শনিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২০, ০১:৫৯ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

যুদ্ধ বিরতিতে ‘সম্মত’ আজারবাইজান-আর্মেনিয়া

Smoke rises after shelling in Stepanakert on October 9, 2020, during ongoing fighting between Armenia and Azerbaijan over the disputed region of Nagorno-Karabakh. - Armenia and Azerbaijan were due to hold their first high-level talks on Friday after nearly two weeks of clashes over the disputed Nagorno-Karabakh region, with hopes rising that a ceasefire could be brokered in Moscow. (Photo by ARIS MESSINIS / AFP)

image_pdfimage_print

নাগার্নো-কারাবাখ নিয়ে চলমান যুদ্ধে বিরতি টানতে বিবাদমান দুই রাষ্ট্র আজারবাইজান ও আর্মেনিয়া সম্মত হয়েছে বলে জানিয়েছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ। মস্কোয় শুক্রবার দুই পক্ষের দীর্ঘ আলোচনার পর এ বিষয়ে মতৈক্য হয় বলে এএফপি ও বিবিসি’র খবরে বলা হয়েছে।

লাভরভ জানিয়েছেন, শনিবার থেকে যুদ্ধ বিরতি শুরু এবং নাগার্নো-কারাবাখ ‘গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা শুরু করতে’ একমত হয়েছে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী। এ ব্যাপারে মতৈক্যের আগে শত্রু দেশ দুটির মধ্যে ১১ ঘণ্টা আলোচনা হয়েছে।

রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানিয়েছেন, ‘মানবিক কারণে ১০ অক্টোবর (শনিবার) ১২ থেকে’ যুদ্ধ বিরতিতে সম্মত হয়েছে যুদ্ধে বিবাদমান দুই দেশ। রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভা এএফপিকে নিশ্চিত করেছেন যে, শনিবার দুপুর থেকে যুদ্ধ বিরতি শুরু হচ্ছে।

এক বিবৃতিতে লাভরভ জানিয়েছেন, যুদ্ধ বিরতির সময়টাতে আন্তর্জাতিক কমিটি অব রেড ক্রসের মধ্যস্থতায় যুদ্ধে নিহতদের দেহ ও বন্দীদের বিনিময় করবে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়া। সেই সঙ্গে যত দ্রুত সম্ভব বিতর্কিত নাগার্নো-কারাবাখ নিয়ে দীর্ঘ মেয়াদি সমাধানের খোঁজে আলোচনা শুরু করতেও রাজি হয়েছে উভয় পক্ষ।

নাগার্নো-কারাবাখ আজারবাইজানের মধ্যে অবস্থিত হলেও আর্মেনীয় নৃগোষ্ঠীর লোকজন অঞ্চলটি নিয়ন্ত্রণ করে আসছে। আর আর্মেনিয়া তাদেরকে সমর্থন দিচ্ছে। ১৯৯০ দশকে যুদ্ধের মধ্য দিয়ে অঞ্চলটি আজারবাইজান থেকে বিচ্ছিন্ন হলেও এই অঞ্চলটিকে স্বাধীন দেশ হিসেবে স্বীকৃতি দেয়নি কোনো দেশ।

তুমুল যুদ্ধের পর ১৯৯৪ সাল যুদ্ধ বিরতিতে ছিল দেশ দুটি।

বিরোধপূর্ণ নাগার্নো-কারাবাখ নিয়ে ২৭ সেপ্টেম্বর ফের যুদ্ধে জড়ায় আর্মেনিয়া-আজারবাইজান। দুই সপ্তাহ ধরে এই যুদ্ধে অনেক হতাহতের খবর এসেছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলোতে।

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!