সোমবার, ১০ মে ২০২১, ০২:১৪ পূর্বাহ্ন

করোনার সবশেষ
করোনা ভাইরাসে বাংলাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু বরণ করেছেন ৫৬ জন, শনাক্ত হয়েছেন ১ হাজার ৩৮৬ জন। আসুন আমরা সবাই আরও সাবধান হই, মাস্ক পরিধান করি। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখি।  

পাবনায় শত বছরের পুরোনো ভবনে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ

file (1)বার্তা সংস্থা পিপ: জীবনের ঝুঁকি নিয়ে শত বছরের পুরোনো ভবনে কাজ করছেন পাবনা জেলা রেজিস্ট্রার অফিস ও সদর সাব রেজিস্ট্রি কার্যালয়ের দুই শতাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারী।

ওই ভবনে রয়েছে পাবনা ও সিরাজগঞ্জ জেলার জমিজমা সংক্রান্ত অনেক গুরুত্বপূর্ণ রেকর্ড ও দলিলপত্র। যেকোনো সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলের মতো ট্যাজেডি ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

গত ২৪ আগস্ট জেলা রেজিস্ট্রার মণীন্দ্র নাথ বর্মণ এজলাসে বসে কাজ করার সময় বিশাল আকারের পলেস্তারা খসে তাঁর সামনে পড়ে। এতে অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পান তিনি। ভয়ে তিনি এখন আর এজলাসে বসেন না। রোববার গিয়ে দেখা যায়, তিনি তাঁর খাস কামরায় বসে দাপ্তরিক কাজ করছেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ১৯০৫ সালে পাবনার জেলা রেজিস্ট্রার ও সদর সাব রেজিস্ট্রার কার্যালয় তৈরি করা হয়। এই ভবনে রয়েছে বৃহত্তর পাবনা জেলার ১৮টি উপজেলার জমির দলিলপত্র, জমির পরচাসহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র। ২০১২ সালের ১৯ এপ্রিল ভূমিকম্পের পর ভবনটি ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করে গণপূর্ত বিভাগ।

তারপর থেকে জেলা রেজিস্ট্রার গণপূর্ত বিভাগ ও কেন্দ্রীয় নিবন্ধন মহাপরিদর্শক কার্যালয়ে নতুন ভবন তৈরির জন্য চিঠি চালাচালি শুরু করেন। ২০১৪ সালে জেলা রেজিস্ট্রার ও সাব রেজিস্ট্রার অফিস নির্মাণের দ্বিতীয় পর্যায়ে প্রকল্প তালিকায় পাবনার জেলা রেজিস্ট্রার ও সদর সাব রেজিস্ট্রার অফিস ভবন নির্মাণের জন্য অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ৪ নম্বর সিরিয়ালে রাখা হয়। কিন্তু অদৃশ্য কারণে ভবনটি নির্মাণ না হওয়ায় আতঙ্ক ও হতাশার মধ্যে দিন কাটাচ্ছে জেলা রেজিস্ট্রার ও সদর সাব রেজিস্ট্রার কার্যালয়ের লোকজন।

পাবনা সদর সাব রেজিস্ট্রার মো. ইব্রাহিম আলী বলেন, এই ভবনটি নির্মাণ খুবই জরুরি হয়ে পড়েছে। যেকোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। এখানে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে নকলনবিসসহ পাবনা জেলা রেজিস্ট্রার অফিস ও সদর সাব রেজিস্ট্রি অফিসের দুই শতাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারী কাজ করেন।

পাবনা জেলা রেজিস্ট্রার মণীন্দ্র নাথ বর্মণ বলেন, এই ভবন শত বছরের প্রাচীন। তা ছাড়া জেলা প্রশাসন ও গণপূর্ত বিভাগ ভবনটিকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করেছে।

এ ব্যাপারে গণপূর্ত বিভাগ পাবনার নির্বাহী প্রকৌশলী মো. খালেকুজ্জামান চৌধুরী বলেন, পাবনা জেলা রেজিস্ট্রার অফিস ও সদর সাব রেজিস্ট্রি অফিস ভবন নির্মাণের জন্য প্রায় দুই কোটি টাকার একটি প্রাক্কলন করে মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। বরাদ্দ পেলে দরপত্র আহ্বান করে কাজ শুরু করা সম্ভব হবে।

0
1
fb-share-icon1


শৈশব কৈশরের দুরন্ত-দুষ্টু ছেলেটিই আজকের এমপি প্রিন্স

শৈশব কৈশরের দুরন্ত-দুষ্টু ছেলেটিই আজকের এমপি প্রিন্স

শৈশব কৈশরের দুরন্ত-দুষ্টু ছেলেটিই আজকের প্রিন্স অফ পাবনা

Posted by News Pabna on Thursday, February 18, 2021

© All rights reserved 2021 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
x
error: Content is protected !!