বেড়ায় ডোবা থেকে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার

নিজস্ব সংবাদদাতা : পাবনার বেড়া উপজেলার জগন্নাথপুর গ্রামের এক ডোবা থেকে রোজিনা খাতুন (১৯) নামে এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোজিনা খাতুন গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকে নিখোঁজ ছিলেন বলে জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

আজ বুধবার (২৫ অক্টোবর) সকালে লাশটি উদ্ধার করা হয়। পরে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায় পুলিশ।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, উপজেলার জগন্নাথপুর গ্রামের হাফিজুলের স্ত্রী ও একই গ্রামের জালাল উদ্দিনের মেয়ে রোজিনা।

প্রায় ৫ মাস আগে রোজিনা ও হাফিজুলের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই হাফিজুল ও তার পিতা নিজাম উদ্দিন যৌতুকের জন্য রোজিনার উপর শারীরিক ও মানুষিক নির্যাতন চালিয়ে আসছিলো বলে জানান স্থানীয়রা।

গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকে রোজিনার কোন খোজ পাওয়া যাচ্ছিলনা, হঠাত আজ সকালে হাফিজুলের বাড়ির পাশের একটা ডোবায় রোজিনার লাশ ভাসতে দেখে থানায় খবর দেয় এলাকাবাসী। পরে পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে।

নিহতের শরেীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। গতকাল রোজিনা নিখোজের পর থেকেই স্বামী হাফিজুল ও তার পিতা নিজাম উদ্দিন পলাতক রয়েছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বেড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো : মোজাফ্ফর হোসেন জানান, যৌতুকের কারনেই রোজিনাকে হত্যা করে লাশ গুম করার জন্য ডোবায় ফেলে রাখা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারনা করছেন তারা। তবে ময়নাতদন্ত শেষে আরো বিস্তারিত জানা যাবে বলে জানান ওসি।

এ ঘটনায় বেলা ১১টার দিকে পুলিশ হাফিজুলের মা হাফসা খাতুনকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।