বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ পাবনা জেলা শাখার সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত

স্টাফ রিপোর্টারঃ লিগ্যাল এইড ও আন্দোলন উপ-পরিষদের আয়োজনে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত।

সোমবার (২৫ নভেম্বর) বিকেলে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ পাবনা জেলা শাখার কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য দেন বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ পাবনা জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক এডঃ কমারুন নাহার জলি।

তিনি জানান, পক্ষকাল ব্যাপী কর্মসূচীর মধ্যে “ধর্ষণ ও যৌন নিপীড়ন মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ, আসুন এ অপরাধের বিরুদ্ধে রুখে দাড়াই” এই আহ্বানে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ, পাবনা জেলা শাখার উদ্যোগে ২৬ নভেম্বর পাবনা প্রেসক্লাব এর সামনে এ আর কর্ণার এর নিচ তলায় সকাল ১০ টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত গণস্বাক্ষর কর্মসূচীর আয়োজন করা হয়েছে।

গণস্বাক্ষর কর্মসূচীর উদ্বোধন করবেন পাবনা জেলা প্রশাসক কবীর মাহমুদ। তিঁনি আরও বলেন, নারীর মানবাধিকার প্রতিষ্ঠার জন্যে এবং নারী ও কন্যা শিশু নির্যাতন বিরোধী সংস্কৃতি গড়ে তোলার উদ্দেশ্যে সারা বিশ্ব ২৫ নভেম্বর থেকে ১০ ডিসেম্বর পর্যন্ত আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ও বিশ্ব মানবাধিকার দিবস পালিত হয়ে থাকে।

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ বিশ্বের অন্যান্য দেশের ন্যায় প্রতিবছর কেন্দ্র থেকে তৃর্ণমূল শাখা পর্যন্ত বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহণের মধ্য দিয়ে এই পক্ষ পালন করে আসছে।

বর্তমান সময়ে আমরা দেখতে পাচ্ছি নারীর অবস্থানের ইতিবাচক পরিবর্তনের পাশাপাশি সমাজের ভেতরে মূল্যবোধের অবক্ষয় হচ্ছে। নারীর প্রতি সহিংসতা বিশেষ করে শিশু ও তরুণী নারীদের যৌন হয়রানি, ধর্ষণ, গণধর্ষণ, ধর্ষনের পর হত্যা করার মত ঘটনা প্রতিদিন ঘটছে, যা উদ্বেগ সৃস্টি করছে।

শিক্ষক, আইনজীবী, চিকিৎসকসহ বিভিন্ন পেশাজীবী, প্রশাসন ও আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় নিয়োজিত কর্মকর্তাবৃন্দ, রাজনৈতিক দলের সাথে যুক্ত ছাত্র, তরুণ ও বয়:বৃদ্ধরাও এসব ঘটনা ঘটিয়ে চলছে এবং সকলস্তরের মানুষ এ বিষয়ে উদাসীন।

ফলে সমাজের মধ্যে নানা ধরণের উদ্বেগ ও নিরাপত্তাহীনতার পরিস্থিতি তৈরি করছে যা নারী আন্দোলনকে উদ্বিগ্ন করে তুলছে।

এ ধরনের একটি পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ আন্তর্জাতিক নারী নিযার্তন প্রতিরোধ পক্ষ, ২০১৯ ( ২৫ নভেম্বর-১০ ডিসেম্বর) পালন করতে যাচ্ছে।

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ মনে করে গণসচেতনতা বৃদ্ধি এবং মনস্তাত্বিক পরিবর্তন ও ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে সম্মিলিতভাবে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার মধ্য দিয়ে নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।

সংবাদ সম্মেলনে বিভিন্ন প্রিন্ট মিডিয়া এবং ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার প্রতিনিধি সহ বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ পাবনা জেলা শাখার সহ-সভাপতি ফাতেমা খাতুন লতা লিগ্যাল এইড সম্পাদক শরিফা খাতুন সুখী, প্রচার সম্পাদক করুনা নাসরিন, সহ-সাধারণ সম্পাদক রোজী খাতুন, কার্যকরী সদস্য রওশন আরা চম্মা, কামিনী খাতুন, মাছুরা খাতুন, মিমি খাতুন, পাড়া কমিটির সম্পাদক ঝুমুর সরকার, পাড়া কমিটির সভাপতি নাদিরা ইয়াছমিন প্রমুখ।