পাবনায় হরিজন পল্লীতে ‘পিপীলিকা’র বৃক্ষ রোপন

2f164439-401f-4f38-9906-69b1b693660cশহর প্রতিনিধি: পাবনা শহরকে ফুলের শহরে রূপান্তরিত করার প্রত্যয়ে কাজ করছে পিপীলিকা। পিপীলিকার স্লোগান “পিপীলিকার ভাবনা, ফুলের শহর পাবনা”। তারই ধারাবাহিকতায় পিপীলিকা শুক্রবার হরিজন পল্লীতে ফুলের গাছ রোপন করেছে।

সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, হরিজন পল্লীর প্রবেশ পথ, রাস্তা, মন্দীরের পাশে, প্রতিটি বাড়ীর আঙ্গিনায় যেখানেই গাছ রোপনের সুযোগ পেয়েছে “ পিপীলিকা” সেখানেই ফুলের গাছ রোপন করেছে এবং নিরাপত্তার জন্য বাঁশের তৈরি খাঁচা ব্যবহার করেছে। ফুলের গাছ পেয়ে হরিজন পল্লীর বসবাসকারীদের মুখে ফুটে ওঠে হাসির রেখা।

গত ৫ জুন বিশ্বপরিবেশ দিবসে প্রথম পিপীলিকাকে র‌্যালি করতে দেখা যায়। শতাধিক শিশু কিশোর পেয়ারার চারা হাতে জেলা প্রশাসন আয়োজিত পরিবেশ দিবসের র‌্যালিতে অংশ নেয় ও র‌্যালি শেষে পেয়ারার চারা নিজ বাসায় রোপন করে।

তার কিছুদিন পরেই কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল থেকে মিশন স্কুল পর্যন্ত রাস্তার আইল্যান্ডে পিপীলিকাকে ফুলের গাছ রোপন করতে দেখা যায়। পিপীলিকা শহরের শহীদ ফজলুল হক পৌর উচ্চ বিদ্যালয়, শিবরামপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, শিবরামপুর মিলন সংঘ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, পাবনা পুলিশ লাইন স্কুলসহ বিভিন্ন স্কুলে গাছের চারা রোপন করেছে। ফুল গাছের কারণে সে এলাকার সৌন্দর্য বৃদ্ধি পেয়েছে।

এ বিষয়ে পিপীলিকার উদ্যোক্তা ও প্রধান উপদেষ্টা হিমেল রানা বলেন, “পিপীলিকা ভাবে যে আগামী ৫ বছর পরে পাবনা ফুলের শহরে পরিণত হবে, মানুষ পয়সা খরচ করে যেমন কক্সবাজার বেড়াতে যায়, তেমনি ফুলের শহর হিসাবে পাবনাকে দেখতে আসবে, এটাই পিপীলিকার স্বপ্ন।

তিনি আরও জানান, পিপীলিকা একটি সেচ্ছাসেবী সংগঠন। শিশু কিশোরদের ভালোকাজে ব্যাস্ত রাখার জন্য এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

পিপীলিকার দলনেতা আকাশ ইসলামসহ শতাধিক শিশুকিশোর রয়েছে সংগঠনে। সম্প্রতি নতুন কর্মসূচী হিসেবে পিপীলিকা পাখিদের জন্য নিরাপদ বাসা তৈরি ও স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে।