সোমবার, ০৩ অগাস্ট ২০২০, ০৫:২৩ অপরাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

পবিত্র শবেকদর পালিত

সারা দেশে যথাযোগ্য মর্যাদা ও ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যে পালিত হয়েছে পবিত্র লাইলাতুল কদর বা শবেকদর। হাজার রাতের চেয়েও পুণ্যময় এই রাতে ইবাদত করতে এশা ও তারাবির নামাজে মসজিদগুলোয় নামে মুসল্লির ঢল।

শনিবার সারা রাত নফল নামাজ, জিকির-আসকার, কোরআন তেলাওয়াত করে রাত অতিবাহিত করেন মুসল্লিরা। অনেকে রাতে কবরস্থানে গিয়ে মৃত মা-বাবা, আত্মীয়স্বজনের কবর জিয়ারত করে তাদের আত্মার শান্তির জন্য দোয়া করেন।
শবেকদর মুসলমানদের কাছে অত্যন্ত মহিমান্বিত একটি রাত। এই রাতের ইবাদত হাজার মাসের ইবাদতের চেয়েও উত্তম। এই রাতেই মুসলমানদের পবিত্র ধর্মগ্রন্থ আল-কোরআন নাজিল হয় এবং এই রাতকে কেন্দ্র করে কোরআন শরিফে ‘আল-কদর’ নামে একটি সুরা অবতীর্ণ করা হয়।

তাই শবেকদরের রাতটি মুসলমানরা আল্লাহপাকের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা ও পুণ্য লাভের আশায় নফল নামাজ আদায়, কোরআন তেলাওয়াত ও জিকির-আসকার করে অতিবাহিত করেন।

পবিত্র লাইলাতুল কদর উপলক্ষে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে শনিবার বাদ জোহর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে ‘পবিত্র লাইলাতুল কদরের গুরুত্ব ও তাৎপর্য’ শীর্ষক ওয়াজ ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
ওয়াজ পেশ করবেন মিরপুর বায়তুল মামুর জামে মসজিদের খতিব ড. মুফতি আবদুল মুকিত আযহারী। এছাড়া দেশের সব মসজিদেই তারাবির নামাজের পর থেকে ওয়াজ মাহফিল, মিলাদ, দোয়া মাহফিল ও বিশেষ মোনাজাতের আয়োজন ছিল।

শবেকদর উপলক্ষে বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল এবং বাংলাদেশ বেতার ও বেসরকারি রেডিওগুলো বিশেষ অনুষ্ঠানমালা সম্প্রচার করে।

এছাড়া সংবাদপত্রগুলো বিশেষ নিবন্ধ প্রকাশ করেছে। লাইলাতুল কদর উপলক্ষে রাতে ওয়াজ মাহফিল, দোয়া ও বিশেষ মোনাজাত হয়। যেসব মসজিদে খতমে তারাবি হচ্ছে, সেখানে গত রাতে খতম হয়।

খতমে কোরআনকে কেন্দ্র করে মসজিদে মসজিদে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাতের আয়োজন করা হয়। ফজরের নামাজের পর বিশেষ মোনাজাতে দেশ ও জাতির সমৃদ্ধি কামনা করে আল্লাহর দরবারে দোয়া করা হয়।

error20
fb-share-icon0
Tweet 10
fb-share-icon20


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Wordpress Social Share Plugin powered by Ultimatelysocial
error: Content is protected !!