পাবনায় ৬৩১ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে

বার্তা সংস্থা পিপ, পাবনা : পাবনায় ৬৩১ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে। এ ছাড়া ঢাকা থেকে ফিরে আসা চাটমোহরের একটি খৃষ্টান পরিবারকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে।

জেলা করোনা ইউনিটের সুত্র মতে, সোমবার (২৩ মার্চ) পর্যন্ত পাবনা জেলার ৯টি উপজেলায় ২৮৮৫ জন লোক বিদেশ থেকে দেশে ফিরেছেন। এর মধ্যে মোট ৫২২ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে নেওয়া হয়েছে।

সোমবার হোম কোয়াারেন্টাইন তালিকায় নতুন ১০৯ জনকে যুক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় মোট ৬৩১ জনকে হোম কোয়াারেন্টাইনে নেওয়া হয়েছে। যাদের হোম কোয়ারেন্টাইনে নেওয়া হয়েছে তারা সবাই স্বাস্থ্য দফতরের নিবিড় পর্যবেক্ষণে রয়েছেন।

পাবনার সিভিল সার্জন অফিসের করোনা সেলের প্রধান ডা. আব্দুর রহিম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

রোববার (২২ মার্চ) বিকেলে পাবনার চাটমোহরে একটি পরিবারের সবাইকে হোম কোয়ারেন্টিনে দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

চাটমোহর উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের খ্রিস্টান পল্লীর কেনেডি পালমা নামের এক ব্যক্তি ও তার পরিবারের সদস্যদের ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠান উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. ইকতেখারুল ইসলাম।

পরিবারের অন্য সদস্যরা হলেন- স্ত্রী রুমি গমেজ, মেয়ে ইমি পালমা, ইরা পালমা, শাশুড়ি রিনি রোজারিও।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায়, ঠান্ডা, জ্বর, কাশি নিয়ে এক সপ্তাহ আগে ঢাকা থেকে কেনেডি পালমা নামের ওই ব্যক্তি পরিবারসহ গ্রামের বাড়ি চাটমোহরে আসেন। আসার পর থেকেই তিনি অসুস্থ রয়েছেন।

এরপর এলাকাবাসীর তথ্যের ভিত্তিতে ও ইউপি চেয়ারম্যানের সহযোগিতায় প্রথমে কেনেডি পালমাকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার পরামর্শ দেন চিকিৎসক। কিন্তু কেনেডি পালমা নির্দেশ না মেনে জনসম্মুখে ঘুরে বেড়াচ্ছিলেন।

রোববার সকালে পুলিশ গিয়ে তাকে আটক করে। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করলে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট অসুস্থ কেনেডি পালমাসহ পরিবারের সবাইকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশ দেন।

এ সময় উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শুয়াইবুর রহমানসহ মেডিকেল টিমের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।