পাবনার তূর্য ‘সেরা বাংলাবিদ’ পুরস্কারে ভূষিত

বার্তাকক্ষ : ‘সেরা বাংলাবিদ’ হয়েছেন ঢাকার নুসরাত সায়েম। পুরস্কার হিসেবে তিনি পেয়েছেন ১০ লাখ টাকার মেধাবৃত্তি।

দ্বিতীয় হয়েছেন সিরাজুল আরেফিন (খুলনা), যৌথভাবে তৃতীয় হয়েছেন লক্ষ্মীপুরের রাইসা সালসাবিল ও পাবনার সোয়েব আনিয়াদ খান তূর্য।

পুরস্কার হিসেবে তাঁরা পেয়েছেন যথাক্রমে তিন লাখ টাকা ও দুই লাখ টাকার মেধাবৃত্তি। এক থেকে দশম স্থান অধিকারী প্রত্যেকে পেয়েছেন ৫০ হাজার টাকার সমমূল্যের একটি করে ল্যাপটপ এবং ব্যক্তিগত লাইব্রেরি গড়ে তোলার জন্য বাংলা বই ও বই রাখার আলমারি।

‘ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ’ প্রতিযোগিতার মহোৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে ১৫ সেপ্টেম্বর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে। ৩৫ হাজার প্রতিযোগীর মধ্য থেকে সর্বশেষ টিকে থাকা ছয়জন প্রতিযোগীকে নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় এই মহোৎসব অনুষ্ঠান।

গতকাল শুক্রবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হয় বাংলা ভাষা নিয়ে ‘ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ’ আয়োজনের মহোৎসব।

বাংলা ভাষার শুদ্ধ উচ্চারণ, বানান ও ব্যাকরণের সঠিক ব্যবহার ছড়িয়ে দিতে বাংলা ভাষাবিষয়ক মেধাভিত্তিক টিভি রিয়েলিটি শো যৌথভাবে এই আয়োজন করেছে ইস্পাহানি মির্জাপুর ও চ্যানেল আই।

আয়োজকদের সঙ্গে ‘ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ’ প্রতিযোগিতার বিজয়ীরা
বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজ সাগর, ‘ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ’ মহোৎসবের অতিথি বিচারক এবং চ্যানেল আইয়ের পরিচালক ও বার্তাপ্রধান শাইখ সিরাজ, এম এম ইস্পাহানি লিমিটেডের উপদেষ্টা জাহিদা ইস্পাহানি, ইস্পাহানি ফুড লিমিটেডের পরিচালক আলী ইস্পাহানি, প্রতিযোগিতার দুই বিচারক ড. সৌমিত্র শেখর ও সুবর্ণা মুস্তাফা।

অনুষ্ঠানে আবৃত্তি করেন আসাদুজ্জামান নূর। গান গেয়েছেন সাবিনা ইয়াসমীন ও রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা। একদল নৃত্যশিল্পীর অংশগ্রহণে আবৃত্তি করেছেন মাহিদুল ইসলাম।

৩৫ হাজার প্রতিযোগীর মধ্য থেকে সর্বশেষ টিকে থাকা ছয়জন প্রতিযোগীকে নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় এই মহোৎসব অনুষ্ঠান। ‘ইস্পাহানি মির্জাপুর বাংলাবিদ’ মহোৎসব অনুষ্ঠানটি চ্যানেল আইয়ে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়। উপস্থাপনা করেছেন খায়রুল বাশার, অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেছেন তাহের শিপন।