সোমবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২১, ১১:৪৯ অপরাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

ভাঙ্গুড়া পৌর নির্বাচনে আ’লীগের একাধিক প্রার্থী- নিশ্চুপ বিএনপি

image_pdfimage_print

ভাঙ্গুড়া প্রতিনিধিঃ দেশে দ্বিতীয় ধাপে আরও ৬১টি পৌরসভা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। এ ধাপে পাবনার ভাঙ্গুড়া পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে ।

নির্বাচন কমিশনের এই খবর বুধবার ভাঙ্গুড়ায় ছড়িয়ে পড়লে পৌর নির্বাচনে মেয়র প্রার্থীতা নিয়ে আবার নতুন করে জলপনা কল্পনা শুরু হয়েছে। এ নির্বাচনকে ঘিরে পৌরবাসীর জলপনা কল্পনার যেন শেষ নেই ।

তবে নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার অনেক পূর্ব থেকেই ভোটের মাঠে আওয়ামীলীগের সম্ভব্য তিন প্রার্থীর নাম শোনা গেলেও বিএনপিসহ অন্যান্য রাজনৈতিক দল রয়েছে নিশ্চুপ।

আসন্ন পৌর নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগের যারা আলোচনায় আছেন তারা হলেন- বর্তমান মেয়র ও পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. গোলাম হাসনাইন রাসেল, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেয়র আব্দুর রহমান প্রধান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আজাদ খাঁন।

তিনি গত পৌর নির্বাচনে নৌকার বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করে পরাজিত হয়েছিলেন । তারা সকলেই দলের সমর্থন পেতে এরই মধ্যে যোগাযোগ রক্ষা করা চলেছেন।

জানা গেছে, বর্তমান মেয়র ও পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম হাসনাইন রাসেল গত ৫ বছরে স্থানীয় সাংসদ আলহাজ মো. মকবুল হোসেনের সহায়তায় পৌরসভার রাস্তাঘাট নির্মাণ ও সংস্কার, ড্রেনেজ ব্যবস্থা নির্মাণ, রাস্তা প্রশস্তকরণ, পৌরসভা খ শ্রেণি থেকে ক শ্রেণিতে উন্নীতকরণ, মাদক নিয়ন্ত্রণ, গুরুত্বপূর্ণ স্থানসমূহে সিসি ক্যামেরা স্থাপন, বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ গুলিকে টেকসই করার লক্ষ্যে নিজে উপস্থিত থেকে তদারকি করে সিডিউল মোতাবেক কাজ বুঝে নেওয়া, সন্ত্রাস নিয়ন্ত্রণ করা, ডাস্টবিন স্থাপন, করোনাকালে ত্রান বিতরণ, করোনাভাইরাসের মধ্যে পৌরবাসীদের এন্টিবডি তৈরির লক্ষ্যে বিনামূল্যে হোমিও ঔষুধ বিতরণ, তৃণমূল নেতাকর্মীদের সাথে সুসর্ম্পক ও যোগাযোগ রাখাসহ অনেক সফলতা তার ঝুড়িতে আছে।

আপরদিকে পৌরসভার চলমান উন্নয়নের সফলতা ও ব্যর্থতা নিয়ে ৯টি স্থানীয় জনতার সাথে সভা করে তাদের মতামতের ভিত্তিতে বিভিন্ন সিদ্ধান্ত গ্রহণ ও বাস্তায়ন করেছেন । যা এই পৌরসভার পূর্বের কোন নির্বাচিত মেয়রই করেন নি। তিনিও এবারের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশা করছেন।

সাবেক মেয়র ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান প্রধানও বিভিন্ন অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে নিজের প্রার্থীতা ঘোষণা করেছেন। তিনি একাধারে সাবেক ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও পৌর আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ছিলেন।

তিনিও তার আমলে পৌর মার্কেট নির্মাণ ও শরৎনগর গরুর হাট সম্প্রসারণ, পৌর এলাকায় আলোকসজ্জাকরণ করাসহ নানান উন্নয়ন করার বিষয়টি তুলে ধরে বক্তব্য দিয়ে নৌকা প্রতীকের সমর্থন আশা করছেন।

উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আজাদ খানও আগামী পৌর নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দীতা করবেন । তিনি হাজী জামাল উদ্দীন ডিগ্রী কলেজের সাবেক ছাত্রনেতা।

তবে গত পৌর নির্বাচনে কেন্দ্রীয়ভাবে দলীয় সিদ্ধান্তের বাহিরে গিয়ে নৌকা প্রতীকের বিরুদ্ধে নির্বাচন করে পরাজয় বরণ করেছিলেন। তিনিও এবার দলীয় সমর্থন পেতে সবার সাথে যোগাযোগ রক্ষা করে চলেছেন।

তবে উপজেলা বিএনপির নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের এক নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, তাদের দল বিএনপি আসন্ন পৌর নির্বাচনে অংশ নেবেন এবং দলীয় সভা করে অচিরেই প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হবে।

প্রসঙ্গত, নির্বাচন কমিশন ঘোষিত পৌরসভা নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপের তফসিল অনুযায়ী মনোনয়ন দাখিলের শেষ তারিখ ২০ ডিসেম্বর, বাছাই ২২ ডিসেম্বর, মনোয়নয়ন প্রত্যাহারের শেষ সময় ২৯ ডিসেম্বর ও ভোট গ্রহণ হবে ১৬ জানুয়ারি। ব্যালোটের মাধ্যমে এই পৌরসভার ভোট গ্রহণ করা হবে।

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!