শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ০৪:০২ অপরাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

পাবনা- ৪ আসনে উপনির্বাচনকে ঘিরে সংঘর্ষের ঘটনায় আটক- ১

image_pdfimage_print

বার্তাকক্ষ : পাবনা-৪ (ঈশ্বরদী-আটঘরিয়া) আসনে উপনির্বাচন উপলক্ষ্যে ঈশ্বরদী উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে তৃণমূল প্রতিনিধি সম্মেলে কেন্দ্রীয় নেতা, এমপি ও অতিথিদের সামনে দুই গ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় হামলা ও ছুরিকাঘাত মামলায় একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

আটক যুবলীগ কর্মী সনি প্রামানিক ঈশ্বরদী পৌর আওয়ামী লীগের ৭নং ওয়ার্ডের সভাপতি গোলবার হোসেন প্রামানিকের ছেলে।

ঈশ্বরদী থানার ওসি শেখ মো. নাসীর উদ্দিন শুক্রবার (১৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

থানায় দায়ের করা মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ১৪ সেপ্টেম্বর সোমবার দুপুর ১২টার দিকে নির্বাচনী দিক নির্দেশনা ও পরামর্শ প্রদানের লক্ষ্যে তৃণমূল প্রতিনিধি সম্মেলন উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেনকে সংবর্ধনা প্রদানকে কেন্দ্র করে ঈশ্বরদী পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মেয়র আবুল কালাম আজাদ মিন্টু গ্রুপের সঙ্গে পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইসাহক আলী মালিথা গ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ বাধে।

কেন্দ্রীয় নেতাসহ আওয়ামী লীগের এমপি ও জনপ্রতিনিধিদের সামনেই ঘটে চেয়ার ভাঙচুর, লাঠি সোটা, ইট, পাটকেল নিক্ষেপ ও ছুরিকাঘাতের ঘটনা। বিষয়টি কেন্দ্রীয় নেতাদের হস্তক্ষেপে মীমাংসা করা হয়।

এরপর আওয়ামী লীগ কার্যালয় থেকে বের হওয়ার সময় ঈশ্বরদী উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম খানের ছেলে রনি খানকে প্রতিপক্ষের লোকজন উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করে।
এই ঘটনায় আহত রনি খানের চাচা মজিবার খান বাদী হয়ে ঈশ্বরদী থানায় ১৩ জন নামীয় ও অজ্ঞাত আরো ৪০/৫০ জনের মামলা দায়ের করেন।

এই মামলায় যুবলীগ নেতা সজিব মালিথা, মিলন চৌধুরী, সদ্য স্থগিত হওয়া ঈশ্বরদী পৌর যুবলীগ সভাপতি আলাউদ্দিন বিপ্লব, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রাকিবুল ইসলাম রনিসহ ১৩ জনকে নামীয় আসামি করা হয়েছে।

হামলা ও মামলার পর থেকেই শহর জুড়ে থমথমে পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। বিরাজ করছে আতংক।

ঈশ্বরদী থানার ওসি শেখ মো. নাসীর উদ্দীন জানান, এই মামলার নামীয় আসামি সনিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকেই আসামিরা পলাতক। তাদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। পুলিশ সতর্ক রয়েছে।

এদিকে শুক্রবার দুপুরে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত আহত রনি খান রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল (রামেক) চিকিৎসাধীন। তাঁর অবস্থা বর্তমানে আশংকামুক্ত বলে পরিবার সূত্রে জানা গেছে।

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!