শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ০২:৫৩ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

ভাঙ্গুড়ায় সবজির দামের ঊর্দ্ধগতিতে ক্রেতাদের নাভিশ্বাস

image_pdfimage_print

ভাঙ্গুড়া প্রতিনিধি : পাবনার ভাঙ্গুড়ায় লাগামহীনভাবে বেড়েছে কাঁচা মরিচ ও সবজির দাম।

সবজির বাজারের এই ঊর্দ্ধগতিতে নাভিশ্বাস উঠেছে সাধারণ ক্রেতাদের মাঝে।

তবে বিক্রেতারা বলছে অতিবর্ষণ ও বন্যার পানি ৫ম বারের মত বৃদ্ধি পাওয়ায় সবজির অনেক জমিতে পানি উঠে সবজির ক্ষেত নষ্ট হয়ে গেছে।

ফলে আমদানী কম থাকার ফলে বাজারে দাম একটু বেশী।

অপরদিকে কৃষকের উৎপাদিত সবজি একাধিক হাত বদল হয়ে ক্রেতার নিকট আসে ফলে সবজির বাজারে বেশী দাম গুণতে হচ্ছে ক্রেতাদের এমন অভিযোগ করেছে একাধিক ব্যবসায়ী।

জানা গেছে, অতিবৃষ্টি ও বন্যার পানি বৃদ্ধির কারণে ভাঙ্গুড়া উপজেলার মন্ডতোষ, পারভাঙ্গুড়া ও অষ্টমনিষা ইউনিয়নের কৃষকের সবজির ক্ষেতে পানি জমে অধিকাংশ সবজির গাছ নষ্ট হয়ে গেছে।

ফলে এ অঞ্চলের যে সকল সবজিগুলি বাজারে আসত সেগুলি আর স্থানীয় বাজারে আসছে না। তাই সবজির বাজার বেশী ও ঊর্দ্ধগতি এমনটি মনে করছেন স্থানীয় একাধিক সবজি বিক্রেতা।

শনিবার সরেজমিন উপজেলার শরৎনগর হাট ঘুরে দেখা গেছে কাঁচা মরিচ ও সবজির বেশ আমদানি ছিল কিন্তু দামও ছিল বেশ চড়া।

প্রতি কেজি করলা বিক্রি হচ্ছে ১০০ টাকা, কাঁচা মরিচ ২০০, আলু ৪৫, ঢেড়শ ৬০ টাকা, পটল ৬০ টাকা, ফুলকপি ৬০ টাকা, মুলা ৬০ টাকা,পেঁপে ৩০ টাকা, শশা ৬০ টাকা কেজি বিক্রি হতে দেখা গেছে।

শরৎনগর হাটে সবজি ব্যবসায়ী কামরুল ইসলাম জানান, তারা বেশী দামে ক্রয় করলে খুচরা বাজারে ক্রেতাদের নিকট তাদের বেশী দামে বিক্রয় করতে হয়।

এবিষয়ে ভাঙ্গুড়া উপজেলা কৃষি অফিসের উপসহকারি কৃষি কর্মকর্তা সুস্থির চন্দ্র সরকার বলেন, অতিবৃষ্টি ও বন্যার পানির কারণে এলাকার অনেক কৃষকের সবজির জমি নষ্ট হয়েছে।

তবে অল্পদিনের মধ্যে আবারও সবজির বাজার স্বাভাবিক অবস্থায় আসবে বলেও মনে করেন এই কৃষি কর্মকর্তা।

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!