শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ০১:৪৪ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

লিভার সুস্থ রাখতে

image_pdfimage_print

শরীরের একটি গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ লিভার। লিভারের কার্যক্ষমতা নষ্ট হলে বিভিন্ন অঙ্গ বিকল হয়ে যাওয়ারও আশঙ্কা থাকে। শরীর সুস্থ রাখতে তাই লিভারের যত্ন নেয়া খুবই জরুরি। বিশেষজ্ঞদের মতে, খাদ্যাভাস ও জীবনযাপন পদ্ধতি মেনে না চলার কারণে সাধারণত লিভারের নানা সমস্যা দেখা দেয়। এমন কিছু খাবার আছে যা লিভারকে ডিটক্সিফাই করতে সাহায্য করে। যেমন-

রসুন: রসুন, লিভার থেকে এক ধরনের এনজাইম উৎপাদনে সাহায্য করে, যা শরীর থেকে টক্সিন বের করতে ভূমিকা রাখে। এ ছাড়াও রসুনে উচ্চ মানের অ্যান্টিবায়োটিক, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টিফাঙ্গাল জাতীয় উপাদান থাকায় এটি লিভারকে সুস্থ রাখার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার: লিভারকে সুস্থ রাখতে খাদ্যতালিকায় ফাইবারযুক্ত খাবার অন্তর্ভুক্ত করা প্রয়োজন। ফাইবার লিভারে জমা হওয়া চিনির স্তরকে হ্রাস করতে সাহায্য করে। ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার যেমন, বার্লি, ওটমিল, বিভিন্ন শাকসবজি, পালংশাক, ব্রকলি, লেটুস, বিটরুট, গাজর ইত্যাদি খাবার শরীর থেকে ক্ষতিকারক টক্সিন বের করতে সহায়তা করে।

লেবু জাতীয় ফল: লেবু জাতীয় ফল যেমন- কমলালেবু, পাতিলেবু বা মুসাম্বির মধ্যে এক ধরনের এনজাইম থাকে, যা লিভার থেকে টক্সিন বের করতে সাহায্য করে। এগুলিকে জুস হিসেবে বা ফলের সালাদ বানিয়েও নিয়মিত খেতে পারেন।

আঙ্গুর ও আপেল: আঙ্গুর ও আপেলের মধ্যে পেকটিন নামের এক ধরনের উপাদান থাকে যা শরীর থেকে টক্সিন বের করতে এবং হজম ক্ষমতাকে উন্নত করতে সাহায্য করে। আবার একটি গবেষণায় দেখা গেছে, আঙ্গুরের রস এবং আঙ্গুর বীজ অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ। তাই এগুলো প্রদাহ হ্রাস করে এবং লিভারের ক্ষতি রোধ করে লিভারকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে।

গ্রিন টি: বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, গ্রিন টি শরীরের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এটি রোজ পান করলে অনেক ধরনের শারীরিক সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। এছাড়া গ্রিন টিতে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকায় এটি লিভার থেকে মেদ ঝরাতেও ভূমিকা রাখে। সেই সঙ্গে লিভারের কার্যকারিতা উন্নত করে।

আখরোট: আখরোটে থাকা ওমেগা থ্রি সমৃদ্ধ ফ্যাটি অ্যাসিড এবং অ্যামিনো অ্যাসিড লিভারকে টক্সিন মুক্ত করে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে।

হলুদ: লিভার ভালো রাখতে হলুদের জুড়ি নেই। তবে এ ক্ষেত্রে গুঁড়া হলুদের চেয়ে কাঁচা হলুদ বেশি উপকারী। হলুদে থাকা কারকুমিন টক্সিনগুলি বের করতে সহায়তা করে। লিভার সুস্থ রাখতে রোজ সকালে খালি পেটে এক টুকরো কাঁচা হলুদ চিবিয়ে খেতে পারেন।

অলিভ অয়েল: অত্যধিক চর্বিযুক্ত খাবার খাওয়া লিভারের জন্য খুবই ক্ষতিকারক। তবে কিছু চর্বি রয়েছে যা শরীরের জন্য উপকারী। গবেষণায় দেখা গেছে, অলিভ অয়েল অক্সিডেটিভ স্ট্রেস হ্রাস করতে এবং লিভারের কার্যকারিতাকে উন্নত করতে সহায়তা করে। এ কারণে নিয়মিত খাদ্যতালিকায় এ খাবারটি যুক্ত করতে পারেন।

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!