ঢাকাবুধবার , ২০ এপ্রিল ২০২২
আজকের সর্বশেষ সবখবর

পাবনার ইছামতি নদীর দু’পাড়ের অবশিষ্ট অবৈধ স্থাপনা শীঘ্রই উচ্ছেদ: জেলা প্রশাসক

News Pabna
এপ্রিল ২০, ২০২২ ১০:৪৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

 

স্টাফ রিপোর্টারঃ পাবনা জেলা প্রশাসক বিশ্বাস রাসেল হোসেন বলেছেন, সকল আইনী বাঁধা শেষ করে পাবনার ঐতিহ্যবাহী ইছামতি নদীর দু‘পাড়ের অবশিষ্ট অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হবে। একই সাথে খনন কাজ চলবে। এ জন্য তিনি পাবনাবাসীর সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন।

এএলআরডি‘র সহযোগিতায় এবং বাঁচতে চাই ও ইছামতি নদী উদ্ধার আন্দোলন পাবনার যৌথ আয়োজনে বুধবার (২০ এপ্রিল) পাবনা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত বিশ্ব পানি দিবস -২০২২ উপলক্ষে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিঁনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

পাবনা জেলা পরিষদের প্রধান নিবার্হী কর্মকর্তা কাজী আতিয়ুর রহমান (উপ-সচিব)‘র সভাপতিত্বে এবং ইছামতি নদী উদ্ধার আন্দোলন পাবনার সভাপতি এস এম মাহবুব আলমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন বাপাউবো পাবনার নির্বাহী প্রকৌশলী সারোয়ার জাহান সুজন, মাহাতাব বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অধ্যক্ষ (অবঃ) আলহাজ মাহাতাব উদ্দিন বিশ্বাস, পাবনা সংবাদপত্র পরিষদের সভাপতি আব্দুল মতীন খান, বীরমুক্তিযোদ্ধা আ স ম আব্দুর রহিম পাকন, ইছামতি নদী উদ্ধার আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ হাবিবুর রহমান এবং বাংলাদেশ নদী বাঁচাও আন্দোলন পাবনা জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক শহিদুর রহমান শহিদ।

অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য দেন বাঁচতে চাই‘র নিবার্হী পরিচালক আব্দুর রব মন্টু। বাপাউবোর নিবার্হী প্রকৌশলী বলেন, দিন দিন পানির স্তর নেমে যাচ্ছে। অধিকাংশ টিউবয়েলে পানি উঠছেনা। পরিকল্পিত নগরায়ন না করা হলে এ সমস্যা আরও প্রকট আকার ধারন করবে। পাবনা শহরের মধ্যে দিয়ে বয়ে যাওয়া ইছামতি নদী খনন করে প্রবাহমান করা হলে শহরের মধ্যে পানির সমস্যা দূর হবে।

তিনি আরও বলেন ঠিকাদারের গাফিলতির কারণে কাজের অগ্রগতি নেই। প্রয়োজনে ঠিকাদার বাদ দিয়ে নতুন ঠিকাদার নিয়োগ করা হবে।

পাবনা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত বিশ্ব পানি দিবস উপলক্ষে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভা

সভায় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( রাজস্ব) শিমুল আখতার, জেলা শিক্ষা অফিসার এস এম মোসলেম উদ্দিন, বাপাউবোর সহকারী প্রকৌশলী মাহাবুব আল মেহেদী, উপ প্রকৌশলী শাহীন রেজা ও সহকারী পরিচালক মোশাররফ হোসেন, সামছুল হুদা ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ এনামুল হক চৌধুরী টগর, পাবনা আদর্শ গালর্স বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আমানুল্লাহ খান, শহীদ আহম্মেদ রফিক বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হেলেনা খাতুন, সেলিম নাজির উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক হাসিনা আখতার রোজী, সাহিত্য ও বিতর্ক ক্লাব পাবনার সভাপতি ড. মনছুর আলম, শহীদ মনছুর আলী কলেজের সহকারী অধ্যাপক ড. আল আমিন, কৃষিবিদ জাফর সাদেক, সূচনা‘র নিবার্হী পরিচালক পূর্ণিমা ইসলাম, পাইওনিয়ার ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ জেবুন্নেছা ববিন, দৈনিক মর্নিং টাচ সম্পাদক এমজি বিপ্লব চৌধুরী, পাবনা রিপোর্টাস ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক কাজী মাহবুব মোর্শেদ বাবলু,

সাংবাদিক কামাল সিদ্দীকী, এশিয়ান টিভির স্টাফ রিপোর্টার শফিক আল কামাল, আনন্দ টিভির জেলা প্রতিনিধি সেলিম মোর্শেদ রানা, সমাজ কর্মী আসাদ বাবু, সাংবাদিক মামুন হোসেন, সাংবাদিক রবিউল ইসলাম রবি, সাংবাদিক সাঈদ উল ইসলাম, সাংবাদিক খালেদ মাহমুদ, সাংবাদিক ও মানবাধীকার কর্মী করুনা নাসরিন, আসিয়াব পরিচালক আব্দুস সামাদ, অবসরপ্রাপ্ত সরকারী কর্মকর্তা শফিউদ্দিন, আইএনএস‘র প্রধান সম্পাদক হাসান আলী, লেখিকা ও কালচারাল সোসাইটির প্রেসিডিয়াম সদস্য বেগম ফিরোজা খান, কবি মোহসিন আলী, পাঠশালার সাধারণ সম্পাদক শিশির ইসলাম, লানার্স অর্গানাইজেশনের নিবার্হী পরিচালক জাহানারা বেগম বিজলী, উদ্দীপনা নিবার্হী পরিচালক আলেয়া ইয়াসমিন, কারীগরী মহিলা সংস্থার নির্বাহী পরিচালক মনোয়ারা পারভীন, জীবনবীমা কর্পোরেশনের ডিও আজিজা পারভীন, কবি মমতাজ রোজ কলি, সূচীতার প্রতিনিধি জেসমিন, শিউলি মহিলা উন্নয়ন সংস্থার নিবার্হী পরিচালক রুবাইয়া, বাঁচতে চাই‘র প্রতিনিধি লুৎফর রহমান, শিক্ষার্থী সাহনিমা হাসান প্রমুখ।