রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ১০:২৫ অপরাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

পাবনায় সিন্ডিকেটের হাতে ডিমের বাজার; ধ্বংসের মুখে পোল্ট্রি শিল্প

পাবনায় সিন্ডিকেটের হাতে ডিমের পাইকারি বাজার; ধ্বংসের মুখে পোল্ট্রি শিল্প

image_pdfimage_print

নিজস্ব প্রতিবেদক : পাবনায় খুচরা বাজারে একটা ডিমের দাম যখন সাত টাকা, পাইকারি বাজারে আড়ৎদাররা তখন খামারীদের নিকট থেকে ডিম কিনছে মাত্র পাঁচ টাকা ৩০ পয়সায়।

এক প্রকার নিরুপায় হয়েই আড়ৎদারদের কাছে পাঁচ টাকা ৩০ পয়সায় ডিম তুলে দিচ্ছেন খামারীরা। ডিমের দামের এমন পতন প্রায় ২ মাস ধরে চলছে। অথচ একজন খুচরা ক্রেতা সেই ৭ টাকা দামেই ডিম কিনতে বাধ্য হচ্ছেন।

পাবনা জেলা সদরের টেবুনিয়াতেই গড়ে উঠেছে বৃহৎ ডিমের পাইকারি বাজার। সেখান থেকেই বেড়িয়ে এসেছে এমন তথ্য।

খামারী থেকে সাধারণ ক্রেতা, এইটুকু হাত বদলেই ডিম প্রতি ১ টাকা ৭০ পয়সা তুলে নিচ্ছে ডিমের আড়ৎদার খ্যাত একটা বড় সিন্ডিকেট। তারা তাদের ইচ্ছেমতো ডিমের দাম নির্ধারণ করে এক প্রকার খামারীদের জিম্মি করে হাতিয়ে নিচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা। ফলে হুমকির মুখে পড়েছে পোল্ট্রি শিল্প।

টেবুনিয়া ডিমের পাকারি বাজার থেকে সাধারণত ডিম বিক্রি হয় কুষ্টিয়া, ঝিনাইদহ, যশোর, খুলনাসহ বিভিন্ন এলাকায়। এসব এলাকায় ডিম সরবরাহ করে অনেক আড়ৎদাররাই ক’দিনের ব্যবধানেই কোটিপতি বনে গেছেন। অথচ সবচেয়ে ক্ষতির মুখে পরেছেন ডিম উৎপাদনকারী খামারীরা।

ভালো পরিবেশ ও আবহাওয়ার কারণে টেবুনিয়া ও এর আশেপাশে গড়ে উঠেছে ক্ষুদ্র থেকে মাঝারি কোথাও কোথাও বৃহদ আকারের পোলট্রি খামার। এই খামারগুলোকে ঘিরেই গড়ে উঠেছে টেবুনিয়ার ডিমের পাইকারি বাজার। আশেপাশের অন্য কোন বাজারে ডিমের পাইকারি আড়ৎ না থাকায় সুযোগের সদ ব্যবহার করছে এই আড়ৎদাররা।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন খামারী জানান, মুরগির বাচ্চার দাম বেশী, খাদ্য-ওষুধের দাম বেশী কিন্তু ডিমের দাম কম হওয়ায় বিপাকে পরেছেন তিনি। অনেক টাকা ঋণ করে ২ হাজার শেডের মুরগির ফার্ম গড়ে তুলেছেন তিনি, কিন্তু ডিমের দাম কম হওয়ায় ঋণ শোধ করা নিয়ে চরম দু:চিন্তায় সময় পার করতে হচ্ছে তাকে।

এদিকে ছোট আকারে মুরগির শেড তৈরি করে অনেক বেকার যুবক স্বাবলম্বী হওয়ার স্বপ্ন দেখলেও সেই স্বপ্নে ছাই ঢেলে দিচ্ছে মধ্যসত্বভোগী বা সিন্ডিকেট চক্র। তারা নানা অজুহাতে গত ২ মাসে একশ ডিমে প্রায় ১শ টাকা কমিয়েছে। গত মাস দুয়েক আগেও প্রতি পিস ডিম খামারীদের নিকট থেকে আড়ৎদাররা কিনছেলিনে ৬টাকা ৪০ পয়সা থেকে শুরু করে ৬ টাকা ৮০ পয়সায়, সেই ডিম হঠাৎ করে দাম কমিয়ে ৫ টাকা ৩০ পয়সায় নামিয়েছে।

চাল-ডালসহ নিত্য প্রয়োজনীয় অন্যান্য পণ্যের ওপর প্রশাসনিক নজরদারি থাকলেও ডিমের বাজারের প্রতি তেমন কোন দৃষ্টি নেই তাদের, ফলে ডিমের বাজার অস্থিতিশীল রেখে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে টেবুনিয়ার ডিমের পাইকাররা। এতে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে ডিম উৎপাদনকারী খামারীরা ফলে হুমকীর মুখে পরেছে পোল্ট্রি শিল্প।

এ থেকে পরিত্রান খুঁজতে পাবনা জেলা প্রশাসনসহ ক্রেতা-ভোক্তাদের জাতীয় স্বার্থ সংরক্ষণকারী প্রতিষ্ঠান কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) এর সহযোগীতা কামনা করেছেন ভুক্তভোগীরা।

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!