ঢাকাবৃহস্পতিবার , ৩১ মার্চ ২০২২

বঙ্গবন্ধু রেল সেতু নির্ধারিত সময়েই শেষ হবে

News Pabna
মার্চ ৩১, ২০২২ ১১:৪৫ অপরাহ্ণ
Link Copied!

টাঙ্গাইলের যমুনা নদীর উপর নির্মিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব রেলওয়ে সেতু নির্ধারিত সময় ২০২৫ সালের মধ্যে শেষ করা সম্ভব হবে বলে জানিয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব রেলওয়ে সেতুর (এডিডিআই) অতিরিক্ত চিফ প্রকৌশলী মো. আহসান জাবির। এ লক্ষ্যে দেশি-বিদেশি প্রকৌশলীদের তত্ত্বাবধানে কাজ করে যাচ্ছে সংশ্লিষ্টসহ কর্মকর্তাসহ নির্মাণ শ্রমিকরা।

বৃহস্পতিবার দুপুরে টিএমএসএল কনসাল্টিং লি. অ্যান্ড টি এইচ ডিজাইন অ্যান্ড ভেভেলপমেন্ট কন্সালট্যান্ট জেভির উদ্যোগে বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব রেলস্টেশন অফিসের (ভিআইপি) কক্ষে আয়োজিত সেতু নির্মাণ (১ম সংশোধিত) শীর্ষক প্রকল্পের নিবিড় পরিবীক্ষণ সমীক্ষায় কর্মশালায় তিনি এ কথা জানান।

তিনি আরও জানান, টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর-কালিহাতী ও সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলা এই দুই প্রান্তে রেল সেতু নির্মাণে ৫০টি পিলারের মধ্যে প্রায় অর্ধেকের কাছাকাছি পাইলিংয়ের কাজ এগিয়ে চলছে। সেতু নির্মাণ কাজ চলাকালীন সময়ে স্থানীয়দের বিভিন্ন সমস্যা জানতে ও তাদের পরামর্শ নেওয়ার জন্য সংশোধিত শীর্ষক কর্মশালার আয়োজন করা হয়।

কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক (যুগ্ম-সচিব) পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন সেক্টর-২ এর আইএমইডি মো. জহিরুল রায়হান। তিনি ঢাকা থেকে ভার্চুয়ালি ভিডিও কলের মাধ্যমে কর্মশালায় যুক্ত হন। পরে উপস্থিত সবার সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

কর্মশালায় বক্তব্য রাখেন- টিএমএসএল কনসাল্টিং লি. অ্যান্ড টি এইচ ডিজাইন অ্যান্ড ভেভেলপমেন্ট কন্সালট্যান্ট জেভির টিম লিডার ইমরুল হাসান, ম্যানেজিং ডিরেক্টর ডিএম তানভিরুল ইসলাম, প্রকল্প সমন্বয়কারী রফিুকল ইসলাম, ভূঞাপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি শাহ আলম প্রামাণিক, সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ আব্দুর রাজ্জাক প্রমুখ।

কর্মশালায় আরও বক্তব্য রাখেন- স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মাসুদুল হক মাসুদ, আব্দুল হাই আকন্দ, ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের প্রতিনিধি সাংবাদিক মামুনুর রশিদ, ঢাকা পোস্টের প্রতিনিধি অভিজিৎ ঘোষ, টাঙ্গাইল জেলা রেলওয়ে শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম, সকালের সময় ও ঢাকা প্রকাশের প্রতিনিধি ফরমান শেখ প্রমুখ।

এ সময় কর্মশালায় স্থানীয় বীর মুক্তিযোদ্ধা, জনপ্রতিনিধি ও গণমাধ্যমকর্মীরা সংশোধিত কর্মশালায় বলেন, স্বপ্নের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব রেলওয়ে সেতু নির্মাণ আমাদের গর্ব। কিন্তু সেতু নির্মাণের ফলে যমুনা সেতু পাথাইলকান্দি বাজার থেকে সেতুপূর্ব রেলস্টেশন পর্যন্ত নানা সমস্যা রয়েছে স্থানীয়দের।

এর মধ্যে রেলক্রসিংয়ে ভোগান্তি, আন্ডারপাস সড়ক নির্মাণ, রেলস্টেশন এলাকার গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ওভার ব্রিজ স্থাপন, রেল সেতু নির্মাণে শ্রমিকদের ঠিকমতো বেতন-ভাতা না দেয়ার অভিযোগ। এছাড়া সেতু উন্নয়নমূলক নানা বিষয়ে সংবাদ পরিবেশন করতে তথ্য প্রদানে সার্বিক সহযোগিতার আহবান জানান গণমাধ্যমকর্মীরা।