মঙ্গলবার, ০৭ জুলাই ২০২০, ০৪:০৯ অপরাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

পাবনায় পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে জাল সনদের কথা স্বীকার করেছে ভুয়া ডাক্তার মাসুদ

বার্তা সংস্থা পিপ, পাবনা : অন্য ব্যক্তির সনদ ও বিএমডিসির নিবন্ধন নম্বর ব্যবহার করে পাবনার ভাঙ্গুড়ায় ৭ বছর ধরে চিকিৎসা দেয়া ভুয়া চিকিৎসক মাসুদ রানা ওরফে মাসুদ করিমকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার তাকে আটকের পর আজ মঙ্গলবার (১২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে পাবনা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলাম।

পুলিশ সুপার জানান, আটককৃত ভুয়া চিকিৎসকের আসল নাম মাসুদ রানা। সে নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার হাতিখানা পাড়া গ্রামের আব্দুল হান্নানের ছেলে।

সৈয়দপুর পুলিশের সহায়তায় তাকে আটক করে পাবনার পুলিশ। আটকের পর তাকে সৈয়দপুর থেকে পাবনায় নিয়ে আসা হয়।

পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মাসুদ স্বীকার করেছে সে ভুয়া চিকিৎসক।

ডা. মাসুদ করিমের নামসহ কাগজপত্র জাল করে চিকিৎসার নামে প্রতারণা করে আসছিলো এই ভুয়া মাসুদ করিম। এ ঘটনায় ভাঙ্গুড়া থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। এ ঘটনার সাথে আর কেউ জড়িত আছে কিনা তা তদন্ত করে দেখছে পুলিশ।

আটক ভুয়া চিকিৎসক মাসুদ রানা দীর্ঘ ৭ বছর ধরে পাবনার ভাঙ্গুড়া হেলথ কেয়ার নামের একটি ক্লিনিকে লক্ষাধিক টাকা বেতনে কর্মরত থেকে চিকিৎসাসেবা দিয়ে আসছিলেন।

তিনি বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন বিএমএর পাবনা শাখার আজীবন সদস্যও ছিলেন।

ঢাকার ডা. মাসুদ করিমের নাম, বিএমডিসির নিবন্ধন নম্বর ও সনদ ব্যবহার করে চিকিৎসার নামে প্রতারণা করে আসছিলেন মাসুদ রানা।

বন্ধু চিকিৎসকের মাধ্যমে ভুয়া চিকিৎসকের বিষয়টি জানতে পেরে পাবনায় আসেন প্রকৃত চিকিৎসক ডা. মাসুদ করিম।

আর তার আগেই ফেসবুকের মাধ্যমে বিষয়টি জানাজানি হলে পালিয়ে যান ভুয়া চিকিৎসক মাসুদ রানা।

error20
fb-share-icon0
Tweet 10
fb-share-icon20


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Wordpress Social Share Plugin powered by Ultimatelysocial
error: Content is protected !!