পাবনায় অন্তঃসত্বা গৃহবধূকে হত্যা, আটক- ২

পাবনা প্রতিনিধি : পাবনায় যৌতুকের দাবিতে অন্তঃসত্বা এক গৃহবধূকে নির্যাতনের পর হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় গৃহবধূর স্বামী ও শাশুড়িকে আটক করা হলেও পরিবারের অন্য সদস্যরা পালিয়ে গেছেন। সোমবার ভোরে এই ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায়, আট বছর আগে পাবনার আটঘরিয়া পৌর এলাকার ধলেশ্বর গ্রামের আমিন উদ্দিনের মেয়ে আমেনা খাতুনের সঙ্গে বিয়ে হয় পাশের চক ধলেশ্বর গ্রামের হায়দার আলীর ছেলের আজিম উদ্দিনের।

তাদের সংসারে ৬ বছরের একটি শিশুকন্যা আছে। বর্তমানে আমেনা ৮ মাসের অন্তঃসত্বা ছিলেন আমেনা।

স্বজনদের অভিযোগ, বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের দাবিতে আমেনাকে নির্যাতন করে আসছিল তার স্বামী। গত বছরও বিষয়টি নিয়ে পৌরসভায় সালিশি বৈঠকের মাধ্যমে সুরহা হয়।

তারপরও প্রায়ই স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কলহ চলে আসছিল। সোমবার ভোরে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়ার এক পর্যায়ে আমেনাকে স্বামী ও শাশুড়ি মিলে মারধর করেন।

এসময় আমেনা খাতুন মারা গেলে বাড়ির পাশের পুকুরে লাশ ফেলে দেওয়া হয়। সোমবার সকালে বাড়ির পাশের ডোবা থেকে আমেনার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায় পুলিশ।

এ ঘটনায় গৃহবধুর স্বামী জাহিদ হোসেন ও শাশুড়ি রাশিদা খাতুনকে আটক করেছে পুলিশ।

আটঘরিয়ার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মর্তা আসিফ মো. সিদ্দিকুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় আমেনার বাবা আমিন উদ্দিন বাদী হয়ে থানায় হত্যামামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ তদন্ত করছে।