মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২১, ১১:৩২ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

বেড়ায় মিলাদ দিয়ে আ.লীগ নেতার অবৈধ বালু উত্তোলন উদ্বোধন!

image_pdfimage_print

আরিফ খাঁন, বেড়া, পাবনাঃ পাবনার বেড়ায় স্থানীয় এক আওয়ামীলীগ নেতা মিলাদ দিয়ে যমুনা নদীর অবৈধ বালু উত্তোলনের উদ্বোধন করেছেন।

বিষয়টি নিয়ে এলাকায় নানা ব্যপক গুঞ্জন এবং চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

শনিবার (০২ জানুয়ারি) বিকেলে বেড়া উপজেলা রূপপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক রেজাউল করিম বকুল যমুনা নদী পাড়ে ড্রেজার মেশিনের উপর এই মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করে।

স্থানীয় গ্রামবাসীরা জানান, বেড়া উপজেলা রূপপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সম্পাদক ও খানপুরা গ্রামের বাসিন্দা রেজাউল করিম বকুল সম্প্রতি প্রায় অর্ধকোটি টাকা দিয়ে ‘বলগেট’ ড্রেজার মেশিন ক্রয় করেন।

শনিবার বিকেলে মিলাদ মাহফিলের মাধ্যমে সকল কর্মীদের নিয়ে এই বলগেট মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন শুরু করা হয়। প্রতিঘন্টায় এই মেশিন বর্তমান পদ্ধতির ড্রেজারের দ্বিগুন বালু উত্তোলন করতে সক্ষম বলে সংশ্লিষ্টরা জানান।

স্থানীয় মোতালেব মিয়া জানান, মিলাদ দিয়ে নদীতে অবৈধ বালু উত্তোলন অন্যায় এবং চরম অবমাননাকর।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধকি ব্যক্তি জানান, বালু ব্যাবসায়ী একজন স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা। সে অবৈধ ভাবে নদীতে ড্রেজার মেশিন দিয়ে র্দীঘদিন ধরে যমুনা নদী থেকে বালু উত্তোলন করে ব্যাবসা করে আসছে।

এ ব্যাপারে নগরবাড়ী ঘাটের নৌ পুলিশ তাকে আসামি করে মামলাও করেছেন ইতিপূর্বে।

শনিবার সে ৫০ লক্ষ টাকা দিয়ে নতুন ড্রেজার মেশিন কিনে আবার বালু উত্তোলন শুরু করেছে। বকুলের ভয়ে কেউ তার বিরুদ্ধে কথা বলতে সাহস পায়না। অপরিকল্পিত ভাবে বালু উত্তোলনের ফলে ফসলি জমি ও অনেক বাড়ীঘর নদী গর্ভে চলে গেছে।

এ ব্যাপারে রুপপুর ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম উজ্জ্বল বলেন, রেজাউল করিম বকুল বর্তমানে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগে তার কোন পদ পদবী নেই।

তবে সে নিজেকে আওয়ামীলীগ নেতা হিসেবে পরিচয় দেয়। সে আওয়ামীলীগের নাম ব্যাবহার করে এ সকল অবধৈভাবে ব্যাবসা করে আসছেন দীর্ঘদিন ধরে।

যার ফলে অনেক সময় আমারও বিব্রত হই। অবৈধ বালি উত্তোলনের ফলে এই ইউনিয়নের সাধারণ কৃষকরা জমজিমা ছাড়া ভিটা মাটিও যমুনা নদীতে বিলীণ হয়ে যাচ্ছে।

বিষয়টির নিয়ে আমি নিজেও স্থানীয় লোকজনকে সাথে নিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা স্যারকে অবহিত করলে তিনি কয়েকবার এসে জরিমানা ও ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেছেন। তারপরও থেমে নেই।

এ ব্যাপারে বেড়া উপজেলা রূপপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক ও খানপুরা গ্রামের বাসিন্দা রেজাউল করিম বকুলের সঙ্গে কয়েক বার মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন ধরেননি।

নাম প্রকাশ না করে তার ফোনে স্ত্রী পরিচয় দিয়ে একজন বলেন, বকুলের জ্বর এসেছে। এখন ঘুমিয়ে আছে কোন কথা বলতে পারবেনা।

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!