সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ১১:০৪ পূর্বাহ্ন

পাবনায় ২২ ভিক্ষুককে পুনর্বাসন

পাবনা প্রতিনিধি : মুজিব বর্ষে পাবনার সাঁথিয়ায় ভিক্ষা ছেড়ে কর্মে যুক্ত হলেন ২২ ভিক্ষুক। এসব ভিক্ষুকদের মধ্যে ২১টি গাভী ও একজনকে মুদি দোকান ঘরের বিক্রয় সামগ্রী বিতরণ করে তাদের স্বাবলম্বী হতে সহায়তা করেছে সাঁথিয়া উপজেলা প্রশাসন।

বুধবার (১২ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে সাঁথিয়া উপজেলা পরিষদ চত্বরে ভিক্ষুকদের মাঝে গবাদিপশু ও দোকান ঘরের সামগ্রী বিতরণ করা হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন পাবনার জেলা প্রশাসক কবীর মাহমুদ।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সাঁথিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এসএম জামাল আহমেদ।

ওই ২২ জন হলেন, সাবের আলী, আব্দুল মজিদ, লজিরন খাতুন, ময়না খাতুন, আয়েশা খাতুন, আছের আলী, আব্দুল লতিফ, সাহেরা খাতুন, বুলু খাতুন, খোদেজা খাতুন, শুকুরন নেছা, মুনসুর আলী, আব্দুস সালাম, আব্দুর রহমান, মোতালেব হোসেন, রেজাউল করিম, জাহেদা খাতুন, জহুরা খাতুন, হাফিজা খাতুন, নেকবার মোল্লা, ওমর আলী। তাদের হাতে একটি করে গাভী ও মুদি দোকানের প্রয়োজনীয় সামগ্রী প্রদান করা হয়।

গাভী পাওয়া ভিক্ষুক লজিরন খাতুন ও সাহেরা খাতুন জানান, ‘বাবারে আমরা এতদিন বিক্কে (ভিক্ষা) করতেম। এ্যাহন গরু পালে-পুষে বড় করে এর আয় দিয়ে সংসার চালাবের চাই।’

দোকান ঘরের সামগ্রী পাওয়া হাফিজা খাতুন জানান, ‘স্বামী ঘরে পড়ে আছে অসুস্থ অবস্থায়। এতদিন বিক্কে (ভিক্ষা) করতেম, এ্যাহন দোকান চালায়া সংসার চালাবো। আর ভিক্ষা করবো না বলে তিনি জানান। অন্যরাও একইরকম প্রতিশ্রুতি দেন। তারা সাঁথিয়া ইউএনও’র প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।’

জেলা প্রশাসক কবীর মাহমুদ জানান, এসব ভিক্ষুকের হাত যেন সত্যিকার অর্থেই কর্মীর হাতিয়ার হতে পারে এ জন্য তাদের মধ্যে গাভী বিতরণ করা হলো। গাভীর দামের সম পরিমাণ টাকা দিলে তারা খুব দ্রুতই এ টাকা ব্যয় করে আবার নিঃস্ব হয়ে যেতেন। কিন্তু গাভী বা দোকান ঘর দেয়ায় এগুলো তাদের নিয়মিত আয়ের উৎস হবে। তারা সমাজের বোঝা না হয়ে দেশের সম্পদ হবেন।

সাঁথিয়ার ইউএনও এসএম জামাল আহমেদ জানান, মুজিব বর্ষ উপলক্ষে ভিক্ষুক পুনর্বাসনের এ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এটি চলমান থাকবে। এ কাজ নিয়মিত মনিটরিং করা হবে। তাদের সুবিধা-অসুবিধা দেখা হবে। এজন্য সংশ্লিষ্ট এলাকায় ট্যাগ অফিসার থাকবেন। তাদের যেন আর ভিক্ষা করতে না হয় তা নিশ্চিত করা হবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সাঁথিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল মাহমুদ দেলোয়ার। আরো উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সোহেল রানা খোকন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফয়সাল রহমান, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল জাবীর, ইউপি চেয়ারম্যান হোসেন আলী বাগচী, জরীফ আহমেদ, মনছুর আলম পিন্চু, আবু ইউনুছ প্রমুখ।


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!