বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২১, ০১:৩৭ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

পাবনায় ছয় দিনে এক উপজেলায় দুই শতাধিক বিয়ে!

পাবনায় ছয় দিনে এক উপজেলায় দুই শতাধিক বিয়ে

image_pdfimage_print

নিউজ ডেস্ক : ঈদের পর পাবনার বেড়া উপজেলায় বিয়ের হিড়িক পড়েছে। ঈদের পর ৩ থেকে ৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ছয় দিনে উপজেলায় অনুষ্ঠিত হয়েছে দুই শতাধিক বিয়ে।

উপজেলার নয়টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার বেশির ভাগ গ্রাম ও মহল্লাতেই এক বা একাধিক বিয়ে হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এই কয়েক দিন নিকাহ রেজিস্ট্রারের (কাজি) তেমন ফুরসত ছিল না।

নিকাহ রেজিস্ট্রার ও সংশ্লিষ্ট পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, আগে থেকেই পাত্র-পাত্রী ঠিক করা ছিল। ঈদের সময় দেশের বিভিন্ন এলাকায় বসবাসকারী লোকজন গ্রামের বাড়িতে আসেন। এ কারণে ঈদের কয়েক দিনের মধ্যে বিয়ের দিন ধার্য করা হয়।

এদিকে বিয়ের হিড়িক পড়ায় ভাড়ায় চালিত মাইক্রোবাস, কারসহ যানবাহনের সংকট দেখা দেয়। অতিরিক্ত টাকায়ও যানবাহন পাওয়া যাচ্ছিল না। ফলে একই পরিবহন দিয়ে এক দিনে একাধিক বিয়েবাড়িতে যাতায়াতের ব্যবস্থা করা হয়েছে। অপর দিকে ডেকোরেটরের মালিকেরাও ব্যস্ত সময় কাটিয়েছেন। অতিরিক্ত টাকা দিয়েও অনেকে ডেকোরেটরসামগ্রী ভাড়ায় পাননি।

বেড়া বাজারের গৌরব ডেকোরেটরের মালিক পানু মিয়া বলেন, ‘ঈদের পর এবার বিয়ের খুব চাপ। আমাগরে চেয়ার-টেবিল, থালা-বাসন ১৫ দিন আগেই বায়না হয়া গেছে। আগামী তিন-চার দিনের মধ্যে ডেকোরেটরসামগ্রী ভাড়া দেওয়ার আর কোনো ব্যবস্থা নাই।’

বেড়া পৌর এলাকার শেখপাড়া মহল্লার রেখা খাতুন মঙ্গলবার বলেন, তাঁর ছেলে ঢাকায় একটি প্রতিষ্ঠানে মাইক্রোবাসের চালক হিসেবে কাজ করেন। মাসখানেক আগেই ছেলের বিয়ে ঠিক করে রেখেছিলেন। ঈদে অন্যান্য আত্মীয়ের সঙ্গে ছেলেরও বাড়িতে আসার সুযোগ হওয়ায় সবাইকে একসঙ্গে পেয়ে বিয়ের আয়োজন করা হয়েছে।

বেড়া পৌর এলাকার ১, ২ ও ৩ নম্বর ওয়ার্ডের নিকাহ রেজিস্ট্রার ও উপজেলা নিকাহ রেজিস্ট্রার সমিতির সভাপতি আবদুস সালাম বলেন, ঈদের পরদিন থেকে উপজেলায় বিয়ে শুরু হয়েছে। উপজেলার কয়েকজন নিকাহ রেজিস্ট্রারের সঙ্গে কথা বলে তিনি জানতে পেরেছেন, ঈদের পর ৩ থেকে ৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত উপজেলায় দুই শতাধিক বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে।

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
x
error: Content is protected !!