ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎকরা কর্মস্থল বিমুখ

ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎকগণ

ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎকগণ

ভাঙ্গুড়া প্রতিনিধি: পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসকগণ কর্মস্থল বিমুখ হওয়ার কারণে এখানে সাধারণ রোগীরা কাম্য সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

সোমবার (২০ জুন) সকালে এই স্বাস্থ্য প্রকল্পে গিয়ে সরেজমিন দেখা যায় বহিঃবিভাগে সকাল পোনে দশটা পর্যন্ত একজন চিকিৎসকও তাদের চেম্বারে উপস্থিত ছিলেন না। সকাল দশটায় ডাঃ হালিমা ও ডাঃ রাশিদুল হাসানকে চেম্বারে বসতে দেখা যায়।

জানাগেছে, অপর ৮জন মেডিকেল অফিসার তখনও ক্লিনিক বা ব্যক্তিগত চেম্বারে প্রাইভেট প্রাকটিসে নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন। ফলে অসংখ্য রোগী হাসপাতালের বারান্দায় ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করেন।

অথচ রমজান মাসে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সিডিউল অনুযায়ী সকাল ৮টা হতে দুপুর ২টা পর্যন্ত তাদের একটানা সেবা দেয়ার কথা।

আউট ডোরে অপেক্ষমান উপজেলার বড় বিশাকোল গ্রামের গোলাম মওলার স্ত্রী হাসিনা খাতুন(৫০) মাজার ব্যাথা, বেতুয়ান গ্রামের এন্তাজ আলীর স্ত্রী রহিমা খাতুন(৪৫) ঘা-পচারী ও হাদল গ্রামের পারভীন সুলতানা (২২) তার শিশু সন্তানের নিউমোনিয়ার চিকিৎসা নিতে এসে সকাল থেকে বসে আছেন কিন্তু ডাক্তার পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ করেন।

এছাড়া আন্তঃবিভাগে আবাসিক মেডিকেল অফিসারের পরিবর্তে স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডাঃ শাহাদত হোসেনকে রোগী দেখতে দেখা যায়। অথচ এখানে আয়ুর্বেদীয়সহ ১০জন মেডিকেল অফিসার কর্মরত আছেন। এ

ব্যাপারে স্বাস্থ্য প্রশাসক ডাঃ শাহাদত হোসেনকে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন রমজান মাসে চিৎিসকগণ একটু দেরিতে আসেন, মানবিক কারণে তিনি কিছু বলতে পারেন না।

পাবনার সিভিল সার্জন ডাঃ সাইফ উদ্দিন এহিয়া বিষয়টি জানতে পেরে সোমবার দুপুরে ঐ হাসপাতালে ছুটে যান এবং চিকিৎসকগণের বিলম্বে আসার ব্যাপারে সত্যতা পেয়েছেন বলে তিনি এ প্রতিবেদককে জানিয়েছেন। তবে তিনি কারো বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা না নিয়ে তাদের সতর্ক করেন বলে জানা গেছে।