রবিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২২, ০৬:১৭ অপরাহ্ন

পাবিপ্রবিতে হাসান আজিজুল হক ও রফিকুল ইসলাম স্মরণসভা অনুষ্ঠিত

নিজস্ব সংবাদদাতা : পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক ও জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলামের প্রয়াণে স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার (১২ ডিসেম্বর) বেলা সাড়ে দশটায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কনফান্সে রুমে এই স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগ কর্তৃক আয়োজিত এই স্মরণসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম রোস্তম আলী। প্রধান আলোচন হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক, বিশিষ্ট গবেষক, রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. বিশ্বজিৎ ঘোষ।

আলোচকবৃন্দ ছিলেন বাংলা বিভাগের শিক্ষক ড. এম আবদুল আলীম, মুহাম্মদ আরিফ ওবায়দুল্লাহ ও ড. জিন্নাত রেহানা। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ড. মো. আশরাফুল ইসলাম ও মুহাম্মাদ নূরুন্নবী।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. এম রোস্তম আলী বলেন, ‘হাসান আজিজুল হকের সঙ্গে আমার দীর্ঘদিনের চেনা-জানা। একই আবাসিক এলাকায় বসবাসসূত্রে তাঁর ঘনিষ্ঠ সান্নিধ্য লাভের সুযোগ হয়েছে আমার। তিনি ছিলেন জাতির বরেণ্য সন্তান। বাংলা সাহিত্য এবং বাঙালির জাতীয় ইতিহাসের তিনি স্মরণীয় হয়ে থাকবেন নিজের সাহিত্যকর্ম ও চিন্তাশীল লেখনীর মাধ্যমে। জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলামও বেঁচে থাকবেন তাঁর গবেসণাকর্ম ও চিন্তা-কর্মের মধ্যে।’

ড. বিশ্বজিৎ ঘোষ বলেন, ‘জাতির প্রকৃত উন্নতি করতে হলে অবকাঠামোগত উন্নয়ন যেমন দরকার তেমনি দরকার মন ও চেতনার উন্নতি। এজন্যে প্রয়োজন সাহিত্য-সংস্কৃতির সাধনা ও শেকড়ের সন্থান। এটা করতে গেলে হাসান আজিজুল হক ও রফিকুল ইসলামের গ্রন্থগুলো পাঠ করতে হবে। নতুন প্রজন্ম তাঁদের গ্রন্থ ও জীবনাদর্শ দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়ে জীবনের পথ চললেই তাঁদের যথাযথভাবে স্মরণ করা হবে।’

অন্যান্য আলোচক এই দুই কীর্তিমান বাঙালির জীবন ও কর্মের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে মুক্তিযুদ্ধের শহীদ এবং এই দুই মনীষীর স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। অনুষ্ঠানের সভাপতি ড. মীর হুমায়ূন কবীর সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে স্মরণসভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন। সভায় বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীরা উপস্থিত ছিলেন।


© All rights reserved 2022 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com