রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ০১:১৩ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের টিটিইদের রাজস্ব আদায়ে অসামঞ্জস্যতা

image_pdfimage_print

railwayনিউজ ডেস্ক : বাংলাদেশ রেলওয়ের বিভিন্ন ট্রেনে যাঁরা টিকেট পরীক্ষা করেন তাঁদের বলা হয় ট্রেন টিকেট এগজামিনার (টিটিই)। এই টিটিইদের মধ্যে দুটি ভাগ রয়েছে। একদল হলেন অ্যাকাউন্স টিটিই আর অন্যদল জেনারেল টিটিই। ওই দুই দলেরই কাজ যাত্রীদের কাছ থেকে টিকেট পরীক্ষা করা।

মাস শেষে হিসাব করে দেখা হয়, কোনো দল কী পরিমাণ রাজস্ব আদায় করল।

রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চল জোনে গত তিন মাসে টিকিট চেকিং প্রোগ্রামে অংশ নেওয়া অ্যাকাউন্স টিটিই ও জেনারেল টিটিইদের জমা দেওয়া রাজস্ব আয়ের মধ্যে ব্যাপক পার্থক্য দেখা গেছে, যা সাধারণত হওয়ার কথা নয়।

২০১৬ সালের জানুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত তিন মাসে ২৫৬ জন জেনারেল টিটিই রাজস্ব আয় করেছেন এক কোটি ৫৯ লাখ ৯৪ হাজার ২৮৯ টাকা। অন্যদিকে ৬৬ নজন অ্যাকাউন্স টিটিই একই সময়ে রাজস্ব আয় করেছেন ২৩ লাখ ৮৮ হাজার ৪৭৯ টাকা।

অর্থাৎ জেনারেল টিটিইদের আয়ের তুলনায় অ্যাকাউন্স টিটিইদের জনপ্রতি গড় আয় ছয় গুণেরও কম। আর এ কারণে রেলওয়ের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাদের মধ্যে চরম অসন্তোষ দেখা দিয়েছে।

পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের দায়িত্বশীল একটি সূত্র এসব তথ্য জানিয়েছে।

সম্প্রতি  বাংলাদেশ রেলওয়ের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাদের কড়া তদারকিতে পাকশীসহ বিভিন্ন বিভাগে যাত্রী নিরাপত্তা ও সেবার মান বৃদ্ধিতে নানা ধরনের কর্মসূচি নেওয়া হয়। এরই অংশ হিসেবে মোবাইল কোর্ট, ব্লক চেকিং, রাতে মোবাইল কোর্ট ও চেকিং কার্যক্রম জোরদার করা হয়। একই সঙ্গে জেনারেল টিটিই ও অ্যাকাউন্স টিটিইদের কার্যক্রমও জোরদার করা হয়।

কার্যক্রম বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, জানুয়ারি মাসে ২২ জন অ্যাকাউন্স টিটিই টিকিট চেকিং করে আয় করেন ৬ লাখ ৯২ হাজার ৬৭৯ টাকা । অর্থাৎ প্রতি টিটিইর গড় রাজস্ব আয় ৩১ হাজার ৪৮৫ টাকা।

অন্যদিকে ৮০ জন জেনারেল টিটিই আয় করেন ৫০ লাখ ১৬ হাজার ৬৭১ টাকা। জনপ্রতি গড় আয় হয় ৬২ হাজার ৭০৮ টাকা।

ফেব্রুয়ারি মাসে ২২ জন অ্যাকাউন্স টিটিই টিকেট চেকিং করে আয় করেন আট লাখ ১৪ হাজার ৭০ টাকা। প্রতি টিটিইর গড় রাজস্ব আয় হয় ৩৬ হাজার ৪৩০ টাকা। অন্যদিকে ৮০ জন জেনারেল টিটিই আয় করেন ৫০ লাখ চার হাজার  ৪০৫ টাকা । জনপ্রতি গড় আয় হয় ৫৮ হাজার ১৯০ টাকা।

এরপর মার্চ মাসে ২২ জন অ্যাকাউন্স টিটিইর চেকিং বাবদ আয় আট লাখ ৯৪ হাজার ৩২০ টাকা। একই সময়ে ৮০ জন জেনারেল টিটিই আয় করেন ৫৯ লাখ ৭৩ হাজার ২১৩ টাকা।

ফলে দেখা যায়, অ্যাকাউন্স টিটিইদের আয় জেনারেল টিটিইদের আয়ের ছয় গুণেরও কম। এদিকে জেনারেল টিটিইদের রাজস্ব আয় অ্যাকাউন্স টিটিইদের আয়ের তুলনায় ছয়গুণ বেশি হওয়ায় রেলওয়ের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের মধ্যে অসন্তোষ সৃষ্টি হয়েছে।

এ ব্যাপারে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) খায়রুল আলম বলেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে। কী কারণে অ্যাকাউন্স টিটিই ও জেনারেল টিটিইদের আয়ের মধ্যে এই ব্যাপক অসামঞ্জস্য তৈরি হয়েছে, তা খুঁজে বের করা হবে। যদি কোনো অ্যাকাউন্স টিটিই কাজে সক্রিয় না থাকেন, তবে তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!