১৪.৯  আর দুপুর ৩ টায় পরিমাপ করা হয় ১৪.৮।

তিনি আরো জানান, গত শনিবার বিকেল তিনটায় পানি পরিমাপ করা হয় ১৪ দশমিক ১৯ সেন্টিমিটার। যা গত ১০ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ ছিলো। তবে মঙ্গলবার সকাল থেকে পানির প্রবাহ কমতে থাকে।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের উত্তরাঞ্চলীয় পরিমাপ বিভাগ পাবনা কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী কে এম জহুরুল হক জানান, ফারাক্কায় পানি কমতে থাকায় পদ্মার পানি বিপদ সীমা অতিক্রম করার আশঙ্কা কমে গেছে।

গত এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে বিপজ্জনক গতিতে বেড়ে দু’দিন স্থিতিশীল থাকার পর সোমবার থেকে পানি নামতে শুরু করেছে রাজশাহীসহ অন্যান্য অঞ্চলে।

তবে পানি কমলেও ভাঙন তীব্র রূপ নিয়েছে। পদ্মা তীরবর্তী শরীয়তপুর, রাজবাড়ী ও কুষ্টিয়ার দৌলতপুরের অনেক এলাকা এরই মধ্যে নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। তবে আপ্রাণ চেষ্টা করে রোধ করা গেছে রাজশাহী শহররক্ষা বাঁধ।

ভারতের বিহার রাজ্যে বন্যা মোকাবেলায় সম্প্রতি পশ্চিমবঙ্গ সরকার ফারাক্কা বাঁধের সবগুলো গেট খুলে দিলে পদ্মায় পানি প্রবাহ বেড়ে যায়। এতে আকস্মিক বন্যায় আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়ে বাংলাদেশের পদ্মা-তীরবর্তী জনপদের বাসিন্দারা।