শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ০৭:০১ পূর্বাহ্ন

ভাসমান খাঁচায় মাছ চাষ করে লাখোপতি বাদশা

ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

নিজস্ব প্রতিনিধি : বেড়ায় হুরাসাগর নদীতে ভাসমান খাঁচায় বাণিজ্যিক ভিত্তিতে মাছ চাষ করে ব্যাপক সফলতা পাওয়া গেছে। খাঁচায় মাছ চাষ করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন বেড়া উপজেলার হরিদেবপুর গ্রামের আলহাজ আলী হাসান বাদশা।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বেড়া উপজেলার হরিদেবপুর গ্রামের আলহাজ আলী হাসান বাদশা ৩৫টি খাঁচা বানিয়ে হুরাসাগর নদীতে মোনোসেক্স তেলাপিয়া মাছ চাষ শুরু করেন। নিজের প্রচেষ্টায় তিনি এলাকায় একজন খাঁচায় মাছচাষি হিসেবে পরিচিতি লাভ করেন। তাঁর দেখাদেখি বেড়া পৌর এলাকার অনেকেই খাঁচায় মাছ চাষের আগ্রহ প্রকাশ করেন। এ মডেলকে কেন্দ্র করে এলাকার নদীগুলোতে স্বল্প পুঁজি বিনিয়োগে স্বল্প আয়ের মানুষের আর্থিকভাবে ব্যাপক লাভবান হওয়ার স্বম্ভাবনার দ্বার উন্মোচিত হয়।

যেভাবে শুরু

বেড়া উপজেলার হুরাসাগর নদীতে প্রথমে ৩৫টি খাঁচা তৈরি করে মাছ চাষ শুরু করেন বাদশা। খাঁচা তৈরিতে ব্যাপক খরচ হওয়ায় মাছ বিক্রি করে প্রথমবার তেমন লাভ হয়নি। তাই বিভিন্নভাবে পুঁজি সংগ্রহ করে নতুন উদ্যোগে খাঁচায় মাছ চাষ করে বেশ লাভবান হন তিনি। এর পর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। এগোতে থাকে তাঁর ব্যবসা। তাঁর সাফল্যে উৎসাহিত হয়ে এলাকার অনেক বেকার যুবক এ পদ্ধতিতে মাছ চাষ করতে এগিয়ে আসেন।

মাছ চাষের বিষয়ে জানতে চাইলে বাদশা জানান, এইচএসসি পাস করে বেকার অবস্থায় দিন কাটে তাঁর। চাঁদপুরের ডাকাতিয়া নদীর উভয় তীরে গড়ে উঠেছে হাজার হাজার তেলাপিয়ার খাঁচা—এমন এক প্রতিবেদন টেলিভিশনে দেখে বন্ধুদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। এরই মধ্যে সিরাজগঞ্জের কয়েক বন্ধু খাঁচা বানিয়ে মাছ চাষ শুরু করেন। তাঁরা ব্যাপক লাভবান হন। তাঁদের অনুপ্রেরণা ও পরামর্শে ভেবেচিন্তে একদিন সিদ্ধান্ত নেন খাঁচায় মাছ চাষের।

এ বিষয়ে বাদশার কোনো পূর্ব অভিজ্ঞতা ছিল না। তবুও সামান্য কিছু পুঁজি নিয়ে অত্যন্ত সাহসের সঙ্গে নেমে পড়েন খাঁচায় মাছ চাষ করতে।

খাঁচায় মাছ চাষে খরচ ও লাভ

খাঁচায় মাছ চাষকারী বাদশা জানান, প্রথমে খাঁচা তৈরির খরচ বাদে খাঁচার মাছ বিক্রি করে তেমন লাভ হয় না। তবে একবার খাঁচা তৈরি করলে অনেক দিন ব্যবহার করা যায়। সারা বছর এ পদ্ধতিতে নদীতে মাছ চাষ করা যায়। প্রতিটি খাঁচা তৈরি করতে আট হাজার ২৫০ টাকা, মাছের খাদ্য ২৩ হাজার ৬২৫ টাকা, শ্রমিক খরচ এক হাজার টাকা, মাছের পোনা খরচ ২৫ হাজার টাকা ও অনান্য খরচ দিয়ে প্রায় ৫০ হাজার টাকা ব্যয় হয়। মাছ বিক্রি হবে প্রায় ৫৫ হাজার থেকে ৬০ হাজার টাকার। মোট খরচ বাদে ৪০ দিনে একটি একটি খাঁচায় আয় হবে ১০ থেকে ১৫ হাজার টাকা।

বাদশা জানান, ৩৫টি খাঁচায় মাছ চাষ করতে খরচ হবে প্রায় ১৭ থেকে ১৮ লাখ টাকা। আর ৩৫টি খাঁচায় মাছ চাষ করে সব খরচ বাদ দিয়ে প্রতিবছর গড়ে প্রায় ১০ লাখ টাকা লাভ করা সম্ভব। তবে কেউ ইচ্ছা করলে কম পুঁজি নিয়ে কম খাঁচা দিয়েও ব্যাবসা শুরু করতে পারেন। এরই মধ্যে এ পদ্ধতি কাজে লাগিয়ে অনেকেই ভাগ্য পরিবর্তন করেছেন। তিনি বলেন, ভাসমান এ পদ্ধতিতে মাছ চাষ দেশের সর্বত্র শুরু হলে বেকারত্ব দূর করা সম্ভব।

খাঁচায় মাছ চাষ হয় চীনেও

আলহাজ আলী হোসেন বাদশা বলেন, চীনেও এ পদ্ধতিতে মাছ চাষের ব্যাপক প্রচলন রয়েছে। তিনি বলেন, মাছের খাদ্য ও যাবতীয় ওষুধের দাম বর্তমান বাজারে অনেক বেশি বেড়ে গেছে। কক্সবাজার, যশোর থেকে পোনা সংগ্রহ করতে ব্যয় অনেক বেশি ও কষ্টকর। এ ছাড়া মোকাম থেকে রেণু পোনা এনে এক মাস নার্সিং করতে হয়। তার পর চাষের পুকুরে দুই মাস কালচার করে তার পর খাঁচায় দেওয়া হয়। ৪০ থেকে ৪৫ দিনের মধ্যে মাছগুলো স্থানীয় বাজারসহ বিভিন্ন বাজারে বিক্রি করতে হয়।

সরেজমিনে দেখা যায়, বেড়া পাম্পিং স্টেশনসংলগ্ন হুরাসাগর নদীতে সারি সারি করে খাঁচা বসানো রয়েছে। কাঠ, বাঁশ দিয়ে বেষ্টিত পাঁচ-ছয় ফুট উচ্চতা, ২০ ফুট দৈর্ঘ্য, ১০ ফুট প্রস্থ জালবেষ্টিত ঘর তৈরি করে মাছ চাষ করা হচ্ছে। একটি খাঁচায় এক হাজার পোনা মাছ চাষ করা যায়। খাঁচায় পোনা ছাড়ার দিন থেকে ৪০ দিনের মধ্যে মাছ বাজারে বিক্রি করার উপযুক্ত হয়। একটি খাঁচায় প্রায় ৫০০ কেজি মাছ পাওয়া যায়। ৩৫টি খাঁচা দেখাশোনার জন্য রয়েছেন দুজন চাষি।

মৎস্য কর্মকর্তার ভাষ্য

খাঁচায় মাছ চাষ প্রসঙ্গে বেড়া উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা কামরুল হোসেন সরকার বলেন, খাঁচায় মাছ চাষ মৎস্যবিজ্ঞানীদের এক উদ্ভাবন। খাঁচায় মাছ চাষ করে দেশের অর্থনীতিকে চাঙ্গা করা সম্ভব। নদীতে খাঁচা পেতে মাছ চাষ করাতে নদীর প্রবহমান পানিও পাওয়া যায়। পুকুর তৈরির খরচ এবং ভূমি ব্যবহার থেকেও বাঁচা যায়। এ ছাড়া মোনাসেক্স তেলাপিয়া মাছ খুবই সুস্বাদু।

কামরুল হোসেন বলেন, বেকার যুবকরা বিদেশ যাওয়ার চিন্তা বাদ দিয়ে খাঁচায় মাছ চাষ করলে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ত্বরান্বিত হবে।

0
1
fb-share-icon1


© All rights reserved 2021 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
x
error: Content is protected !!