শনিবার, ১৬ জানুয়ারী ২০২১, ১০:৫১ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

পাবনায় মেধাবী শিক্ষার্থী মিশু হত্যার ১ বছর- গ্রেপ্তার হয়নি প্রধান আসামী

মিশকাত মিশু

image_pdfimage_print

বিশেষ প্রতিবেদক : পাবনা সরকারি এডওয়ার্ড কলেজের রসায়ন বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের মেধাবী ছাত্র এসএম মিশকাত আহমেদ মিশু হত্যার ১ বছর পূর্ণ হলো।

গত বছরের ৭ নভেম্বর গভীররাতে সে না ফেরার দেশে চলে যায়। এদিন সন্ধ্যায় মোবাইল ফোনে ডেকে নিয়ে পাবনা সরকারি এডওয়ার্ড কলেজ মাঠে দূর্বৃত্তরা উপুর্যপরী ছুরিকাঘাত করে নির্মমভাবে হত্যা করে মিশুকে।

মিশু পাবনা কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সৈয়দ গোলাম মোস্তফার ছেলে।

পরিবারের অভিযোগ, মিশুকে হত্যা করা হয়েছে পূর্বপরিকল্পিতভাবে। প্রথমে মিশু হত্যা মামলাটি পাবনা সদর থানা পুলিশ তদন্ত করে চার্জশীট দাখিল করে। কিন্তু পরিবারের পক্ষ থেকে আদালতে জমা দেয়া চার্জশীটের উপর নারাজি পিটিশন দায়ের করা হয়।

পরে আদালত অধিকতর তদন্ত ও প্রয়োজনীয় আইনগত পদক্ষেপ গ্রহণে মামলাটি পিবিআই’র উপর ন্যাস্ত করে। মিশু হত্যার এক বছর পেরিয়ে গেলেও ধরা ছোঁয়ার বাইরে রয়েছে এই হত্যা মামলার প্রধান আসামী মাহমুদুল হাসান সোহাগ।

চার্জশীটের আসামীরা হলেন; মাহমুদুল হাসান সোহাগ (২২), ইয়াছিন আলী রাহাত (১৬), সাদ্দাম হোসেন (২৭), আশরাফুল আলম ওরফে শৈবাল (১৭), হৃদয় আহম্মেদ (২৫)।

নিহত মিশু’র বাবা সৈয়দ গোলাম মোস্তফা জানান, অজ্ঞাতদের আসামী করে পাবনা সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়।
পুলিশ তদন্ত করে ৬ জনকে এই হত্যার সাথে সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ পায়। এই মামলার অন্যতম আসামী ইয়াছিন আলী রাহাতকে ঢাকা থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

আদালতের ম্যাজিষ্ট্রেটের নিকট ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেয় রাহাত। তার দেয়া স্বীকারোক্তিতে এই হত্যাকান্ডের সাথে ক্ষমতাসীন দলের ছাত্র সংগঠনের এক প্রভাবশালী নেতা এবং তার সহযোগী সংশ্লিষ্ট ছিল।

তিনি অভিযোগ করেন, পুলিশ অজ্ঞাত কারণে নানা তদন্ত ও গ্রেপ্তার হওয়া রাহাতের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি মোতাবেক তদন্ত প্রতিবেদন না করে আদালতে দাখিলকৃত চার্জশীট থেকে ক্ষমতাসীন দলের ছাত্র সংগঠনের এক প্রভাবশালী নেতা ও তার সহযোগীর নাম বাদ দিয়ে দেয়।

তিনি বলেন, দাখিলকৃত ওই চার্জশীটে আমি নারাজি পিটিশন দায়ের করি। আদালত চার্জশীট দাখিলের এক মাস পর মামলাটি অধিকতর তদন্তের স্বার্থে পাবনাস্থ পুলিশ ব্যুরো অফ ইভেস্টিগেশন (পিবিআই) এর উপর ন্যাস্ত করেছে।

নিহত মিশকাতের মা লুৎফা শিরিন লুনা আবেগআপ্লুত হয়ে বলেন, মিশু আর ফিরবে না। তবে আমার মিশুকে যারা মেরেছে। সেই সব খুনীদের গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হোক এটাই আমার চাওয়া। প্রকৃত আসামীদের যেন মামলা থেকে বাদ দেয়া না হয়। পুলিশ প্রশাসনের কাছে এটা আমার জোরদাবী।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পাবনাস্থ পিবিআই কার্যালয়ের উপপরিদর্শক (এসআই) সবুজ বলেন, মামলার অগ্রগতি যথেষ্ট সন্তোষজনক।

সমস্ত টেকনিক্যাল বিষয়গুলো এবং পূর্ববর্তি তদন্ত প্রতিবেদন, জবানবন্দি সকল বিষয়গুলোকে গুরুত্ব দিয়েই এই মামলার তদন্ত কার্যক্রম চলছে।

খুব দ্রুত সময়ের মধ্যেই এই হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদের সনাক্ত করে চূড়ান্ত প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করা হবে।

এসআই সবুজ বলেন, মামলার অন্যতম এক আসামী পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

এই হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত ব্যক্তি যত বড় ক্ষমতাধরই হোক তাকে আইনের আওতায় এনে উপযুক্ত শাস্তি নিশ্চিত করা হবে এমন দাবী করেন পিবিআই এর ওই কর্মকর্তা।

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!