শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ০৩:৫৪ অপরাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

বর্ণাঢ্য আয়োজনে পাবনা জেলার ১৮৮ বছর পূর্তি উদযাপন

image_pdfimage_print

re-ra-bal-dc-pabশহর প্রতিনিধি : শোভাযাত্রা, আলোচনা সভাসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে গতকাল রোববার পাবনা জেলার ১৮৮ বছর পূর্তি উদযাপন করা হয়েছে। শহরের বিভিন্ন সংগঠন ও প্রতিষ্ঠান এসব অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। এতে অংশ নেন বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ।

সকালে পাবনা পৌরসভার উদ্যোগে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার মধ্য দিয়ে কর্মসূচি শুরু হয়। পৌর চত্বর থেকে শোভাযাত্রা বের হয়। শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে শোভাযাত্রাটি পুনরায় পৌর চত্বরে এসে শেষ হয়।

দুপুর ১২টায় জেলা পরিষদের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয় আলোচনা সভা। জেলা পরিষদের রশিদ হল মিলনায়তনে জেলা পরিষদের প্রশাসক এম সাইদুল হকের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন জেলা প্রশাসক রেখা রানী বালো।

বিশেষ অতিথি ছিলেন সরকারি এডওয়ার্ড কলেজের অধ্যক্ষ হুমায়ন কবির মজুমদার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সিদ্দিকুর রহমান, পাবনা প্রেসক্লাবের সভাপতি শিবজিৎ নাগ, পাবনা ডায়াবেটিক সমিতির সভাপতি বেবী ইসলাম প্রমুখ।

সভাপতির বক্তব্যে এম সাইদুল হক বলেন, ‘প্রাণের পাবনাকে আরও সুন্দর করতে আমাদের কাজ করতে হবে। জেলা শহরের মধ্য দিয়ে বয়ে যাওয়া ইছামতি নদী খনন, যানজটমুক্ত শহর, সড়ক প্রশস্ত করাসহ বহু কাজ বাকি রয়েছে। প্রতিটি উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।’

আলোচনা শেষে অতিথিরা কেক কাটেন। পরে সবাইকে মিষ্টিমুখ করানো হয়।

এ ছাড়া দিবসটি পালন উপলক্ষে পাবনা প্রেসক্লাব, প্রথম আলো পাবনা বন্ধুসভা ও আজকের প্রজন্ম ফোরামসহ বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন কেক কাটা, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

জেলার ইতিহাস-সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন পুস্তক ও নথিসূত্রে জানা যায়, ১৭৯০ সালে বর্তমান পাবনা জেলার বেশির ভাগ অংশ রাজশাহী জেলার অন্তর্ভুক্ত ছিল।

১৮২৮ সালের এই দিনে পাবনাকে জেলা হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়। ১৮৩২ সালে জয়েন্ট ম্যাজিস্ট্রেটের পরিবর্তে ডেপুটি কালেক্টর নিয়োগের মাধ্যমে পাবনা পূর্ণাঙ্গ জেলার মর্যাদা পায়।

১৮৫৫ সালে ময়মনসিংহ জেলা থেকে সিরাজগঞ্জ থানাকে পৃথক করে পাবনা জেলার অন্তর্ভুক্ত করা হয়। ১৮৭৮ সালের ১৯ জানুয়ারি জেলায় প্রথম রেলপথ স্থাপিত হয়। হোসিয়ারি শিল্প, তাঁতশিল্প, কাঁচিশিল্প, বেনারসি, কাতানসহ বিভিন্ন শিল্পে এই জেলা সমৃদ্ধ হয়ে ওঠে।

৩৫১ দশমিক ৫০ বর্গকিলোমিটার আয়তনবিশিষ্ট এই জেলায় বর্তমানে নয়টি উপজেলা ও ৭৩টি ইউনিয়ন রয়েছে। ২০১০ সালের আদমশুমারি অনুযায়ী জেলার মোট জনসংখ্যা ২৪ লাখ ৯৭ হাজার। এর মধ্যে পুরুষ ১২ লাখ ৫০ হাজার ও নারী ১২ লাখ ৪৭ হাজার।

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!