শনিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২০, ০৫:২৮ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

ভূমি আধুনিকায়নে অধিক গুরুত্বারোপ ভূমিমন্ত্রীর

image_pdfimage_print

diluনিউজ ডেস্ক : ভাষাসৈনিক, বীর মুক্তিযোদ্ধা, ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ এম.পি. বলেছেন, ভূমিহীনদের ভূমি প্রদান ও ভূমি আধুনিকায়নে অধিক গুরুত্ব দিতে হবে। তিনি স্বচ্ছতা, দ্রুততা ও সুষ্ঠুভাবে যথাসময়ে প্রকল্প কাজ সম্পন্ন করার জন্য সংশ্লিষ্টদের পরামর্শ দেন।

মন্ত্রী বলেন, প্রকল্পের কাজে কোন প্রকার গড়িমশি বরদাশত করা হবে না। সারাদেশের উপজেলা ও ইউনিয়নের জীর্ণ ভূমি অফিসগুলোর নতুন ভবন নির্মাণ কাজ দ্রুত সম্পন্ন করার জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন।

আজ ভূমি মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ভূমি মন্ত্রণালয়ের প্রকল্পসমূহের বাস্তবায়ন অগ্রগতি পর্যালোচনার নিমিত্ত ২০১৬ জুন মাসের সভায় সভাপতির বক্তব্যে ভূমিমন্ত্রী এ কথা বলেন।

মন্ত্রী শরীফ বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার দীর্ঘসূত্রিতার অবসান ঘটাতে চায়। মন্ত্রী বলেন, বেশি বেশি টীম ওয়ার্ক করলে কাজ ত্বরান্বিত হবে। এক্ষেত্রে লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী বরাদ্দের শতভাগ ব্যয় নিশ্চিত করে প্রকল্পের কাজ ত্বরান্বিত করার জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন তিনি।

ডিজিটাল পদ্ধতিতে ভূমি রেকর্ড, জরিপ ও সংরক্ষণ প্রকল্প এর আওতায় মে ২০১৬ পর্যন্ত ৬৮ লাখ ৭৭ হজার ৬৮টি খতিয়ানের ডাটা এন্ট্রি কাজ সম্পন্ন হয়েছে যা মোট বরাদ্দের শতকরা ৯৯.০৪ ভাগ। কর্মপরিকল্পনা অনুযায়ী এটুআই প্রকল্প হতে প্রাপ্ত নতুন সফটওয়্যারের মাধ্যমে ৫৫টি জেলায় ব্যাচ এন্ট্রির মাধ্যমে ডাটা এন্ট্রির কাজ শুরু করা হবে।

ডাটা এন্ট্রি কার্যক্রম গ্রহণের লক্ষ্যে সকল জেলায় প্রয়োজনীয় হার্ডওয়ার সরবরাহ করা হয়েছে। জামালপুরে ২২টি, বরগুনার আমতলীতে ৫টি ও রাজশাহীর মোহনপুরে ৯টি মৌজার ডিজিটাল জরিপ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। চলতি ২০১৫-১৬ মাঠ মৌসুমে জামালপুরের ২১৯টি বরগুনার আমতলীর ২০টি ও রাজশাহীর মোহনপুরে ১৩৭টি মৌজায় অর্থোফটো প্রযুক্তি ব্যবহার করে জিও রেফরারেন্সিং এর মাধ্যমে মৌজা ম্যাপ প্রস্তুতের কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

গত ৩ মে ২০১৬ তারিখে যশোরের মনিরামপুরে ইউনিয়ন ভূমি অফিস, সাব রেজিস্ট্রার অফিস ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) অফিসের মধ্যে কানেকটিভিটি স্থাপনের জন্য আইডিএরআরএস সফটওয়্যারটি উদ্বোধন করা হয়। চর ডেভেলপমেন্ট এন্ড সেটেলমেন্ট প্রকল্প-৪ (ভূমি মন্ত্রণালয়ের অংশে জানুয়ারি ২০১১ হতে ডিসেম্বর ২০১৬ পর্যন্ত যা পরবর্তীতে প্রস্তাবিত ডিসেম্বর ২০১৮ পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়) এর আওতায় নির্ধারিত ৩৯ হাজার ৫০২ একর খাস ভূমির চেয়েও অধিক ভূমির প্লট টু প্লট সার্ভে কাজ সমাপ্ত হয়েছে।

সভায় ভূমি মন্ত্রণালয়ের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি (এডিপি) তে অন্তর্ভুক্ত প্রকল্পওয়ারি ১০টি প্রকল্পের জন্য ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বরাদ্দ রয়েছে ২৪৫ কোটি ২৮ লাখ টাকা।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে ভূমি সচিব মেছবাহ উল আলম, ভূমি সংস্কার বোর্ডের চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান, ভূমি রেকর্ড ও জরিপ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক শেখ আবদুল আহাদ, জাতীয় ভূমি জোনিং প্রকল্প পরিচালক কফিল উদ্দিন, গুচ্ছগ্রাম প্রকল্প পরিচালক মাহবুব উল আলম, এলএটিসি পরিচালক মোহাম্মদ শাহেদ সবুর, পরিচালক (জরিপ) আনোয়ার হোসেন, ডিজিটাল ল্যান্ড ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম এর প্রকল্প পরিচালক আহসান হাবীব এসময় উপস্থিত ছিলেন।

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!