মঙ্গলবার, ০৭ এপ্রিল ২০২০, ০৬:২২ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

মার্চের আগে ‘পদ্মাবতী’র মুক্তি নয়!

মার্চের আগে 'পদ্মাবতী'র মুক্তি নয়!

‘পদ্মাবতী’ সিনেমার মুক্তি নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে! বিতর্কিত এই সিনেমা ঠিক কবে মুক্তি পাচ্ছে তা নিয়েও কিছু জানা যায়নি এখনও। তবে মার্চের আগে যে এটি মুক্তির সম্ভাবনা নেই তা অনেকটাই নিশ্চিত হওয়া গেছে।

বিনোদন দুনিয়ায় সবচেয়ে বিতর্কিত বিষয়গুলির মধ্যে এ বছরের অন্যতম সেরা ‘পদ্মাবতী’ মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল ১ ডিসেম্বর।

দীপিকা পাড়ুকোন-রণবীর সিং এবং শাহিদ কাপুর অভিনীত এই সিনেমার বিরুদ্ধে রাজপুত করণী সেনার আপত্তি এবং দেশজুড়ে বিতর্কের জেরে পিছিয়ে দেওয়া হয় মুক্তির তারিখ। সঞ্জয় লীলা বানসালীর এই ছবি মুক্তির জন্য সিবিএফসি-ও (সেন্ট্রাল বোর্ড অব ফিল্ম সার্টিফিকেশন) এখনও ছাড়পত্র দেয়নি।

ছবির শুটিং পর্ব থেকেই আপত্তি তুলেছিল রাজপুত করণী সেনারা। অভিযোগ, এই ছবিতে রাজপুতদের ইতিহাসকে বিকৃত করা হয়েছে। পরিচালককে মারধর, দীপিকার মাথার দাম ঘোষণা, পোস্টার পোড়ানো থেকে শুরু করে তীব্র আন্দোলনে নামে করণী সেনারা।

এত বিতর্কের পর এবার ঐতিহাসিকদের সাহায্য নিতে চায় সিবিএফসি। ঐতিহাসিকদের একটি প্যানেল তৈরি করে ‘পদ্মাবতী’ ছবিটি তাদের দেখানো হতে পারে।

বোর্ডসূত্রে দাবি করা হয়েছে, ছবির বিষয় খুঁটিয়ে দেখবেন ঐতিহাসিকরা। এর পরই ছবির ছাড়পত্র নিয়ে চিন্তাভাবনা করা হবে। ডিসেম্বর প্রায় শেষ। সেক্ষেত্রে জানুয়ারির আগে এই কাজ হবে না। পাশাপাশি, পদ্মাবতীর আগে আরও চল্লিশটি ছবি রয়েছে ছাড়পত্রের আশায়।

সেন্সর বোর্ডের ওই সূত্রের দাবি, ছবির নির্মাতারাই বিষয়টিকে জটিল করে তুলেছেন। কারণ তারা প্রথম থেকেই বলে এসেছিলেন ছবিটি আংশিক ভাবে ইতিহাস নির্ভর।
ফলে ছবিতে কতটা ইতিহাস রয়েছে এবং তা কোথাও অতিরঞ্জিত বা বিকৃত হয়েছে কিনা তাই-ই খতিয়ে দেখবেন প্যানেলভুক্ত ঐতিহাসিকরা।

বোর্ডের ওই সূত্রেরই দাবি, জানুয়ারির দ্বিতীয় সপ্তাহের আগে পদ্মাবতীর ছাড়পত্র পাওয়ার কোনও আশা নেই। সেক্ষেত্রে ছবি মুক্তি পেতে পেতে মার্চ বা এপ্রিলও হয়ে যেতে পারে। সূত্র: ইন্ডিয়া টাইমস, আনন্দবাজার পত্রিকা


টুইটারে আমরা

© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Wordpress Social Share Plugin powered by Ultimatelysocial