ঢাকারবিবার , ৩ এপ্রিল ২০২২

পাবনায় নির্মাণাধীন সড়কে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার ও অনিয়মের অভিযোগ

News Pabna
এপ্রিল ৩, ২০২২ ৯:৩১ অপরাহ্ণ
Link Copied!

 

পাবনা প্রতিনিদি : পাবনার সাঁথিয়ায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের অধীনে কোটি টাকা ব্যয়ে এইচবিবি প্রকল্পের আওতায় এক কিলোমিটার সড়ক এইচবিবিকরণ নির্মাণ কাজের ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে।

অনিয়মের কারণে এলাকাবাসী বেশ কয়েকবার কাজে বাধা দেন। কিন্তু কোনরুপ তোয়াক্কা না করেই নিম্নমানের সামগ্রী ও নামকাওয়াস্তে বালি দিয়ে কাজ করে চলেছেন ঠিকাদার। স্থানীয়রা বলছেন, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সঠিক নজরদারী না থাকায় এমনটি অনিয়ম করে যাচ্ছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ।

সাঁথিয়া প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস সুত্রে জানা গেছে, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের অধীনে এইচবিবি প্রকল্পের আওতায় ৯৯ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ধোপাদহ ইউনিয়নের খান মাহমুদপুর হতে দৌলতপুর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যানের বাড়ি পর্যন্ত এক কিঃ মিঃ সড়ক নির্মাণ কাজের দায়িত্ব পান ঠিকারদারী প্রতিষ্ঠান।

কাজের শুরুতেই ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান নিম্নমানের ইট ব্যবহার, বালি ৬ ইঞ্চি দেয়ার নিয়ম থাকলেও সেখানে দেয়া হচ্ছে ২ থেকে তিন ইঞ্চি। এসব বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ তুলে কাজ বন্ধ করে দেন এলাকাবাসী।

পরে উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান সোহেল রানা খোকন ও প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার আবদুল্লাহ আল জাবিরের মধ্যেস্থতায় সিডিউল মেনে কাজ করার প্রত্যয় নিয়ে আবার কাজ শুরু করেন ঠিকাদার। কিন্তু কে শোনে কার কথা। যে ইট এলাকাবাসী বাধায় তুলে ফেলা হলো সেই ইট ফেরৎ না পাঠিয়ে ওই সড়কেই পুণরায় ব্যবহার করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন এলাকাবাসী।

ওই সড়কে দেখা যায়, রাস্তাটির প্রায় অর্ধেক কাজ সম্পন্ন হলেও রাস্তার বেশীর ভাগই নিম্নমানের মেটে ইট ব্যবহার করা হয়েছে। সেখানে ৬ ইঞ্চি বালি ধরা থাকলেও ব্যবহার করা হচ্ছে ২ থেকে ৩ইঞ্চি বালি। এ সময় ওই এলাকার সাবেক মেম্বর আব্দুল ওয়াদুদ ঠান্টু অভিযোগ বলেন, নিম্নমানের ইট ও বালি কম দেয়ায় এলাকাবাসী কাজে বাধা দেয়।

পরে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার এসে নিম্নমানের ইট ফেরৎ নিতে বললেও তা তারা ফেরত নেননি। এ সময় তিনি নিজেই রাস্তা খুদাই করে সাংবাদিককে দেখিয়ে বলেন ৬ইঞ্চি বালির জায়গায় দেয়া হয়েছে ২/৩ ইঞ্চি। এ দিকে ফেরৎ নেয়া ইটের বিষয়ে ওই সাইটের শ্রমিক সর্দারকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, এখান থেকে কোন ইট ফেরৎ নেয়া হয়নি। সব ব্যবহার করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, ভাটায় থেকে ২/১ মন্দ ইট আসে।

উপজেলা প্রকল্পবাস্তবায়ন অফিসের দায়িত্বরত প্রকৌশলী আবু সাইদ জানান, সড়ক নির্মাণে কোনরুপ অনিয়ম মেনে নেয়া হবে না। আমি মাত্র কয়েকদিন ছিলাম না। তিনি বলেন নিম্নমানের ইট আনতে তাদের নিষেধ করে দেয়া হয়েছে। ২/১ টা যা আসছে তা ভাটা থেকে। তবে তাকে বালি ৬ ইঞ্চির পরিবর্তে ২/৩ ইঞ্চি দেয়ার বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি কোন উত্তর দিতে পারেননি।