শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ০৮:২৬ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

পাবনায় মনোনয়ন প্রত্যাশীর ঘরে আগুন: ৮ দিনেও গ্রেপ্তার নেই

image_pdfimage_print

পাবনায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের এক মনোনয়ন প্রত্যাশী ও তার সমর্থকদের বাড়িঘরে আগুন দেওয়ার ঘটনায় হামলাকারীদের গ্রেপ্তারে পুলিশ ‘গড়িমসি’ করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত ১৮ মার্চ সদর উপজেলার ভাড়ারা গ্রামের সুলতান মাহমুদ খানের বাড়িসহ তার সমর্থকদের বাড়িঘরে আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা।

সুলতান মাহমুদ  বলেন, “বর্তমান চেয়ারম্যান আবু সাঈদের দুর্নীতি, স্বেচ্ছাচারিতা ও সন্ত্রাসী কার্যকলাপে অতিষ্ঠ হয়ে এলাকার মানুষ আওয়ামী লীগ প্রার্থী হিসেবে আমাকে নির্বাচন করার জন্যে অনুরোধ করলে আমি সম্মত হই।

“এ কারণে ১৮ মার্চ সকালে সাঈদের লোকজন ভাড়ারা ইউনিয়নের কয়েকটি গ্রামের অন্তত ১৬টি বাড়িতে আগুন দেয়, চারটি মোটরসাইকেল ভাংচুর করে এবং দুটি দোকান লুট করে।”

সুলতানের অভিযোগ, “ঘটনার পরদিন ক্ষতিগ্রস্ত আট পরিবারের পক্ষে আটটি মামলার আবেদন করলেও মাত্র তিনটি মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করা হয়। পাঁচটি এখনও মামলা হিসেবে নথিভুক্ত হরা হয়নি।”

আসামিরা ঘুরে বেড়াচ্ছে কিন্তু পুলিশ কাউকে গ্রেপ্তার করছে না বলেও তিনি অভিযোগ করেন।

“এছাড়া সাঈদের সন্ত্রাসী বাহিনী আমাকে বিভিন্নভাবে হুমকি-ধমকি দিয়ে আসছে।”

তিনটি মামলার একটির বাদী সুলতান মাহমুদ খান নিজে। বাকি দুটি মামলা করেছেন শুকুর খানের স্ত্রী জাহানার খাতুন ও রহমানের ছেলে ইয়াসিন আলী শেখ, সুলতান জানান।

সবকটি মামলায় বর্তমান চেয়ারম্যান আবু সাইদ খান, তার ভাই আলতাফ খান ও রফিক খানসহ ১৪ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা আরও ১৫-২০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

তবে যথাযথ আইনি ব্যবস্থা না নেওয়ার অভিযোগ অস্বীকার করে ওসি আবদুল্লাহ আল হাসান বলেন, “আমরা আমাদের মতো করে চেষ্টা চালাচ্ছি। আসামিদের পাওয়া যাচ্ছে না।”

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!