শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ০৮:২৫ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

শতবর্শীকে স্বজনদের কাছে পৌঁছে দিল ঈশ্বরদী থানা পুলিশ

image_pdfimage_print

উপজেলা করেসপন্ডেন্ট : চিকিৎসা করানোর কথা বলে শতবছর বয়সী বৃদ্ধা আমিরুন্নেছার সরলতার সুযোগে স্বর্ণের চেইন-নগদ টাকা নিয়ে সটকে পড়ে অজ্ঞাত এক প্রতারক নারী।

পরে শতবর্শী আমিরুন্নেছাকে ঈশ্বরদী জংশন স্টেশন এলাকা থেকে পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের সহায়তায় তার বাড়িতে স্বজনের কাছে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।

শনিবার (২৪ অক্টোবর) পাবনার ঈশ্বরদীর রেলওয়ে ওভারব্রিজ মোড়ের পশ্চিমটেংরীর রানার চায়ের দোকানের শতবর্শী আমিরুন্নেছাকে পাওয়া যায়।

পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ঈশ্বরদী সার্কেল) ফিরোজ কবির তাঁকে নিয়ে ও সংবাদকর্মী টিপু সুলতানকে সাথে নিয়ে সড়কপথে কুষ্টিয়া-মেহেরপুর মহাসড়কের খলিশাকুন্ডু বাসস্ট্যান্ডে বিকেলে তার ভাসুরের ছেলে, স্থানীয় চায়ের দোকানী মিনারুলের কাছে পৌছে দেয়।

তবে প্রতারক ওই নারীর সঠিক নাম ও পরিচয় জানা যায়নি।

আমিরুনেচ্ছা কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার খলিশাকুন্ডু গ্রামের রিকাত আলী মন্ডলের স্ত্রী। তার ৪ ছেলে ৪ মেয়েসহ ছেলেদের বৌ নাতী-নাতনী রয়েছেন। এক ছেলে ফরিদপুরে থাকেন, এক ছেলে মালয়েশিয়া ও ২ ছেলে মেহেরপুরে থাকেন এবং মেয়েরা শ্বশুরবাড়ি রয়েছেন।

আমিরুনেচ্ছা জানান, প্রতারক ওই মেয়েটির সাথে দুই বছর ধরে পরিচয়। মাঝে মাঝে আমার বাড়ি আসা যাওয়া করতো। ধীরে ধীরে আমাদের খুবই সুসম্পর্ক হয়ে ধর্ম বোন পাতানো হয়।

পায়ে বাতের ব্যাথার খুব ভাল চিকিৎসা করাবো বলে শুক্রবার (২৩ অক্টোবর) মেহেরপুর জেলার মুজিবনগর উপজেলার দাইড়পুর থেকে ছেলের বাড়ি থেকে দুজনে রওয়ানা হই।

ঈশ্বরদী এসে মেয়েটি আমাকে বলে, রাতে চুরি-ছিনতাই হতে পারে, চিকিৎসার খরচ গলায় ১ ভরি ওজনের স্বর্ণের চেইনটি আমার কাছে রাখি।

আমি তখন সরলমনে স্বর্ণের চেইন, কাছে থাকা নগদ ৩ হাজার টাকা তার হাতে দেই। কিছুসময় পর ঈশ্বরদী বাজারে বসিয়ে রেখে সে চলে যায়। রাতে শহরের একটি বাড়িতে বিপদের কথা বলে আশ্রয় নিয়ে সকালে বাড়ি যাওয়ার জন্য বের হেই।

পাবনার অতিরিক্ত সিনিয়র পুলিশ সুপার (ঈশ্বরদী সার্কেল) ফিরোজ কবির জানান, বৃদ্ধা মা-বাবা যাদের রয়েছেন, তাদের সন্তানদের একটু বিশেষ খেয়াল রাখা প্রয়োজন।

জীবনের শেষ কয়েকটি দিন সন্তানের উচিত, তাদের প্রতি একটু নজর দেওয়া। সকলে সচেতন হলে কোন অঘটন ঘটবে না।

এদিকে সরলমনা আমেনা বেগমকে পেয়ে তার ছেলে সন্তান ও স্বজনরা পুলিশ প্রশাসন ও সংবাদকর্মী টিপু সুলতানের কাজের প্রশংসা করেন।

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!