শনিবার, ২৮ মার্চ ২০২০, ০৬:০৪ অপরাহ্ন

পাবনায় সাদা রঙের বিরল সাপ উদ্ধার

পাবনা প্রতিনিধি : সাপ সাধারণত বিভিন্ন রঙের হয়। সবুজ, হলুদ, খয়েরি বা কালো কিন্তু সাদা রঙের সাপের দেখা মেলে না। তবে এবার সাদা রঙের একটি সাপের দেখা মিলেছে। সাপটি ধরা পড়েছে পাবনায়।

যা দেশের প্রথম কোনো সাদা সাপ। সম্প্রতি সাপটিকে পাবনা জেলার আতাইকুলা থানার মধুপুর থেকে উদ্ধার করেছে নেচার অ্যান্ড ওয়াইল্ড লাইফ কনজারভেশন কমিউনিটি নামে একটি সংগঠন।

উদ্ধারের পর বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন- এটি বাংলাদেশে পাওয়া প্রথম কোনো সাদা সাপ। সাপটি বর্তমানে কিছুটা আহত অবস্থায় বন বিভাগের কাছে আছে। সুস্থ হলেই অবমুক্ত করা হবে।

সাপটি উদ্ধারের বিষয়ে নেচার অ্যান্ড ওয়াইল্ড লাইফ কনজারভেশন কমিউনিটির প্রতিষ্ঠাতা এহসান আলী বিশ্বাস জানান, আশপাশে যেখানেই কোনো বন্যপ্রাণী ধরা পড়ে খবর পেলেই ছুটে যায় নেচার অ্যান্ড ওয়াইল্ড লাইফ কনজারভেশন কমিউনিটি নামে পাবনার এই সংগঠনের সদস্যরা।

পরে এই প্রাণীগুলোকে সুস্থ অবস্থায় বিভিন্ন বনে অবমুক্ত করা হয় । অর্থাৎ প্রাণ-প্রকৃতির সেবাই তাদের কাজ।

গত বুধবার (২৫ ডিসেম্বর) দুপুরে একটি কল আসে তার মোবাইল ফোনে। তিনি জানতে পারেন পাবনা সদর উপজেলার আতাইকুলা ইউনিয়নের মধুপুরে একটি সাপ আটক করা হয়েছে। স্থানীয়রা সাপটিকে মেরে ফেলতে চাইলেও সেলিম নামে এক প্রাণীপ্রেমী সাপটিকে আগলে রাখেন।

খবর পেয়ে সেখানে ছুটে যান এহসান আলী বিশ্বাস। সেখানে গিয়ে তিনি সাপটিকে দেখে উচ্ছ্বসিত হন। কারণ তিনি দেখেন সাপের রঙ সাদা। যা তিনি এর আগে কখনো দেখেননি। তবে সাপটির গায়ে কিছুটা আঘাত রয়েছে।

সাদা রঙের সাপটি স্থানীয় বাসিন্দা সেলিমের জালে ধরা পড়ে। সেলিম তার বাড়ির পাশের জলাশয়ে মাছ ধরতে জাল ফেলেন আর সে জালে ধরা পরে সাপটি।

সাপটিকে দেখতে উৎসুক মানুষ ভিড় করে আর তাদের মধ্যে কেউ কেউ মারতে চায় যার কারণে সাপটির গায়ে কিছু আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

নেচার অ্যান্ড ওয়াইল্ড লাইফ কনজারভেশন কমিউনিটি সাপটি উদ্ধার করে নিয়ে আসে এবং পরিচয় নিশ্চিতের জন্য সাপটির ছবি তুলে পাঠিয়ে দেয় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণীবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক বণ্যপ্রাণী বিশেষজ্ঞ মনিরুল এইচ খানের কাছে ।

এর মধ্যে সাপটিকে বুধবার সন্ধ্যায় স্থানীয় বন বিভাগের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক মনিরুল এইচ খান জানান, এই সাপটি আসলে আলাদা কোনো জাত বা প্রজাতির সাপ নয় এটি একটি নির্বিষ ‘জলঢোড়া’ সাপ।

মানুষের যেমন শ্বেত রোগ হয়ে চামড়া সাদা হয়ে যায় এই সাপটির বেলায় তাই হয়েছে। তার চামড়ায় রঞ্জক পদার্থের অভাব থাকায় চামড়া সাদা হয়েছে। ইংরেজিতে বলা হয় অ্যালবিনো । অ্যালবিনোর কারণে যেকোনো প্রাণীর গায়ের রঙ সাদা হতে পারে।

তবে বাংলাদেশে অ্যালবিনো অন্য প্রাণী পাওয়া গেলেও সাপের বেলায় আমার জানা মতে এটাই প্রথম। অ্যালবিনো প্রাণীর দেখা পাওয়া খুব বিরল।

পাবনা থেকে উদ্ধার হওয়া সাদা সাপটি জলঢোরা। স্বাভাবিকভাবে যার গায়ের রঙ হলুদ আর কালো। অ্যালবিনো হওয়ার কারণে তার চামড়া সাদা হয়ে গেছে। এটি একটি নির্বিষ সাপ। তার ইংরেজি নাম Checkererd Keelback, বৈজ্ঞানিক নাম Fowlea piscator।

তিনি আরও জানান, অ্যালবিনো সাপ পাওয়া যেমন বিরল তেমনি প্রকৃতিতে এদের টিকে থাকাও কষ্টকর। কারণ গায়ের রঙ সাদা হওয়ার কারণে ইগলসহ যেকোনো শিকারির চোখে এরা সহজেই ধরা পড়ে।


ওয়ার্ডপ্রেস থিম দিয়ে নিজেই ওয়েবসাইট তৈরি করুন

© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!