মঙ্গলবার, ০৯ মার্চ ২০২১, ১২:৫৭ অপরাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

ভাঙ্গুড়ায় কলেজ ছাত্রীর শ্লীলতাহানি, চাচা পলাতক

image_pdfimage_print

ভাঙ্গুড়া প্রতিনিধি : পাবনার ভাঙ্গুড়ায় অসুস্থ্য মায়ের পান নিয়ে বাড়িতে একা ফেরার পথে প্রতিবেশী চাচার হাতে শ্লীলতাহানির শিকার হয়েছে এক কলেজ ছাত্রী (১৮)।

সে স্থানীয় একটি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী।

প্রতিবেশী সোহেল রানা ওরফে জগলুল (৪৫) নামক এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে ওই কলেজ ছাত্রী এমন অভিযোগ করেছে। জগলুল ওই ছাত্রীর সর্ম্পকে চাচা। বর্তমানে চাচা পলাতক রয়েছে।

সোহেল রানা ওরফে জগলুল

সোহেল রানা ওরফে জগলুল দুই সন্তানের জনক ও মন্ডুতোষ গ্রামের আলহাজ্ব মোহাম্মদ আলীর ছেলে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার মন্ডুতোষ ইউনিয়নের মন্ডুতোষ গ্রামে।

ঘটনার বিষয়ে বুধবার (২০ জানুয়ারি) গভীর রাত পযর্ন্ত ইউপি চেয়ারম্যান, মেম্বর ও গ্রাম প্রধানসহ শতাধিক লোক মন্ডতোষ প্রাথমিক বিদ্যালয় চত্বরে গ্রাম্য সালিশে আপোস মীমাংসার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়।

কারণ অভিযুক্ত প্রভাবশালী ও পলাতক থাকার কারণে বিষয়টির কোনো সুরাহ হয়নি। তবে এঘটনায় ওই এলাকাতে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। ভিক্টিমের পরিবার সুষ্ঠু বিচার দাবী করেছেন।

ভিক্টিমের পরিবার ও এলাকাবাসি জানান, গত শনিবার (১৬ জানুয়ারি) সন্ধ্যার দিকে ওই কলেজ ছাত্রীর মা দাতের ব্যথায় অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। কিছুতেই যখন তার দাতের ব্যথা নিবারণ হচ্ছিল না তখন তার মা তাকে বাড়ির পাশের দোকান থেকে পান আনতে তার মেয়েকে পাঠান।

রাত ৮টার দিকে ভিক্টিম পাশের দোকান থেকে তার মায়ের জন্য পান কিনে ফেরার পথে ফাঁকা স্থানে একা পেয়ে অভিযুক্ত সোহেল রানা ওরফে জগলুল ওই কলেজ ছাত্রীর মুখ চেপে ঝাপটে ধরে রাস্তার নিচে লিচু বাগানে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে।

ধস্তাধস্তির একপর্যায়ে ভিক্টিম চিৎকার দিলে পাশের লোকজন ছুটে এলে এই কথা কাউকে বললে ভিক্টিমকে হত্যা করা হবে বলে হুমকি দিয়ে সোহেল রানা চম্পট দেয়।

ওই কলেজ ছাত্রী বাড়িতে ফিরে এসে তার পারিবারের লোকজনের কাছে সব ঘটনা খুলে বলে।

এ ঘটনায় বিষয়ে ভিক্টিমের পরিবারের লোকজন পরের দিন সকালে ভাঙ্গুড়া থানায় অভিযোগ দিতে আসলে তাদেরকে এলাকায় বসিয়ে বিষয়টি আপোস মীমাংসা করার কথা বলে ফিরিয়ে নেন গ্রাম্য প্রাধান মইনুল, আব্দুল গফুর ও জুলফিক্কার আলী।

বুধবার রাতে মন্ডতোষ ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যের নির্দেশে গ্রামপুলিশ গ্রামবাসিকে মন্ডতোষ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় চত্বরে শতাধিক লোককে একত্রিত করে গভীর রাত পযর্ন্ত চলে আপোস মীমাংসোর চেষ্টা।

সালিশ বৈঠকে মন্ডতোষ ইউপি চোয়ারম্যান আফছার আলী, ৭ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সাগর হোসেন, সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুস সামাদসহ প্রায় শাতাধিক গ্রামবাসি উপস্থিত ছিল।

কিন্তু অভিযুক্ত সোহেল রানা ওরফে জগলুল বিত্তশালী ও প্রভাবশালী হওয়ায় সে গ্রাম্য সালিশে হাজির হয়নি।

ভিক্টিমের বড় ভাই বলেন, ঘটনার বিষয়ে থানায় অভিযোগ দিতে গেলে গ্রাম্য প্রধান মইনুল, আব্দুল গফুর ও জুলফিক্কার আলী গ্রামেই বিচার করে দিবে বলে আমাদের ফিরিয়ে এনেছে। এখন তো তারা কোন বিচারই করে দিলেন না । এক্ষণ বুঝতেছি তারা আসামীকে পালাতে সাহায্য করেছে।

ভিক্টিমের পিতা কান্না জড়িতে কন্ঠে বলেন, আমার মেয়েটাকে সমাজে বাঁচিয়ে রাখাই এখন কঠিন হবে।

ঘটনার ব্যপারে ইউপি সদস্য মো. সাগর হোসেন বলেন, আমরা ঘটনার বিষয়ে গ্রামে আপোস মীমাংসার চেষ্টা করেছি কিন্তু বিবাদি উপস্থিত না হওয়ার কারণে সেটা আর সম্ভব হয়নি।

মন্ডতোষ ইউপি চেয়ারম্যান মো. আফছার আলী বলেন, গ্রামবাসীকে নিয়ে ওই ঘটনার বিষয়ে আপোষ মীমাংসার চেষ্টা করে করা হয়েছে। কিন্তু বিবাদী উপস্থিত না হওয়ার কারণে আপোষ মীমাংসা করা যায়নি।

এ রিপোর্ট লেখার সময় থানায় একটি অভিযোগের কথা নিশ্চিত করেছেন ভাঙ্গুড়া থানার ওসি মুহম্মদ আনোয়ার হোসেন।

তিনি জানান, দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

0
1
fb-share-icon1


শৈশব কৈশরের দুরন্ত-দুষ্টু ছেলেটিই আজকের এমপি প্রিন্স

শৈশব কৈশরের দুরন্ত-দুষ্টু ছেলেটিই আজকের এমপি প্রিন্স

শৈশব কৈশরের দুরন্ত-দুষ্টু ছেলেটিই আজকের প্রিন্স অফ পাবনা

Posted by News Pabna on Thursday, February 18, 2021

© All rights reserved 2021 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
x
error: Content is protected !!