মঙ্গলবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ১০:০৪ অপরাহ্ন

বই মেলায় মারজুক রাসেলের বই এক ঘণ্টায় শেষ

একুশে বইমেলায় এসেছে শ্রোতাপ্রিয় গীতিকার ও জনপ্রিয় অভিনেতা মারজুক রাসেলের কবিতার বই। ১৫ বছর পর বই নিয়ে এসেছেন তিনি। নাম ‘দেহবণ্টনবিষয়ক দ্বিপক্ষীয় চুক্তি স্বাক্ষর’।

বায়ান্ন প্রকাশনী থেকে প্রকাশ হওয়া এই বই এরইমধ্যে তুমূল জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। প্রায় প্রতিদিনই দেদারছে বিক্রি হচ্ছে বইটি৷ মারজুকের ভক্তরা উৎসাহ নিয়ে বই কিনতে আসছেন। ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করছেন প্রিয় লেখকের অটোগ্রাফের জন্য।

শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটির দিন হওয়ায় ভিড় ছিলো চোখে পড়ার মতো। এদিন মারজুকের বই কিনতে উপচে পড়া ভিড় দেখা গেছে। সবাই স্টলের সামনে অপেক্ষায় ছিলেন লেখকের।

অবশেষে সন্ধ্যা ৬টার দিকে বইমেলায় প্রবেশ করেন মারজুক রাসেল। এ খবর প্রকাশ হতেই ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা ভক্তরা ভিড় জমান বায়ান্ন’র স্টলের চারপাশে। দীর্ঘ লাইন ধরে বই কেনেন তারা। এসময় ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট নাটকে মারজুক অভিনীত পাশা চরিত্রের সংলাপ ‘এএএএএএএএ’ চিৎকারে মুখরিত হয়ে উঠে মেলার প্রাঙ্গণ।

১ ঘণ্টার মধ্যে স্টলে থাকা তার কবিতার বই শেষ হয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন বায়ান্ন প্রকাশনীর নুরে আলম।

তিনি বলেন, ‘মারজুক ভাইয়ের বই প্রকাশের আগে থেকেই প্রচুর চাহিদা ছিল। মেলায় যেদিন মারজুক ভাই আসেন সেদিন আমাদের ঝামেলা হয়ে যায়। উনার ভক্তদের চাপে আশেপাশের স্টলগুলো ঢাকা পড়ে যায়। আজ উনি মেলায় আসার এক ঘণ্টার মধ্যে আমাদের স্টলে থাকা সব বই শেষ হয়ে যায়। কাল থেকে আবারো বইটি পাওয়া যাবে।’

বইটি মারজুক রাসেলের ভাষায় ‘গ-নির্বাচিত কবিতার বই’। এর প্রচ্ছদ করেছেন রাজীব দত্ত।

প্রসঙ্গত, মারজুক রাসেলের প্রথম প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থের নাম ‘শান্টিং ছাড়া সংযোগ নিষিদ্ধ’। এরপর ‘চাঁদের বুড়ির বয়স যখন ষোলো’, ‘বাঈজি বাড়ি রোড’ এবং ‘ছোট্ট কোথায় টেনিস বল’ নামে তার তিনটি কবিতার বই প্রকাশিত হয়েছে।


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!