মতিউর রহমান নিজামীর মৃত্যুদণ্ডের রায়ের প্রেক্ষিতে জেলা জামায়াতের বিবৃতি

Jamat Logoজামায়াতের আমীর মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর মৃত্যুদন্ডের রায় বহাল থাকায় পাবনা জেলা জামায়াতের পক্ষে দলের প্রচার সেক্রেটারী আব্দুর রউফ স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে জানানো হয়, বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর আমীর, সাবেক সফল মন্ত্রী, আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ইসলামী চিন্তাবিদ ও ২০ দলীয় জোটের অন্যতম শীর্ষ নেতা পাবনার উন্নয়নের রুপকার মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীকে সরকার পরিকল্পিতভাবে হত্যার উদ্দেশ্যে তথাকথিত মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে মিথ্যা মামলা দায়ের করে মৃত্যুদন্ডে দন্ডিত বহাল করে এবং পরবর্তীতে রিভিউ খারিজের মাধ্যমে মৃত্যু দন্ড বহাল রাখায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে কেন্দ্রীয় কর্মসুচীর অংশ হিসেবে ৫ মে জেলা জামায়াতের উদ্যোগে সাঁথিয়া, পাবনা সদর, পাবনা পৌরসভা ও ঈশ্বরদীসহ জেলার বিভিন্ন উপজেলাতে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

৬ মে শুক্রবার দোয়া দিবস, ৭ মে শনিবার বিক্ষোভ ও ৯ মে রবিবার কেন্দ্র ঘোষিত দেশব্যাপী সকাল-সন্ধা শান্তিপূর্ণ হরতাল পালনে জেলার সর্বস্তরের মানুষের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী পাবনা জেলা শাখার ভারপ্রাপ্ত আমীর ও জেলা সেক্রেটারী নিন্মোক্ত বিবৃতি প্রদান করেছেনঃ-

“মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্মিত হয়ে সরকার তাকে হত্যা করতে যাচ্ছেন। তাকে হত্যা করা হলে শুধু পাবনা নয় দেশবাসীসহ গোটা বিশ্ব একজন সৎ ও যোগ্য জনপ্রতিনিধিকে হারাবে এবং মুসলিম বিশ্ব হারাবে একজন ইসলাম প্রচারককে।

যে অভাব শতাব্দির পর শতাব্দি গেলেও পুরন হবে না। তিনি সকল ধর্মের সকল মতের মানুষ কে সমান গুরুত্ব দিতেন বিধায় পাবনা জেলার কোন মানুষ ১৯৭১ থেকে আজ পর্যন্ত তার বিরুদ্ধে কোন থানায় মামলা তো দূরের কথা একটি জিডি পর্যন্ত করেননি।

সরকার তার এই জনপ্রিয়তায় ভীত হয়ে ও জামায়াতে ইসলামীকে নেতৃত্ব শূন্য করার জন্য এই সংগঠনের আমীর মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীসহ শীর্ষ নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে মিথ্যা মামলা দায়ের করে। মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর বিরুদ্ধে সরকারের পক্ষ থেকে যে সব অভিযোগ উত্থাপন করা হয়েছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা, ভিত্তিহীন, বানোয়াট ও কাল্পনিক। একটি স্বার্থন্নেষী মহল ছাড়া পাবনা জেলার কোন একজন মানুষও তা বিশ্বাস করে না। তারপরও মাওলানা নিজামীকে মৃত্যুদন্ডে দন্ডিত করায় এবং পরবর্তীতে রিভিউ খারিজের মাধ্যমে মৃত্যু দন্ড বহাল রাখায় দেশবাসীর সাথে আমরাও বিস্মিত, হতবাক ও গভীরভাবে মর্মাহত।

মাওলানা নিজামী ন্যায়বিচার থেকে বঞ্চিত হয়েছেন। সরকার রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার জন্য মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচারের নামে জামায়াতে ইসলামীর নেতৃবৃন্দকে হত্যার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। তারই অংশ বিশেষ আজকের এই রায়।

এই রায়কে স্থগিত করে তাকে মুক্তির দাবী জানান নেতৃবৃন্দ। এছাড়াও সরকারের জুলুম, নির্যাতন ও মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীকে পরিকল্পিতভাবে হত্যার ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে আগামী ৬ মে শুক্রবার দোয়া দিবস, ৭ মে শনিবার বিক্ষোভ ও ৯ মে রবিবার কেন্দ্র ঘোষিত দেশব্যাপী সকাল-সন্ধা শান্তিপুর্ণ হরতাল পালনে সর্বস্তরের মানুষের প্রতি আহ্বান জানান জামায়াত নেতৃবৃন্দ। – প্রেস বিজ্ঞপ্তি