পাবনায় এখনও স্থাপিত হয়নি পিসিআর ল্যাব

নিজস্ব প্রতিনিধি : দেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছিলো গত ৮ মার্চ। আর পাবনাতে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছিলো গত ১৬ এপ্রিল।

এর মাঝে ৬টি মাস পেরিয়ে গেলেও এখনও এ জেলায় স্থাপিত হয়নি পিসিআর ল্যাব।

উপসর্গ দেখা দিলে নমুনা দিয়ে ফল পেতে অপেক্ষা করতে হয় ৭ থেকে ১০ দিন। এ অবস্থায় ল্যাব স্থাপনের দাবি জেলাবাসীর।

করোনা ঝুঁকি বিবেচনায় পাবনায় করোনা টেস্টের জন্য পিসিআর ল্যাব স্থাপনের দাবি জানিয়েছে পাবনার বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ।

পাবনায় পিসিআর ল্যাব না থাকায় পরীক্ষা বেশি পরিমাণে করা যাচ্ছে না এবং রিপোর্ট পেতে অনেক দেরি হওয়ায় দিন দিন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা নিরবে বৃদ্ধি পাচ্ছে পাবনায়।

এর আগে রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব সেলিম রেজা, পাবনা-৫ আসনের সংসদ সদস্য গোলাম ফারুক প্রিন্স, পাবনার জেলা প্রশাসক কবীর মাহমুদ, পাবনা জেলা সিভিল সার্জন ডা: মেহেদী ইকবালসহ একাধিক ব্যাক্তির পক্ষ থেকে পাবনায় পিসিআর ল্যাব স্থাপনের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হলেও এখন তা স্থাপন করা হয়নি।

রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব সেলিম রেজা গত জুলাই মাসের ৪ তারিখে ঈশ্বরদীতে এক মতবিনিময় সভায় বলেন- করোনাভাইরাস শনাক্তে পাবনাতে তিনটি পিসিআর ল্যাব স্থাপনের চেষ্টা চলছে।

পাবনা জেলার পাকশীস্থ রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প দেশের অগ্রাধিকারভূক্ত একটি প্রকল্প। সেটি মাথায় রেখেই বর্তমান করোনা পরিস্থিতি বিবেচনা করে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলেও জানিয়েছিলেন তিনি।

পাবনা-৫ আসনের সংসদ সদস্য গোলাম ফারুক প্রিন্স ও পাবনার জেলা প্রশাসক কবীর মাহমুদ বিভিন্ন সময় বিভিন্ন অনুষ্ঠানে পাবনায় পিসিআর ল্যাব স্থাপনের বিষয়ে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন।

তবে তা এখন পর্যন্ত বাস্তবে রূপ লাভ করেনি। ফলে আতঙ্কে রয়েছেন পাবনার মানুষ।