শনিবার, ১৬ জানুয়ারী ২০২১, ০৭:৫৯ অপরাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

মালিগাছা ইউপি নির্বাচন : আ’লীগ প্রার্থী বাছাইয়ে তৃণমূলের নির্বাচন পণ্ড

image_pdfimage_print

Tebunia_101টেবুনিয়া সংবাদদাতা : পাবনা সদর উপজেলার মালিগাছা ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী নির্বাচনে তৃণমূল কর্মীদের ভোটাভুটির সময় বোমা বিস্ফোরণ ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে কোনো হতাহতে ঘটনা না ঘটলেও আসন্ন ইউপি নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী বাছাইয়ে তৃণমূল কর্মীদের ভোটাভুটির স্থগিত করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) দুপুর দেড়টার দিকে সদর উপজেলার মালিগাছা ইউনিয়নের টেবুনিয়া বাজারে আওয়ামী লীগ অফিসে প্রার্থী বাছাইয়ের আগে এ সংঘর্ষ হয়।

স্থানীয়রা জানান, মালিগাছা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী নির্ধারনের জন্য তৃণমূল নেতাকর্মীদের দুপুরে ভোট হওয়ার কথা ছিল।

এ সময় বিএনপি নেতা ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান উম্মত আলী আওয়ামী লীগে যোগ দিয়ে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী হতে সভাস্থলে তার লোকজন নিয়ে উপস্থিত হন।

এদিকে মাইকে তখন স্থানীয় নেতাদের বক্তব্য চলছিল। এমন সময় সভাস্থলে অতর্কিত ৪/৫টি হাতবোমা বিস্ফোরণ ও ৮/১০ রাউন্ড বন্দুকের গুলি করে দুর্বৃত্তরা । বোমা বিস্ফোরণ ও বন্দুকের গুলির শব্দে নেতাকর্মীরা ভয়ে দিকবিদিক ছোটাছুটি করতে থাকে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সভায় জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি রেজাউল রহিম লাল, পাবনা সদর উপজেলা চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের সভাপতি মোশাররফ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক সোহেল হাসান শাহিন, সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ রাসেল আলী মাসুদ, যুগ্ম সম্পাদক রবিউল ইসলাম রবি উপস্থিত ছিলেন।

এ ব্যাপারে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোশাররফ হোসেন জানান, তৃণমূল পর্যায়ের ভোট শুরুর আগে আলোচনার সময় জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রুহুল আমিন ও সাবেক সভাপতি খন্দকার আহমেদ শরীফ ডাবলুর নেতৃত্বে সশস্ত্র একটি দল সভাস্থলে উপস্থিত হয়ে ব্যাপক ভাঙচুর, বোমাবাজি করে ত্রাস সৃষ্টি করে। এসময় কয়েক রাউন্ড গুলিবর্ষণ হয় বলেও তিনি জানান।

মোশাররফ হোসেন  আরও জানান, এসময় দলীয় নেতা কর্মী সমর্থকরা প্রাণভয়ে এদিক সেদিক ছুটাছুটি শুরু করে। ফলে তৃণমূল ভোটগ্রহণ সম্ভব হয়নি।

এ ব্যাপারে জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও মালিগাছা ইউনিয়ন পরিষদের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশি খন্দকার আহমেদ শরীফ ডাবলু অভিযোগ করে বলেন, থানা আওয়ামী লীগ নেতারা আর্থিক সুবিধার বিনিময়ে বিএনপি সমর্থিত উম্মাত আলীর প্রতি সমর্থন দেয়ায় এবং তৃণমূল ভোটে তাকে অংশ নেয়ার সুযোগ করে দেয়ায় তারা (ডাবলু) সমর্থিতরা এর প্রতিবাদ করলে উম্মাত সমর্থিত সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা তাদের উপর হামলা চালায়।

ডাবলু আরও বলেন,গত নির্বাচনেও উম্মাত আলী বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী হয়ে নির্বাচিত হন। উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের সময়ে ইউনিয়ন পরিষদের ব্যাপক অনিয়ম ও মার্কেট তৈরির নামে কোটি টাকা আত্মসাৎ করে নিজের অবস্থান নষ্ট করে আওয়ামী লীগের নেতাদের সাথে উঠাবসা শুরু করেন। নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার পর কতিপয় আওয়ামী লীগ নেতার যোগসাজসে বিএনপি ছেড়ে আওয়ামী লীগে যোগদান করে মনোনয়নের মরিয়া হয়ে উঠেছেন। আমরা জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের এই অনিয়ম ও অযৌক্তিক সিদ্ধান্তের তীব্র প্রতিবাদ  জানাচ্ছি পাশাপাশি এই কর্মকাণ্ড যে কোনো মূল্যে প্রতিহত করা হবে বলে তিনি ঘোষণা দেন।

পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল্লাহ আল হাসান জানান, টেবুনিয়ায় আওয়ামী লীগের তৃণমূলের ভোটে ঝামেলা হয়েছে শুনে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করেছে।

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!