বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ০৩:০১ অপরাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

মিষ্টি তৈরিতে পাবনার ছানার খ্যাতি সারা দেশ জুড়ে

image_pdfimage_print

আরিফ খান, বেড়া, পাবনাঃ পাবনার ছানার কদর সারা দেশ জুড়ে। প্রতিদিন এ জেলার পাঁচটি উপজেলা থেকে প্রায় ২৫০ মণ ছানা ঢাকা, চট্রগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় যাচ্ছে।

আর তাতে তৈরি হচ্ছে নানা পদের মিষ্টান্ন। ছোট থেকে শুরু করে অভিজাত মিষ্টির দোকানের লোভনীয় ও সুস্বাদু মিষ্টি তৈরিতে পাবনার ছানার জুড়ি নেই।

পাবনার বেড়া, সাঁথিয়া, ফরিদপুর, ভাঙ্গুড়া ও চাটমোহর উপজেলা নিয়ে গড়ে উঠেছে দেশের প্রধান গরুর দুধ উৎপাদনকারী এলাকা।

প্রাণিসম্পদ কার্যালয়ের হিসাব অনুযায়ী এ এলাকায় ছোট-বড় প্রায় ২০ হাজার দুগ্ধ খামার রয়েছে।

এ ছাড়া গ্রামের বেশির ভাগ বাড়িতে গরু পালন করে দুধ উৎপাদন করা হয়। সব মিলিয়ে এ এলাকায় প্রায় ১০ লাখ লিটার গরুর দুধ উৎপাদন করা হয়।

এ এলাকার গরুর দুধের ওপর নির্ভর করে গড়ে উঠেছে সরকারি মিল্ক ভিটা এবং বেসরকারি প্রাণ ডেইরি, আড়ং দুধ, ফার্ম ফ্রেশ, অ্যামোমিল্ক, পিউরামিল্ক আফতাব ডেইরি, রংপুর ডেইরিসহ বেশ কিছু দুগ্ধ সংগ্রহকারী ও প্রক্রিয়াজাতকারী প্রতিষ্ঠান। এসব প্রতিষ্ঠান প্রতিদিন গড়ে প্রায় পাঁচ লাখ লিটার দুধ সংগ্রহ করে থাকে।

বাকি দুধ থেকে স্থানীয় ঘোষেরা প্রতিদিন প্রায় ৬০ হাজার লিটার দুধ সংগ্রহ করে থাকেন ছানা তৈরির জন্য।

পাবনা ও সিরাজগঞ্জে রয়েছে ১০০টির মতো ছানা তৈরির কারখানা। ওই সব কারখানায় প্রায় ৬০ হাজার লিটার দুধ থেকে তৈরি করা হয়ে থাকে প্রায় ৩০০ মণ ছানা।

ছানা তৈরির কারিগরেরা জানান, এক মণ দুধে আট কেজির মতো ছানা পাওয়া যায়।

পাবনার বেড়া উপজেলার সানিলা, পেঁচাকোলা, হাটুরিয়া, নাকালিয়া, সাঁথিয়া উপজেলার সোনাতলা, ডেমড়া, আমাইকোলা, সরিষা প্রভৃতি এলাকায় পড়ে উঠেছে প্রায় ১০০টি ছানা তৈরির কারখানা।

এসব কারখানায় কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা হয়েছে এক হাজারেরও বেশি মানুষের। কারখানাগুলোতে উৎপাদিত ছানার মধ্য থেকে প্রতিদিন ৫০ থেকে ৬০ মণ ছানা স্থানীয় মিষ্টির দোকানগুলোতে সরবরাহ করা হয়।
বাকি প্রায় ২৫০ মণের মতো ছানা ঢাকা, চট্রগ্রাম, বগুড়াসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় সরবরাহ করা হয়ে থাকে।

প্লাস্টিকের বস্তায় ভরে বাস, ট্রাকসহ বিভিন্ন যানবাহনে প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন এলাকায় ছানা পাঠানো হয়ে থাকে।

ছানা তৈরির বিভিন্ন কারখানার মালিকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, দুধের দামের সঙ্গে ছানার দাম ওঠানামা করে। কিছুদিন আগেও দুধ ৪০ থেকে ৪৫ টাকা লিটার দরে বিক্রি হত।

ওই সময় প্রতি কেজি উৎকৃষ্ট ছানার দাম ছিল ২৪০ থেকে ২৫০ টাকা। বর্তমানে দুধের দাম কিছুটা বেড়ে যাওয়ায় কারখানার মালিকদের প্রতি লিটার দুধ ৪৫ থেকে ৫০ টাকায় কিনতে হচ্ছে।

এর ফলে ছানার দামও কিছুটা বেড়েছে। প্রতি কেজি ছানা এখন বিক্রি হচ্ছে ২৫০ থেকে ২৬০ টাকা। এই দামে উৎকৃষ্ট মানের ছানা ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে পাঠানো হচ্ছে।

তবে কোনো কোনো কারখানায় নিম্নমানের ছানাও পাওয়া যায় বেশ কম দামে। কারখানায় দুধ থেকে ননি (ক্রিম) তুলে নেওয়ার পর সেই দুধে ছানা তৈরি হলে তা বিক্রি হয় ১৪০ থেকে ১৫০ টাকা কেজি দরে।

এই ছানা থেকে তৈরি হওয়া মিষ্টিজাত দ্রব্যের স্বাদ একেবারেই কম। কোনো কোনো মিষ্টির দোকান কম দামে মিষ্টি সরবরাহ করার জন্য কখনও এমন নিম্নমানের ছানা ব্যবহার করে থাকে।

তবে ঢাকা, চট্রগ্রামসহ দেশের অভিজাত মিষ্টির দোকানগুলো উৎকৃষ্ট মানের ছানাই নিয়ে থাকে।

বেড়া পৌর এলাকার সানিলা মহল্লার নির্মল ঘোষের ছানা তৈরির কারখানায় গিয়ে দেখা যায়, তিনটি চুল্লিতে বড় ধরনের পাত্রে দুধ ফুটানো হচ্ছে।

এক পর্যায়ে ফুটানো দুধে পুরোনো ছানার পানি মিশিয়ে তৈরি করা হচ্ছে ছানা। ছানা তৈরির পর বেশ কিছুক্ষণ ধরে বিশেষ কায়দায় পানি ঝড়িয়ে তা ঢাকায় পাঠানোর উপযোগী করে বস্তাভর্তি করা হচ্ছে।

ওই ছানা কারখানার মালিক নির্মল ঘোষ জানান, তাঁর কারখানায় ১২ জনের মতো লোক মতো লোক ছানা তৈরির কাজ করে থাকেন।

প্রতিদিন গড়ে ২৫ মণের মতো ছানা তৈরি হয়।

তাঁর কারখানায় উৎপাদিত সব ছানাই উৎকৃষ্ট মানের দাবি করে তিনি জানান উৎপাদনের পর পরই এসব ছানা পিকআপ ভ্যানে ঢাকায় পাঠানো হয়।

বর্তমানে ঢাকায় ছানার চাহিদা বেশ বেড়েছে বলে তিনি জানান।

দুধ প্রক্রিয়াজাতকারী প্রতিষ্ঠান ইছামতী ফুড এন্ড ডেইরি প্রোডাক্টের (পিউরা মিল্ক) ব্যবস্থাপনা পরিচালক আব্দুর রউফ বলেন, ‘স্বাদে ও মানে পাবনার গরুর দুধ যেমন উৎকৃষ্ট তেমনি এ এলাকার ছানা-ও সেরা।

এ এলাকার ছানার ওপর নির্ভরশীল ঢাকা, চট্রগ্রামসহ দেশের অনেক এলাকার মিষ্টিজাত দ্রব্য তৈরির কারখানা। আমার জানামতে বিদেশেও এ এলাকার ছানা যায়।’

বেড়া উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা গৌর চন্দ্র সাহা বলেন, ‘সারা দেশে পাবনার দুধের খ্যাতি ও কদরের সঙ্গে এ এলাকার ছানারও খ্যাতিও রয়েছে।’

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!