সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ০৫:১৯ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

পাবনায় বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের মানববন্ধন

image_pdfimage_print

মানব-300x239শহর প্রতিনিধি: সাম্প্রতিক সময়ে দেশব্যাপী জঙ্গি ও সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ পাবনা জেলা শাখা গতকাল মঙ্গলবার পাবনা শহরের মুক্তমঞ্চের সামনে এক মানববন্ধন কর্মসূচীর পালন করে।

জঙ্গি ও সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মহিলা পরিষদের নেতৃত্বে উক্ত মানববন্ধন কর্মসূচীতে অংশগ্রহন করেন, জাতীয় মহিলা সংস্থা, বাঁচতে চাই, পাবনা প্রত্রিশ্র“তি, মানবাধিকার নারী সমাজ, মানবাধিকার সংরক্ষন পরিষদ,বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামীলীগ, শুচিতা সমাজ উন্নয়ন সংস্থা, ঝলক মহিলা সংস্থা, আঙ্গিনা মহিলা সমিতি,নির্ঝর মহিলা সংস্থা, সংস্করন মহিলা সমিতি,শ্রাবনী মহিলা সমিতি, সঞ্চয় মহিলা সমিতি, পড়শী, পাবনা, এফপিএবি, উদ্দীপনা, টাউন গার্লস হাইস্কুলের ছাত্রী ও শিক্ষকসহ অন্যান্য সমমনা সংগঠন, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি ও মহিলা পরিষদের জেলা, থানা ও পাড়া কমিটির নেত্রীবৃন্দ অংশগ্রহন করেন।

মানববন্ধন কর্মসূচীতে বক্তা গন বলেন, জাতি, ধর্ম, বর্ণ, গোত্র, নির্বিশেষে সকল মানুষের মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহনের মধ্যে দিয়ে প্রাপ্ত আমাদের এই দেশ। আমাদের সংবিধানে সকল নাগরিকের সমান অধিকার নিশ্চিত করা আছে। বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দীর্ঘ সময় ধরে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বাংলাদেশে অসাম্প্রদায়িক, গণতান্ত্রিক, সমতা ভিত্তিক সমাজ, রাষ্ট্র ও সংস্কৃতি প্রতিষ্ঠার জন্য বহুমূখী ধারাবাহিক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদসহ দেশেরে বিভিন্ন সচেতন প্রগতিশীল নাগরিক সমাজ, বিভিন্ন নারী, মানবাধিকার ও উন্নয়ন সংগঠন সমূহের ধারাবাহিক প্রচেষ্টা সত্ত্বেও আবহমান বাংলায় ধারণ করা সংস্কৃতি এই বহুত্বকে ধর্ম, বর্ণ, গোত্রভিত্তিক বিভেদ চেতনা ও আঞ্চলিকতার গোঁড়ামি দিয়ে আমাদের জাতীয় বিকাশে ফাটল ধরানোর এক অপচেষ্টা আমরা লক্ষ্য করছি। এর ফলশ্রুতিতে দেশে বর্তমানে সন্ত্রাসবাদ, জঙ্গিবাদের অপতৎপরতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে।

সাম্প্রতিক সময়ে আমরা লক্ষ্য করছি যে, দেশের বিভিন্ন স্থানে ধারাবাহিক ভাবে মন্দিরের পুরোহিত,সেবায়েত, মঠের অধ্যক্ষ, খ্রিষ্টান ধর্মাবলম্বী ব্যক্তি, বিদেশী নাগরিক, বৌদ্ধ ভিক্ষুক, দেশের মুক্ত মনা, প্রগতিশীল ব্যাক্তিদের একই কায়দায় হত্যা করা হচ্ছে। গত ১ জুলাই গুলশান আর্টিজান রেস্টুরেন্ট ও ৭ জুলাই শোলাকিয়ায় ঈদের জামায়েতে ভয়াবহ জঙ্গি হামলার ঘটনা বাংলাদেশের গনতন্ত্র ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার ওপর হুমকী স্বরুপ। উগ্র ধর্মীয় চেতনার বিস্তারের ফলে আমাদের তরুণ সমাজ আজ বিভ্রান্ত।

রাজনীতিতে ক্রমাগত ধর্মের ব্যবহারের ফলে বর্তমানে জঙ্গি সন্ত্রাসের কারণে রাষ্ট্রের সাধারন মানুষের শান্তি ও নিরাপত্তা আজ হুমকীর সম্মূখীন। এর কারণ যে শুধু উগ্র ধর্মীয়বাদ তা নয়, এর সাথে অর্থনৈতিক ও সামাজিক অনেক কারন জড়িত আছে।

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!