রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ০৮:১৩ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

পাঁচ বছর পর বদলা নিলো বাংলাদেশ

image_pdfimage_print

ঘরের মাঠে মুজিববর্ষ ফিফা ফুটবল আন্তর্জাতিক সিরিজের প্রীতি ম্যাচে নেপালকে ২-০ গোলে হারিয়েছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের পক্ষে গোল দুটি করেছেন নাবিব নেওয়াজ জীবন ও মাহবুবুর রহমান। ম্যাচের ১০ মিনিটে সাদ উদ্দিনের পাস থেকে দারুণ গোল করেন জীবন। ম্যাচের ৭৯ মিনিটে মাহবুবের করা একক প্রচেষ্টার গোলটিও ছিলো দেখার মতো।

২০১৩ ও ২০১৮ সালের সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে নেপালের কাছে হেরেছিলো বাংলাদেশ। দুবারই পরাজয়ের ব্যবধান ছিলো ২-০। এছাড়া গত বছর এসএ গেমসের ম্যাচে হেরেছিলো ১-০ গোল ব্যবধানে। তবে দুই প্রীতি ম্যাচের প্রথমটিতে সহজ জয় তুলে নিয়ে দ্বিতীয় ম্যাচের আগে আত্মবিশ্বাস ও মানসিকভাবে এগিয়ে থাকবে জামাল ভূঁইয়ার দল।

তবে দিন শেষে কথা রেখেছেন বাংলাদেশের ফুটবলাররা। নেপালের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে বাংলাদেশ অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া বলেছিলেন, ‘তিন ম্যাচ হারের বদলা জয়ে নিতে চান তিনি।’ অবশেষে জেমি ডের শিষ্যরা অধিনায়কের কথাই সত্য করলেন।

এ জয়ে আন্তর্জাতিক ফুটবলে দীর্ঘ ৫ বছর পর নেপালের বিপক্ষে জয় পেলো বাংলাদেশ। সর্বশেষ জয়টি ছিলো ২০১৫ সালের ডিসেম্বরে ঢাকায়। সেটাও ছিলো ফিফা ফ্রেন্ডলি ম্যাচ।

ম্যাচের শুরু থেকে আক্রমণাত্মক খেলা বাংলাদেশ ১০ম মিনিটে সাদ উদ্দীনের পাস থেকে জীবনের গোলে এগিয়ে যায়। এরপর ম্যাচের ১৪ মিনিটে আক্রমণে ওঠা নেপাল টানা দুই কর্ণার পায়। কিন্তু ভয় জাগাতে পারেনি বাংলাদেশি ডিফেন্সে। ১৭ মিনিটে নেপালের অনন্ত বিস্টা ফাঁকায় বল পেয়ে শট করলেও গোলমুখে রাখতে ব্যর্থ হোন।

২৩ মিনিটে বিশ্বনাথের থ্রো থেকে ভালো সুযোগ পায় বাংলাদেশ। তবে ডি বক্সে থাকা তপু বর্মণের হেড গোলপোস্টের বাম পাশ দিয়ে বেরিয়ে যায়। এরপর বাংলাদেশি ফুটবলারদের মিস পাসে বল পেলেও রাবি পাসওয়ান গোলমুখে দুর্বল শট করেন। যা ধরতে বেগ পেতে হয়নি বাংলাদেশি গোলরক্ষক জিকোর।

সেখান থেকে পাল্টা আক্রমণে উঠে বাংলাদেশ। বিশ্বনাথও দারুণ এক ক্রস করেন ডি বক্সে। তবে নেপালের ডিফেন্ডাররা ক্লিয়ার করে বল। ডি বক্সের একটু বাইরে বল পায়ে দূরপাল্লার এক অসাধারণ শট নেন মানিক মোল্লা। তবে নেপাল অধিনায়ক ও গোলরক্ষক কিরণ অসাধারণ সেই জোরালো শট কর্ণারের বিনিময়ে ঠেকিয়ে দেন।

এদিকে ৩২ মিনিটে সহজ একটি সুযোগ মিস করেন প্রথমার্ধের একমাত্র গোলস্কোরার জীবন। সাদ উদ্দিনের ক্রস ফাঁকায় পেলেও সময় না নিয়ে ভলিতে জালে জড়াতে গিয়ে সহজ সুযোগ মিস করেন ৯ নাম্বার জার্সিধারী এই ফুটবলার।

এরপর কিছুটা ডিফেন্সিভ হয়ে খেলে বাংলাদেশ। নেপাল আক্রমণ করার চেষ্টা চালালেও সেগুলো শক্তশালী ছিলো না। যদিও ৩৯ মিনিটে বাংলাদেশের ডিফেন্সের ব্যর্থতায় সুযোগ পায় এগিয়ে যাওয়ার। কিন্তু সতীর্থের বাড়ানো ক্রস ঠিকমতো শট করতে পারেননি দলের রবি পাসওয়ান। পরে অনন্ত বিস্টা দূর্বল শট করলে ঠেকিয়ে দেন জিকো। বাকি সময় সাধারণ ফুটবল খেলে এগিয়ে থেকে নেপালের বিপক্ষে মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ।

দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে নামা বাংলাদেশ পরিকল্পিত ফুটবল খেলতে থাকে। যদিও আক্রমণে বেশি ওঠার চেষ্টা করে নেপাল। তবে সফরকারী দলের আক্রমণে ছিলো না ধার এবং পরিকল্পনা। ম্যাচের ৫৭ মিনিটে বাংলাদেশ বেশ দারুণ এক পরিকল্পিত আক্রমণে যাওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু ৫ জনের নেপাল ডিফেন্স ভেঙে ডি বক্সে ঢুকতে পারছিল না বাংলাদেশ। পরবর্তীতে রাইট উইং থেকে দারুণ এক শট করেন তপু। সরাসরি জালে করা সেই শট নেপাল গোলরক্ষক দারুণ দক্ষতায় নিজের আয়ত্তে নেন।

৫৯ মিনিটে প্রথমবারের মতো প্লেয়ার পরিবর্তন করে বাংলাদেশ, তাও দুটো। মানিক মোল্লার বদলে সোহেল রানা এবং জামালের বদলে মাঠে নামেন ফাহাদ। ৬৪ মিনিটে উঠে যান গোলস্কোরার জীবন, নামেন বিপলু।

হাই প্রেসিং করে খেলতে থাকা বাংলাদেশ সোহেল রানার বদৌলতে ৭৭ মিনিটে ফ্রি কিক আদায় করে নেন। জামালের বদলে নেতৃত্ব দেওয়া তপুর অসাধারণ ফ্রি কিক অল্পের জন্য বাঁচান নেপাল গোলরক্ষক কিরণ। এরপর ৭৮ মিনিটে নেপাল পায় ভালো সুযোগ। কিন্তু বাংলাদেশ গোলরক্ষক জিকোর দৃঢ়তায় রক্ষা পায় বাংলাদেশ।

এরপরই জাদুকরী গোলটি করেন মাহবুব। ম্যাচের ৭৯ মিনিটে মাঝ মাঠের একটু সামনে থেকে বল পেয়ে নেপালের ডিফেন্সকে গতিতে হারিয়ে দারুণ এক গোল করেন এই ফুটবলার।

ফিফা এই প্রীতি ম্যাচটি টি-স্পোর্টস ইউটিউবে লাইভ স্ট্রিমিং করছে। এছাড়াও টি-স্পোর্টস এবং বাংলাদেশ টেলিভিশন সরাসরি সম্প্রচার করছে।

বাংলাদেশ একাদশ
আনিসুর রহমান জিকো, বিশ্বনাথ ঘোষ, তপু বর্মণ, রিয়াদুল হাসান, রহমত মিয়া, জামাল ভূঁইয়া (অধিনায়ক), মানিক হোসেন মোল্লা, সাদ উদ্দিন, নাবিব নেওয়াজ জীবন, সুমন রেজা, মোহাম্মদ ইব্রাহিম।
বাংলাদেশ কোচ: জেমি ডে।

নেপাল একাদশ
কিরণ চেমজং (অধিনায়ক), সুমন আরিয়াল, আনান্ত তামাং, আজিত ভন্দারি, বিকাশ খাওয়াস, বিক্রম লামা, তেজ তামাং, আঞ্জান বিস্টা। সুজাল শ্রেষ্টা, রাবি পাসওয়ান, নাওয়াউগ শ্রেষ্ঠা।
নেপাল কোচ: জোহান কালিন।

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!