বৃহস্পতিবার, ০৬ অগাস্ট ২০২০, ০১:২৯ অপরাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

ভারতের বিপক্ষে টাইগারদের টি-টোয়েন্টি দল ঘোষণা

পরিপূর্ণ একটি সিরিজ খেলতে আগামী মাসের অর্থাৎ নভেম্বরের শুরুতেই ভারত সফর করবে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ দিয়েই শুরু হবে প্রথমবারের মত এ পূর্ণাঙ্গ সিরিজ। এ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার টি-টোয়েন্টি দল ঘোষণা করেছে বিসিবি।

১৫ সদস্যের এ দলে বহুদিন পর ফিরেছেন পেসার আল আমিন হোসেন ও বাঁহাতি স্পিনার আরাফাত সানী। আর বাদ পড়েছেন মেহেদী হাসান মিরাজ।

এর আগেরদিন অর্থাৎ বুধবারই জানা গিয়েছিল যে, ভারত সফরের টেস্ট সিরিজের স্কোয়াড ঘোষণা করতে বাড়তি সময় নেবেন নির্বাচকরা। কারণ তারা জাতীয় ক্রিকেট লিগের দ্বিতীয় রাউন্ডের পারফরম্যান্স তথা বিবেচনায় থাকা খেলোয়াড়দের ফর্ম দেখে নিতে চান শেষবারের মতো।

তাই আজ (বৃহস্পতিবার) ঘোষণা করা হয়েছে ভারত সফরের তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের ১৫ সদস্যের স্কোয়াড। যদিও এই স্কোয়াডে কোনও নতুন মুখ নেই। তবে একমাত্র অনভিষিক্ত ক্রিকেটার হিসেবে রয়েছেন বাঁহাতি টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ নাইম শেখ। এছাড়া আঙুলের ইনজুরিতে পড়া লেগ স্পিনার আমিনুল ইসলাম বিপ্লবকেও রাখা হয়েছে ভারত সফরের স্কোয়াডে।

অন্যদিকে, দীর্ঘদিন পর জাতীয় দলে ফিরলেন অমিত সম্ভাবনা নিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে যাত্রা শুরু করা ডানহাতি পেসার আল-আমিন। শৃঙ্খলাজনিত সমস্যার কারণে ২০১৫ সালের বিশ্বকাপ থেকে অনাকাঙ্খিতভাবে দেশে ফিরে আসতে হয় তাকে। যদিও এরপর আরও এক বছর জাতীয় দলের হয়ে খেলেছেন এই পেসার।

সর্বশেষ দেশের জার্সি গায়ে ২০১৬ সালে ভারতের মাটিতে হওয়া বিশ্ব টি-টোয়েন্টিতে মাঠে নেমেছিলেন আল আমিন। এরপর আর জাতীয় দলের আশেপাশে দেখা যায়নি তাকে। অবশেষে প্রায় তিন বছর পর সেই ভারতের বিপক্ষে সিরিজ দিয়েই জাতীয় দলে প্রত্যাবর্তন ঘটতে যাচ্ছে সব মিলিয়ে ৪৫টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলা রাজশাহীর এই বোলারের।

অন্যদিকে আল-আমিনেরও দশদিন আগে থেকে জাতীয় দলের বাইরে বাঁহাতি স্পিনার আরাফাত সানি। সেই বিশ্বকাপেই নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশের সবশেষ ম্যাচের পর আর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেননি আল-আমিন। সেই আসরে পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচের পর মাঠে নামা হয়নি আরাফাত সানির।

তবে সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে এবার ভারত সিরিজেই মাঠে ফেরা হবে এ দুই বোলারের। বাংলাদেশের হয়ে ১০ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে সানির শিকার ১২টি, ১৬ ওয়ানডেতে রয়েছে ২৪টি উইকেট। আর টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে স্পেশালিস্টের তকমা পাওয়া আল-আমিন ২৫ ম্যাচ খেলে নিয়েছিলেন ৩৯টি উইকেট। এছাড়া টেস্টে ৬ ম্যাচে ৬ ও ওয়ানডেতে তার শিকার ১৪ ম্যাচে ২১টি উইকেট।

এদিকে সানি ও আল-আমিন ছাড়াও টি-টোয়েন্টি দলে ফেরানো হয়েছে বাঁহাতি ওপেনার সৌম্য সরকারকে। আর স্বেচ্ছা বিশ্রাম শেষে ফিরেছেন তামিম ইকবালও। যদিও বুধবার ইনজুরিতে পড়ে আজ থেকে শুরু হওয়া জাতীয় লীগের দ্বিতীয় ম্যাচে খেলতে পারছেন না দেশ সেরা এই ওপেনার।

অন্যদিকে সবশেষ ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালের দল থেকে বাদ পড়েছেন সাব্বির রহমান, নাজমুল হোসেন শান্ত, রুবেল হোসেন ও তাইজুল ইসলাম।

এদিক, আগামী ৩ নভেম্বর দিল্লির অরুণ জেটলি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি। পরে ৭ নভেম্বর রাজকোটে এবং ১০ নভেম্বর সিরিজের শেষ ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে নাগপুরে। সবগুলো ম্যাচই শুরু হবে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায়।

টি-টোয়েন্টি সিরিজের দল:
সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, লিটন দাস, সৌম্য সরকার, নাঈম শেখ, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, আফিফ হোসেন ধ্রুব, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, আমিনুল ইসলাম বিপ্লব, আরাফাত সানী, সাইফউদ্দিন, আল আমিন হোসেন, মোস্তাফিজুর রহমান ও শফিউল ইসলাম।

error20
fb-share-icon0
Tweet 10
fb-share-icon20


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Wordpress Social Share Plugin powered by Ultimatelysocial
error: Content is protected !!