পাবনায় গৃহবধূকে উত্যক্তের প্রতিবাদ করায় হামলা, নিহত- ২

পাবনা প্রতিনিধি : পাবনার ভাঙ্গুড়ার উপজেলার খাঁন মরিচ ইউনিয়নের দাসবেলাই গ্রামে এক গৃহবধূকে উত্যক্তের প্রতিবাদ করায় হামলার ঘটনায় দু’জন মৃত্যু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) দুপুরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান ফজলুল হক (৩৫) নামে একজন।

এর আগে বুধবার (১৪ অক্টোবর) রাতে একই হাসপাতালে তোরাপ আলী (৭৫) নামে আরেক জনের মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় ভাঙ্গুড়া থানা পুলিশ এলাকার মাতব্বর আবু জল প্রামাণিকসহ (৫৫) পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে। বৃহস্পতিবার তাদের পাবনা জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

ভাঙ্গুড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মুহম্মদ আনোয়ার হোসেন বলেন, ওই গ্রামের মসজিদের পুকুর লিজ দেওয়াকে কেন্দ্র করে আব্দুল গফুর গং ও আবু জল গংদের মধ্যে পূর্বশত্রুতা চলছিল।

এর জের ধরে প্রতিপক্ষের বখাটে মফিদুল ইসলাম (৩৮) আব্দুল গফুরের পরিবারের এক নারীকে কুপ্রস্তাব দেয়।

এ ঘটনায় তার স্বজনরা প্রতিবাদ করায় তারা হামলার শিকার হন। বুধবার সকালের ঘটনায় রাতে ভাঙ্গুড়া থানায় একটি হত্যা মামলা হয়েছে।

মামলার বাদী রত্না খাতুন বলেন, বখাটে মফিদুল আমাদের পরিবারের এক নারীকে কুপ্রস্তাব দেয় এবং তার কথায় রাজী না হলে এসিড নিক্ষেপেরও হুমকি দেয়।

গ্রামের মুরুব্বি বেল্লাল হাজি এবং আবু জল প্রামাণিক বখাটে মফিদুলের পক্ষ নিয়ে বুধবার ধারালো অস্ত্র নিয়ে আমাদের বাড়িতে হামলা করে।

এতে আমার শ্বশুর গফুর প্রামাণিক, চাচাশ্বশুর তোরাপ আলী, দেবর ফজলুল হকসহ ১৫ জন গুরুতর জখম হন। যাদের মধ্যে দু’জন মারা গেছেন। আরও কয়েকজনের অবস্থা শংকটাপন্ন।